২১  আষাঢ়  ১৪২৯  বুধবার ৬ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

OMG! প্লাস্টিক বর্জ্য দিলেই ব্যাংক থেকে মিলবে মাস্ক, স্যানিটাইজার

Published by: Sayani Sen |    Posted: August 12, 2020 4:28 pm|    Updated: August 12, 2020 4:28 pm

A club started an initiative of giving out masks and sanitisers

সৌরভ মাজি, বর্ধমান: টাকা আদানপ্রদান যে ব্যাংকের মাধ্যমেই হয়, তা সকলের জানা। কিন্তু ফেলে দেওয়া প্লাস্টিকের সামগ্রী কিংবা গাছের চারার বিনিময় ব্যাংক থেকে মাস্ক এবং স্যানিটাইজার পাওয়ার কথা শুনেছেন কখনও? শোনেননি তাই তো? করোনা (Coronavirus) পরিস্থিতিতে এমনই অভিনব ব্যাংক তৈরি করলেন পূর্ব বর্ধমানের মেমারির পাল্লারোড পল্লিমঙ্গল সমিতির সদস্যরা।

এক বাক্স মাস্ক এবং এক লিটার স্যানিটাইজার পেতে ঠিক কী করতে হবে আপনাকে? ওই অভিনব ব্যাংকে আসার সময় আপনাকে সঙ্গে করে ৫ কেজি প্লাস্টিক বর্জ্য আনতে হবে। তা জমা দিলেই মিলবে স্যানিটাইজার ও মাস্ক। বর্জ্য প্লাস্টিক না থাকলেও চিন্তা নেই। সঙ্গে করে পাঁচটি গাছের চারা নিয়ে গিয়ে জমা দিলেই হাতে হাতে মিলবে এক লিটার স্যানিটাইজার ও এক বাক্স মাস্ক।

[আরও পড়ুন: দাঁতালের লাগাতার হানায় মালবাজারে ক্ষতিগ্রস্ত সরকারি রেশন দোকান]

বেশ কয়েকদিন ধরে এই কাজ চলছে। প্রথম দিন থেকেই মিলছে সাড়া। কিন্তু কেন এমন উদ্যোগ নিল ক্লাব কর্তৃপক্ষ? সংস্থার সাধারণ সম্পাদক সন্দীপন সরকার বলেন, “করোনা পরিস্থিতিতে মাস্ক ও স্যানিটাইজার ব্যবহার অপরিহার্য। তা সত্ত্বেও অনেকেই এই পরিস্থিতিতে মাস্ক ও স্যানিটাইজারের গুরুত্ব বুঝতে পারছেন। আবার কারও সামর্থ্য হচ্ছে না এত টাকা খরচ করে মাস্ক ও স্যানিটাইজার কেনার। তাঁদের কথা ভেবেই এই ব্যাংক তৈরি করা হয়েছে।” এছাড়াও তিনি বলেন, “আমরা পরিবেশকে সুরক্ষিত রাখার চেষ্টায় প্লাস্টিক বর্জ্য সংগ্রহ করছি।”

এই ব্যাংকের মাধ্যমে প্রতিদিন ১০০ জনের হাতে স্যানিটাইজার ও মাস্ক তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। একজন ব্যক্তি মাসে একবারই এই সুবিধা নিতে পারবেন। প্লাস্টিক বর্জ্য থেকে ইট তৈরি করে থাকে এই সংস্থা। প্লাস্টিক বর্জ্য সেই কাজে লাগানো হবে। আর গাছ এলাকার বিভিন্ন রাস্তার ধারে রোপণ করবেন তাঁরা। ক্লাব কর্তৃপক্ষের উদ্যোগের প্রশংসা করছেন অনেকেই।

[আরও পড়ুন: তিন শাবকের জন্ম দিল বাঘিনী শীলা, খুশিতে ভাসছে বেঙ্গল সাফারি পার্ক]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে