BREAKING NEWS

০৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শুক্রবার ২০ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

পথের দাবিতে রাস্তা সংস্কারের কাজে বাধা, ইট তুলে বিক্ষোভ মহিলাদের

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: April 5, 2019 9:52 am|    Updated: April 5, 2019 9:52 am

Road construction stopped over local's agitation in Bagda

নিজস্ব সংবাদদাতা, বনগাঁ: ভোট আসলেই রাস্তা সংস্কার করার জন্য ফেলা হয় ইট। দীর্ঘদিনের দাবি থাকা সত্ত্বেও পিচের রাস্তা তৈরি হয় না গ্রামে৷ তাই পিচের রাস্তা তৈরির দাবিতে রাস্তা সংস্কারের কাজ বন্ধ করে, রাস্তার ইট তুলে ঠিকাদারকে ঘিরে ধরে বিক্ষোভ দেখালেন বাসিন্দারা। বৃহস্পতিবার বাগদা থানার হেলেঞ্চা গ্রাম পঞ্চায়েতের হুদা গ্রামে এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

সূত্রের খবর, হেলেঞ্চা গ্রাম পঞ্চায়েতের হুদা গ্রামের হাদিখালি থেকে আইসঘাটা পর্যন্ত প্রায় এক কিলোমিটার রাস্তা রয়েছে। বছর ত্রিশ অগে রাস্তাটি তৈরি হয়েছে। এই রাস্তা দিয়েই গ্রামের মানুষের হেলেঞ্চা দত্তপুলিয়া সড়কে এসে স্কুল, কলেজ, হাসপাতালে যাতায়াত করে৷ অভিযোগ, তৈরি হওয়ার পর থেকেই এই রাস্তার সেই অর্থে কোনও সংস্কার হয়নি। রাস্তার কোনও অংশ ভেঙে গেলে সেখানে ইট দিয়ে মেরামতির কাজ করা হয়। বছরের পর বছর ধরে পাকা রাস্তার দাবি রয়েছে গ্রামে। পঞ্চায়েত ভোটের আগে প্রত্যেক দলের পক্ষ থেকে পাকা রাস্তা করবার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হলেও বাস্তবে তা পূরণ হয়নি বলে জানান স্থানীয় মহিলারা।

 

বৃহস্পতিবার দুপুরে হেলেঞ্চা গ্রাম পঞ্চায়েতের পক্ষ থেকে সেই রাস্তা ঝামা, ইট দিয়ে মেরামতি করে সংস্কার করতে গেলে কাজ বন্ধ করে দেন স্থানীয় মহিলারা। বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন কাজ করতে আসা শ্রমিকদের ঘিরে৷ স্থানীয় মহিলারা শ্রমিকদের তাড়িয়ে দেন এবং ইট তুলে ফেলেন। স্থানীয় বৃদ্ধা মায়া বিশ্বাস বলেন, ‘রাস্তা দিয়ে গাড়ি ঢুকতে পারে না, ছেলে মেয়েদের স্কুল-কলেজে যেতে অসুবিধা হয়। ফলে আমরা পাকা রাস্তা চাই।” স্থানীয় গৃহবধূ ববিতা বিশ্বাস বলেন, “অনেক প্রতিশ্রুতি শুনেছি, গ্রামে রাস্তা সংস্কার চাই না, পিচের রাস্তা করে দিতে হবে।” প্রয়োজনে ভোট বয়কট করবেন বলে জানান তাঁরা।

হেলেঞ্চা গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান চায়না বিশ্বাস বলেন, “বিজেপির লোকজন এই রাস্তা সংস্কারের কাজে বাধা দিয়েছ। খারাপ রাস্তার কথা ভেবে সংস্কারের কাজে হাত দিয়েছিলাম।” পাকা রাস্তা তৈরি করার পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানান তিনি। বাগদার বিজেপি নেতা অমৃত লাল বিশ্বাস বলেন, প্রতিশ্রুতি দিয়ে কাজ না করায় গ্রামের সাধারণ মানুষের দীর্ঘদিনের জমে থাকা ক্ষোভের বহিপ্রকাশ। এরমধ্যে বিজেপি কোথা থেকে এল বলে প্রশ্ন করেন তিনি।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে