BREAKING NEWS

২৮ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

OMG! মেথি শাক ভেবে গাঁজার তরকারি রান্না করে খেল উত্তরপ্রদেশের গোটা পরিবার, তারপর…

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: July 1, 2020 6:19 pm|    Updated: July 1, 2020 7:13 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অবাক কাণ্ড! প্রতিবেশীর কথায় বিশ্বাস করে গাঁজাকে মেথি শাক (Methi) ভেবে তরকারি বানিয়ে খেল নিল গোটা পরিবার। এরপরই গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে একই পরিবারের ৬ সদস্য। পরে পুলিশ গিয়ে তাঁদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

একেই বলে অজ্ঞতার ফল। জানা যায়, উত্তরপ্রদেশের কনৌজের (Kannauj) এক প্রতিবেশী নাকি মজা করেছিল আরেক প্রতিবেশীর সঙ্গে। নেহাত দুষ্টুবুদ্ধির ছলেই গাঁজা পাতা দিয়ে বলেছিল সেটা নাকি মেথি শাক। কিন্তু তার পরিণতি যে এত ভয়ংকর হবে তা হয়তো কল্পনা পারেননি তাঁরাও। আর সেই মাশুল গুনতে হল পরিবারের সকলকেই। প্রতিবেশীর কথার সত্যতা যাচাই না করে মেথি শাক ভেবে গৃহকর্ত্রী তা রান্না করে খেতে দেন পরিবারের সবাইকে। তারপরই শুরু হয় গন্ডগোল। সেই শাক খেয়েই অসুস্থ হয়ে পড়ে পরিবারের সদস্যরা। নিমেষে জ্ঞানও হারিয়ে ফেলেন কয়েকজন। বাকিদের অবস্থাও ক্রমাগত খারাপ হতে থাকে। এমন পরিস্থিতিতে কোনওমতে বাড়ির কর্তা পাশের বাড়িতে গোটা ব্যাপারটা জানাতে পারেন। তাঁরাই খবর দেন পুলিশে। ঘটনাস্থলে এসে পরিবারের ৬ জনকে স্থানীয় হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করে পুলিশ।

[আরও পড়ুন:করোনার কবলে রাখাল, কোয়ারেন্টাইনে ঠাঁই হল ৫০টি ছাগল ও ভেড়ার]

তবে অন্য আরও একটি সূত্রে খবর মেলে যে, স্থানীয় এক সবজি বিক্রেতা ওই গাঁজা পাতা বিক্রি করেছিলেন। সেখান থেকেই এই পরিবারের কেউ এই পাতা কিনেছিলেন। ইতিমধ্যেই পরিবারের এক সদস্যের অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্ত প্রতিবেশীকে আটক করেছে পুলিশ। তবে সেই অভিযুক্ত প্রতিবেশী নিছক মজা করেই এই কাজ করেছেন নাকি তিনি নিজেও গাঁজা পাতার বিষয়ে অজ্ঞ ছিলেন তা জানা যায়নি। আপাতত সেই পরিবারের ঘর থেকে পাওয়া অবশিষ্ট পাতা এবং রান্না করা তরকারি পরীক্ষার জন্য নিয়ে গিয়েছে পুলিশ। প্রতিবেশীর দেওয়া ওই পাতাটি গাঁজা পাতা, নাকি অন্য কিছু। তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এছাড়াও আটক অভিযুক্ত আদপেও ওই পরিবারের প্রতিবেশী নাকি স্থানীয় সবজি বিক্রেতা, তাও জানার চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন:প্রতিবন্ধকতাকে হার মানিয়ে ইচ্ছেশক্তির জয়, পা দিয়েই ছবি এঁকে উদাহরণ গড়ল ভিলাইয়ের যুবক]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement