BREAKING NEWS

২৩ শ্রাবণ  ১৪২৭  শনিবার ৮ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

৩০০ কিমি পথ ‘লং মার্চ’!‌ মহারাষ্ট্রের এই বাঘের আস্তানা এখন কর্ণাটকের ঘন জঙ্গল

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: August 2, 2020 2:39 pm|    Updated: August 2, 2020 7:05 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ করোনা সংক্রমণ রুখতে দেশজুড়ে জারি হওয়া লকডাউনে মানুষের এক রাজ্য থেকে অন্য রাজ্যে যাওয়ার ব্যাপারে বিধিনিষেধ ছিল। কিন্তু সেই নিয়ম লাগু হয়নি কর্ণাটকের (‌Karnataka)‌ এই পুরুষ বাঘের ক্ষেত্রে। যে কিনা ১০ বা ২০ নয়, একেবারে ৩০০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়েছে। মহারাষ্ট্রের (Maharashtra) সহ্যাদ্রি ব্যাঘ্র প্রকল্পের (Sahyadri Tiger Reserve) চান্দোলি ন্যাশনাল পার্ক থেকে হাজির হয়েছে কর্ণাটকের কালি ব্যাঘ্র প্রকল্পে (Kali Tiger Reserve)। যা কি না এখন বাঘটির ‘‌নতুন বাড়ি’। সেখানেই আপাতত থাকছে সে। 

[আরও পড়ুন়়: ছুরি দিয়ে কোপ, মৃত্যু নিশ্চিত করতে বোমাবাজি, বাঁকুড়ায় তৃণমূল নেতা খুনে চাঞ্চল্য]

আসলে, টি–৩১ নামে বাঘটিকে (Tiger) ২০১৮ সালে সহ্যাদ্রি বাঘবনে দেখা গিয়েছিল। তারপর চলতি বছরের মে মাসে হঠাৎই সেটির দেখা মেলে কর্ণাটকের কালি বাঘবনে। এরপর এপ্রিল থেকে মে মাসের মধ্যে তোলা ওই পুরুষ বাঘটির একাধিক ছবিও বনদপ্তরের হাতে এসেছে। তারপরই তাঁরা নিশ্চিত হন, এটিই টি–৩১। আধিকারিকদের কথায়, উত্তর কন্নড় জেলায় অবস্থিত কালি বাঘবন থেকে মহারাষ্ট্রের সহ্যাদ্রির দূরত্ব ২৫০ কিলোমিটার। কিন্তু একটি বাঘের পক্ষে সোজাপথে আসা কখনওই সম্ভব নয়। তাই বাঘটি কমপক্ষে ৩০০ কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে তবেই এই অঞ্চলে এসেছে। তাঁরা আরও জানিয়েছেন, থাকার পরিবেশ পছন্দ না হওয়ার কারণেই হয়তো বাঘটির এই বাসস্থান বদল।

[আরও পড়ুন়়: চলন্ত ট্রেন থেকে নদীতে পড়লেন গার্ড, চরে মুখ গুঁজে পড়ে কয়েক ঘণ্টা, উদ্ধারে এল না কেউ]

তবে মহারাষ্ট্র–গোয়া–কর্ণাটক জুড়ে বিস্তৃত এই কালি বাঘবন যে বাঘেদের কাছে অত্যন্ত পছন্দের হয়ে উঠছে, তা মেনে নিয়েছেন বনদপ্তরের আধিকারিকরা। জানা গিয়েছে, ২০২০ সালে বনদপ্তরের ক্যামেরায় ২৫টি পৃথক বাঘের ছবি ধরা পড়েছে। তবে গোটা এলাকায় এখনও বেশ কিছু কাজ সম্পন্ন হওয়া বাকি। আর সেজন্য সরকারের তরফ থেকে আর্থিক সহায়তার দিকেই তাকিয়ে বনদপ্তর।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement