BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‌চার বছর ধরে মহিলাদের মতো স্কার্ট-হিল পরে অফিসে যাচ্ছেন এই ব্যক্তি, কেন জানেন?‌

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: October 20, 2020 4:04 pm|    Updated: October 20, 2020 4:49 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ মেয়েদের জিন্স-টি শার্ট কিংবা ব্লেজার-প্যান্ট পরতে হামেশাই দেখা যায়। কিন্তু কখনও কোনও ছেলেকে স্কার্ট এবং হাই হিল জুতো পরতে দেখেছেন?‌ আর শুধু পরে থাকা নয়, অফিসেও যাতায়াত করেন?‌ এমন কারোর হদিশ এতদিন না পেলেও এবার পাওয়া গিয়েছে। খোঁজ মিলেছে এমন এক ব্যক্তির, যিনি রোজ অফিসে স্কার্ট পরে যান। সঙ্গে থাকে হাই হিল জুতোও।

জানা গিয়েছে, মার্ক ব্রায়ান নামে পেশায় রোবোটিকস (Robotics) ইঞ্জিনিয়ার ওই ব্যক্তি বিবাহিত। তিন সন্তান রয়েছে। কাজ করেন জার্মানির (Germany) একটি সংস্থার উঁচু পদে। কিন্তু গত চার বছর ধরে ৬১ বছর বয়সি মার্ক প্রতিদিনই অফিস যাচ্ছেন মহিলাদের মতো পোশাক পরে। কিন্তু কেন এই কাজ করছেন? মার্কের কথায়, সব ধরনের পোশাককে জনপ্রিয় করতে এবং পোশাক নিয়ে লিঙ্গবৈষম্য দূর করতেই তাঁর এই ভাবনা। নিজের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে সেকথা লিখেওছেন তিনি। তিনিও এও জানান, তাঁর এরকম পোশাক পরায়, কখনই তাঁর সহকর্মীরা প্রশ্ন তোলেননি। এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘‌‘‌আমার সহকর্মীরা কখনই পোশাক নিয়ে আমাকে কিছু বলেনি। এরকম পোশাক পরার আগেও আমি অফিসে হিল পরে আসতাম।’‌’

 

 
 
 
 
 
View this post on Instagram
 
 
 
 
 
 
 
 
 

I had heard a drone approaching the train station a few seconds before it passed by overhead and then came back and hovered for a few seconds. Maybe it just had to see this guy wearing heels and a skirt. Half day at home and half day in office. Day 61 of somewhat working at home. Stay home and be safe everyone! I am just a normal,happily married, straight guy that loves Porsche’s, beautiful women, and likes to incorporate a skirt and heels into his daily wardrobe. Clothes and shoes should have no gender. #meninskirts #markinhighheels #clotheshavenogender #maninheels #maninhighheels #socialdistancing #maninskirt #skirtsformen #heelsformen #lostink #lostinkshoes #lostinkgirls @lostink.official #realmenofstyle

A post shared by Mark Bryan (@markbryan911) on

 

আসলে লিঙ্গবৈষম্য শুধু এদেশের নয়, গোটা বিশ্বের সমস্যা। নারী-পুরুষের অধিকার সমান নয়, সমাজের একাংশ আজও একথা বিশ্বাস করে। আর তাই বিভিন্ন জায়গায় এখনও মহিলাদের উপর অত্যাচারের খবর সামনে আসে। তবে এই সমস্ত কিছুকেই যেন চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ল মার্কের এই সিদ্ধান্ত। সোশ্যাল মিডিয়ায় ইতিমধ্যেই ভাইরাল মার্ক। অনেকেই তাঁর এই কাজের প্রশংসাও করেছেন।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement