২১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  রবিবার ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারতের প্রথম গোলাপি বলের টেস্ট ম্যাচ। এই ব্যানারেই ঢেকেছিল শহর কলকাতা। বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের হাত ধরে ঐতিহাসিক দিনের সাক্ষী হলেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। সেই পিংক টেস্ট ঘিরে শহরজুড়ে ছিল উৎসবের মেজাজ। যার ইতি ঘটল মাত্র আড়াই দিনে। তবে এই ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে সিরিজের এই দ্বিতীয় ম্যাচে তৈরি হল বেশ কিছু নতুন রেকর্ড। কয়েনের দুটো পিঠের মতোই সাফল্য ও ব্যর্থতার নানা কাহিনি রচিত হল ইডেন গার্ডেন্সে। চলুন একবার দেখে নেওয়া যাক ঐতিহাসিক এই দিন-রাতের টেস্টে কী কী নতুন রেকর্ডের সাক্ষী হলেন দর্শকরা।

১. ঘরের মাটিতে এই নিয়ে টানা ১২টি সিরিজ জিতল টিম ইন্ডিয়া। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ শুরুর পর টানা সাতটি টেস্ট জিতে ৩৬০ পয়েন্ট ঘরে তুলল ভারত।
২. টানা সাত টেস্টে ভারতকে জিতিয়ে অধিনায়ক হিসেবে নয়া রেকর্ড গড়লেন কোহলি। এর আগে ২০১৩ সালে মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বে টানা ছ’টি টেস্ট জিতেছিল টিম ইন্ডিয়া। চারটি অস্ট্রেলিয়া এবং দুটি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে।
৩. বিরাট কোহলির নেতৃত্বে বিশ্বের প্রথম দল হিসেবে পরপর চার টেস্টে প্রতিপক্ষকে ইনিংসে হারানোর রেকর্ড গড়ল টিম ইন্ডিয়া।
৪. এই টেস্ট জিতে প্রাক্তন অজি অধিনায়ক অ্যালান বর্ডারকে টপকে গেলেন কোহলি। ক্যাপ্টেন হিসেবে পাঁচদিনের ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি জয়ের তালিকায় পাঁচ নম্বরে উঠে এলেন তিনি। ১০৯ ম্যাচে ৫৩বার সাফল্য পেয়ে তালিকার শীর্ষে গ্রেম স্মিথ। দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ স্থানে রয়েছেন রিকি পন্টিং, স্টিভ ওয়া এবং ক্লাইভ লয়েড। বর্ডারের জয়ের সংখ্যা ৩২। সেখানে কোহলি পেলেন ৩৩তম জয়।
৫. প্রথম ভারত অধিনায়ক হিসেবে পাঁচ হাজার রানের মালিক হয়ে যান কোহলি। বিশ্বের ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে এই কৃতিত্বের অধিকারী হন তিনি। যে তালিকার শীর্ষে দক্ষিণ আফ্রিকার গ্রেম স্মিথ।

[আরও পড়ুন: গোলাপি টেস্টে ইতিহাস ভারতের, বিরাটদের সামনে অসহায় আত্মসমর্পণ বাংলাদেশের]


৬. ভারতের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে দিন-রাতের পিংক টেস্টে প্রথম সেঞ্চুরিয়ানও ক্যাপ্টেন কোহলি।
৭. টেস্টে ২৭টি শতরান হয়ে গেল কোহলির। যার মধ্যে অধিনায়ক হিসেবে ২০টি। ক্যাপ্টেন হিসেবে ১৯টি সেঞ্চুরির মালিক প্রাক্তন অজি অধিনায়ক রিকি পন্টিংকে টপকে যান তিনি।
৮. উইকেটের পিছনে দাঁড়িয়ে ১০০বার ব্যাটসম্যানকে প্যাভিলিয়নে ফিরিয়ে নজির গড়লেন ঋদ্ধিমান সাহা। এমএস ধোনি, সৈয়দ কিরমানি, নয়ন মোঙ্গিয়ার সঙ্গে এক তালিয়ায় নাম লেখালেন তিনি।
৯. দুই ইনিংস মিলিয়ে মোট ন’টি উইকেট তুলে নিয়ে ভারতের প্রথম পিংক বল টেস্টে ম্যাচের সেরার পুরস্কার পেলেন ইশান্ত শর্মা।
১০. প্রথম পিংক টেস্টে ১১ নয়, বাংলাদেশের ১৩ জন ক্রিকেটার ব্যাট করলেন।
১১. ওভারের নিরিখে এটিই ভারতে খেলা সর্বকালের সবচেয়ে ছোট টেস্ট। ৯৬৮ বল খেলেছে বাংলাদেশ।
১২. দেশের মাটিতে একটি টেস্টে সবচেয়ে বেশি ১৯টি উইকেট নেওয়ার নজির গড়লেন ইশান্ত-উমেশ-শামিরা। সেই সঙ্গে এক টেস্টে আট ও তার বেশি উইকেট নেওয়ার নজির গড়লেন দুই পেসার- ইশান্ত ও উমেশ।

[আরও পড়ুন: মোমিনুলের আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত মানতে পারছেন না শাকিব]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং