৫ আশ্বিন  ১৪২৬  সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শপিং মলে জিনিসপত্র কিনতে গিয়েছিল তিন মহিলা। দিব্য়ি ঘুরে ঘুরে নানা জিনিসপত্র দেখছিল তারা। নানা ধরনের জিনিস দেখে লোভ আর সামলে রাখতে পারল না। টাকা না দিয়ে দিব্য়ি হাতিয়ে নিল দামি জিনিস। তবে গোল বাঁধল অন্যত্র। কারণ, চুরির তাড়ায় সন্তানতে ফেলে রেখে গেল ওই মহিলা। একরত্তির মায়ের খোঁজ করতে গিয়ে সিসিটিভি ফুটেজ দেখে চক্ষু চড়কগাছ কর্তৃপক্ষের।

[আরও পড়ুন: OMG! কুমিরের জন্য মন্দির তৈরির সিদ্ধান্ত গ্রামবাসীদের]

নিউ জার্সির মিডলটন শহরের ওই শপিং মল কর্তৃপক্ষ সিসিটিভি ফুটেজটি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছে। তাতেই দেখা যাচ্ছে, তিনজন মহিলা শপিং মলে ঢুকল। একজনের সঙ্গে রয়েছে সন্তান। সে দিব্য়ি শপিং মলের জিনিসপত্র দেখছেন। ভাল জিনিসপত্র দেখেই লোভে চকচক করে উঠছে তার চোখ। কোনটা ছেড়ে কোনটা নেবে, কিছুই বুঝে উঠতে পারছে না। ফন্দি আঁটল তিনজন। চুরি করবে তারা। তাই দুই মহিলা স্টোরের কর্মীদের জিনিস দেখানোর কাজে ব্যস্ত রাখল। আরেক মহিলা হাতিয়ে নিল দামি জিনিস। এরপর দৌড়। পালিয়ে গেল শপিং মল থেকে। কিন্তু গোল বাঁধল অন্য়ত্র। শপিং মলেই ফেলে গেল কোলের শিশুকে। বেশ কিছুক্ষণ পর ধাতস্থ হয় ওই মহিলা। তখনই মনে পড়ে একরত্তির কথা। ততক্ষণে যদিও মিনিট সাতেক কেটে গিয়েছে। এরপর তিনজনের মধ্য়ে এক মহিলা শপিং মলে যায়। নিয়ে আসে কোলের শিশুকে।

[আরও পড়ুন: প্লাস্টিকের বোতল ডাস্টবিনে ফেলল কাক! নেটদুনিয়ায় ‘হিরো’ ঝাড়ুদার পাখি]

তবে ততক্ষণে শিশুর অভিভাবকের খোঁজে সিসিটিভি ফুটেজ দেখতে শুরু করেছে শপিং মল কর্তৃপক্ষ। তাদের কাছে পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে ওই মহিলাদের কুকীর্তিও। ওই ফুটেজের ভিত্তিতে পুলিশ দুই মহিলাকে গ্রেপ্তার করেছে। তাদের বিরুদ্ধে মামলাও রুজু করা হয়েছে। কিন্তু প্রশ্ন একটাই পুলিশ ব্য়বস্থা নেওয়ার পরেও কেন সোশ্য়াল মিডিয়ায় চুরির ছবি শেয়ার করল শপিং মল কর্তৃপক্ষ? এই প্রশ্নের অবশ্য় মোক্ষম জবাব দিয়েছেন মালিক এনেলিয়ো অর্টেগা। তিনি বলেন, “চুরি করে জীবন কাটানোর সিদ্ধান্ত মোটেও সমর্থনযোগ্য় নয়। আবার ওই মহিলা নিজের সন্তানকে সঙ্গে নিয়ে এসেছিল। সেক্ষেত্রে তার সন্তানের মধ্য়েও চুরির প্রবণতা তৈরি হতে পারে। তাই বলব সন্তানদের সামনে এসব করবেন না। এই ঘটনার মাধ্য়মে অন্য়ান্য় অভিভাবকদেরও বার্তা দিতে চাই। তাই ফেসবুকে ওই ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ শেয়ার করেছি।”

 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং