BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মুখ ভরতি ছিদ্র, কপালে শিং! গিনেস বুকে নাম তুললেন ভয়াবহ চেহারার জার্মানির এই ব্যক্তি

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: October 26, 2020 12:03 pm|    Updated: October 26, 2020 5:37 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সর্বাধিকবার দেহ পরিবর্তন করে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে নাম তুললেন এক জার্মান নাগরিক। রল্ফ বুখহলজ (Rolf Buchholz) নামে ওই ব্যক্তি এখনও পর্যন্ত ৫১৬ বার তাঁর দেহে নানারকম পরিবর্তন করিয়েছেন। শিং-ও রয়েছে তাঁর মাথায়!

গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, জার্মানির বাসিন্দা ওই ব্যক্তি একটি টেলিকম সংস্থায় কর্মরত। ৪০ বছর বয়সে প্রথম ট্যাটু করিয়েছিলেন রল্ফ। সেই সময়ই প্রথম পিয়ার্সিং করান তিনি। এরপর পেরিয়েছে ২০ বছর। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে নাক, ঠোঁট, ভ্রু, কপাল সমস্ত জায়গাতেই একাধিক পিয়ার্সিং করিয়েছেন। দেহে তৈরি করেছেন অজস্র ট্যাটু। তৈরি করেছেন দুটো ছোট শিং। জানা গিয়েছে, সর্বাধিকবার দেহে ছিদ্র অর্থাৎ পিয়ার্সিং করানোর জন্য ২০১০ সালে গিনেসের তালিকায় নাম ওঠে রল্ফের। পরে ২০১৪ সালে বিমানবন্দর থেকে হোটেলে যাওয়ার পথে সাধারণ মানুষের নজরে পড়ে যান তিনি।

[আরও পড়ুন: পাদ্রী আশীর্বাদ দেওয়ার জন্য হাত তুলতেই ‘হাই-ফাইভ’ খুদের, মিষ্টি ভিডিওয় মুগ্ধ নেটিজেনরা]

দেহে এত কারুকার্য, এত পরিবর্তনের পর কেমন লাগে? রল্ফের কথায়, তাঁর অন্তরের এতটুকুও পরিবর্তন হয়নি। তিনি ৪০ বছর আগে যেমন ছিলেন, এখনও ঠিক তেমনটাই আছেন।

দেখুন রল্ফকে:

[আরও পড়ুন: দেবতা দর্শনে সটান মন্দিরের ভিতর! পুরোহিতের নির্দেশ পেতেই ডেরায় ফিরে গেল ‘সংস্কারী’ কুমির]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement