২৩  শ্রাবণ  ১৪২৯  বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

পিতৃপক্ষেই পুজো উদ্বোধন, হাতিবাগান সর্বজনীনে গিয়ে চণ্ডীপাঠে ‘না’ মমতার

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: September 27, 2019 5:33 pm|    Updated: September 27, 2019 5:33 pm

Mamata Banerjee inaugurates Hatibagan Sarbojonin Durga Puja

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আগের বছর শুরু হয়েছিল মহালয়ার দিন থেকে। এবার মহালয়ার একদিন আগে থেকেই পুজো উদ্বোধন শুরু করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবারে মুখ্যমন্ত্রীর পুজো উদ্বোধনের পালা শুরু হল হাতিবাগান সর্বজনীন দিয়ে। এদিন মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যবাসীকে শারদীয়ার শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি পুজোর কটা দিন সচেতন থাকার পরামর্শ দেন।

[আরও পড়ুন: কেরলের মুরুগান মন্দিরের আদলে এবার মণ্ডপ মহম্মদ আলি পার্কের পুজোয়]

মহালায়র একদিন আগে অর্থাৎ পিতৃপক্ষেই পুজো উদ্বোধনের এই সিদ্ধান্ত নিয়ে অনেকে প্রশ্ন তোলেন। এদিন, সেসব প্রশ্নের উত্তর দিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। মমতা জানান, মহালয়ার দিন থেকে প্রচুর কর্মসূচি রয়েছে তাঁর। তাই, আগেভাগেই উদ্বোধন পর্ব শুরু করলেন তিনি। মমতা বলেন, “কাল থেকে আমার প্রচুর প্রোগ্রাম। আর হয়তো আসতে পারব না। তাই আজ থেকেই শুরু করে দিলাম।” এদিন, স্বভাববিরুদ্ধভাবে মমতার গলায় শোনা গেল আক্ষেপের সুর। নিজের কর্মব্যস্ততার কথা তুলে ধরে মুখ্যমন্ত্রী বললেন, “আমাদের জীবনে ছুটি বলে কিছু নেই। জীবনে এক ঘণ্টাও ছুটি পায়নি কোনওদিন। ছুটির দিনও আপনাদের ঘণ্টার পর ঘণ্টা খবর নিতে হয় আপনাদের।  তবে আমি মনে করি, আমাদের ছুটি নেওয়ার কোনও জায়গাও নেই। একদিন হয়তো ছুটি পাব, সেদিন হয়তো আমি থাকব না।”

[আরও পড়ুন: ‘দুর্গা কে?’ দেবীপক্ষের সূচনালগ্নে দাঁড়িয়ে তাৎপর্যপূর্ণ প্রশ্ন স্বস্তিকার]

পিতৃপক্ষে পুজো উদ্বোধন নিয়ে বিতর্ক এড়াতে এদিন আরও একটি স্বভাববিরুদ্ধ কাজ করেছেন মমতা। সাধারণত, পুজো উদ্বোধনে গেলে চণ্ডীপাট করেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু, এদিন তিনি নিজের মুখেই বললেন,”আজ আমি চণ্ডী মন্ত্র পড়ব না। কারণ, আমিও ধর্ম মানি। আমাদের মতো করে মানি। আমাদের ধর্ম লোকদেখানো নয়। পিতৃপক্ষে পুজো মণ্ডপের সামনে দাঁড়িয়ে আমি চণ্ডীপাঠ করব না। ওটা আমাদের কাল থেকে শুরু হবে।” এসব বলার পর অবশ্য, দেবী দুর্গাকে প্রণাম করার জন্য মন্ত্রপাঠ করেন মুখ্যমন্ত্রী।  মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন পুজো মণ্ডপে গিয়ে রাজনীতির প্রসঙ্গ পুরোপুরি এড়িয়ে গিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে এদিন মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, বিধায়ক শশী পাঁজা, রাজ্যের ক্রেতা সুরক্ষা মন্ত্রী সাধণ পাণ্ডে, কলকাতা পুরসভার ডেপুটি মেয়র অতীন ঘোষ এবং হাতিবাগান সর্বজনীনের অন্যতম উদ্যোক্তা শাশ্বত বসু।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে