৫ আশ্বিন  ১৪২৬  সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নিজের কিছু সম্পত্তি থাকুক, কে না চান?জমিদার আমলে তো সম্পত্তির সীমা-পরিসীমা ছিল না। গ্রামের পর গ্রাম কিনে সম্পত্তি বাড়িয়ে প্রভাব বিস্তারের লড়াই ছিল সকলের মধ্যেই। আজ সে দিনও নেই, বিষয়আশয় কেনাকাটার ধরনও বদলেছে। তবু অনেকেই মাঝেমধ্যে মনে করেন, যদি একটা অঞ্চল কেনা যেত! কেউ বা ভাবেন, গ্রামের মালিক যদি হতে পারতাম!

[আরও পড়ুন: OMG! ট্রাফিক পুলিশের হাত থেকে বাঁচতে এ কী করছেন বাইক আরোহীরা!]

বেশ তো, আপনার ইচ্ছেপূরণের বহু সুযোগ ছড়িয়ে রয়েছে পৃথিবীর আনাচেকানাচে। পাশ্চাত্যে সেই সুযোগ সবচেয়ে বেশি। প্রাচ্যেও আছে। অস্ট্রেলিয়া থেকে ফ্রান্স, স্পেন – সব দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ধু ধু করছে ফাঁকা গ্রাম। শুধু কিনে ফেললেই হল। সেখানে একেবারে জাঁকিয়ে রাজত্ব করুন। আসুন, একে একে তার হদিশ দিই।
পশ্চিম অস্ট্রেলিয়ার একটি মফস্বল। নাম – লট ৮৩ ব়্যাডবার্ন রোড। ২০টি কটেজ, ক্রিকেট মাঠ, টেনিস কোর্ট – কী নেই? নেই শুধু বাসিন্দা। জনমানবহীন গ্রামটি একেবারে বসবাসের জন্য। নিয়ম মেনে মালিকানা আপনার হয়ে গেলেই, ব্যস, চিন্তা নেই। একেবারে নিজের মতো করে সাজিয়ে ফেলুন।

tumsborro
আমেরিকার ইন্ডিয়ানা প্রদেশের স্টোরি। দেড় শতাব্দীর পুরনো গ্রাম। বরফঢাকা গ্রামটিতে প্রথম থেকেই জনবসতি কম। তারপর তাঁরাও ধীরে ধীরে চলে যান। জনশূন্য গ্রামটি একসময়ে ‘ঘোস্ট ভিলেজ’ বলেই পরিচিত হয়ে গিয়েছিল। নয়ের দশকের শেষদিকে মাত্র ২২ কোটি টাকা দিয়ে গ্রামটি কিনে ফেলেন এক ব্যক্তি। কিন্তু এখন আর তিনিও স্টোরি আর নিজের দখলে রাখতে চান না। ক্রেতা খুঁজছেন। ইচ্ছে করছে নাকি? আসুন তবে ইন্ডিয়ানায়।
লিটল হকিংস। এটি কোনও গ্রাম নয়, আমেরিকার জর্জিয়ার একটি দ্বীপ। গুটি কয়েক বাড়ি, ক্লাবহাউস তো আছেই। আছে বিস্তীর্ণ জলাশয়। একেবারে স্নিগ্ধ প্রাকৃতিক পরিবেশে মনের মতো করে থাকুন আর দ্বীপটি গড়ে তুলুন একদম নিজের পছন্দ অনুযায়ী। একদিন হয়ত আপনারই নামে পরিচিতি পাবে এই দ্বীপ।
হ্যামলেট। না, শেক্সপিয়রের কোনও ঔপন্যাসিক চরিত্র নয়। উত্তর ফ্রান্সের একটা নরম্যান্ডির একটা পাহাড়ি গ্রাম। দু,একটি বাড়ি আর দুটি স্টোন কটেজ। সম্পদ বলতে এইই। আর রয়েছে অপূর্ব প্রকৃতি। দামও নামমাত্রই। সুতরাং, পাহাড়ের কোলে স্বাধীনভাবে দিন কাটাতে চাইলে হ্যামলেটকে নিজের করে নিন।

normandy
ওয়েলসে স্লেট খনির কাছে মূলত শ্রমিকদের বসবাসের জন্য তৈরি হয়েছিল অ্যালবারলেফেনি গ্রাম। মোট ১৬টা কটেজ রয়েছে। যার বেশির ভাগই ভাড়া দেওয়া। কিন্তু ব্রিটিশদের দেশে রাজত্ব করার সুযোগ কি ছাড়বেন? অ্যালবারলেফেনি কিনে ফেললে কোনও ভাড়ার ঝঞ্ঝাট থাকবে না। সাজিয়ে নিতে পারবেন নিজের মতো করে।

[আরও পড়ুন: কাকদের প্রতিশোধের ঠেলায় অতিষ্ঠ জীবন, ঘরবন্দি মধ্যপ্রদেশের যুবক]

এতগুলো গ্রাম কেনার হদিশ তো পেলেন। এবার দামের কথা ভাবছেন নিশ্চই? তারও তারতম্য আছে। তিন থেকে শুরু করে ১৫০ কোটির মধ্যেই ঘোরাফেরা করছে গ্রামগুলোর দাম। যেটা পছন্দ, রেস্ত অনুযায়ী কিনে ফেলুন। আর ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য রেখে যান আপনার নিজের হাতে গড়া সম্পত্তি।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং