BREAKING NEWS

১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৬ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

কালীপুজো উদ্বোধনের জের, দা উঁচিয়ে খুনের হুমকি শাকিবকে, ক্ষমা চাইলেন অলরাউন্ডার

Published by: Sulaya Singha |    Posted: November 16, 2020 9:40 pm|    Updated: November 16, 2020 9:42 pm

An Images

স্টাফ রিপোর্টার: পদ্মাপার থেকে কলকাতায় কালীপুজো উদ্বোধন করতে আসার পরিণাম যে এতটা ভয়াবহ হবে, কে জানত! কে জানত, সরাসরি একেবারে খুনের হুমকি দিয়ে দেওয়া হবে বাংলাদেশি অলরাউন্ডার শাকিব-আল-হাসানকে! রীতিমতো ফেসবুক লাইভ করে, দা উঁচিয়ে! আর তার প্রভাব এতটাই হবে যে, স্বয়ং শাকিবকে প্রকাশ্যে এসে ক্ষমা চাইতে হবে!

শাকিবের ‘অপরাধ’ তিনি কালীপুজো (Kali Puja) উদ্বোধন করেছেন! গত শুক্রবার কাঁকুড়গাছির পরেশ পালের পুজোর উদ্বোধন করতে শহরে এসেছিলেন। ঢাকা থেকে মাত্র একদিনের জন্য কলকাতা সফরে আসেন শাকিব (Shakib-Al-Hasan)। কালীপুজো উদ্বোধন করে পরদিন অর্থাৎ শনিবার ভোরেই দেশে ফিরে যান ওয়ানডে ক্রিকেটের এক নম্বর অলরাউন্ডার। ঝামেলা শুরু হয় রবিবার রাত থেকে। গতকাল রাত বারোটা নাগাদ এক ফেসবুক লাইভে মহসিন তালুকদার নামের এক যুবক হত্যার হুমকি দেন শাকিবকে। সঙ্গে কদর্য ভাষায় আক্রমণ চলে। রীতিমতো দা উঁচিয়ে শাকিবকে টুকরো-টুকরো করে ফেলার হুমকি দেওয়া হয়! শুধু তাই নয়, সিলেটের বাসিন্দা মহসিন এও বলে রাখেন যে, শাকিবকে হত্যা করতে প্রয়োজনে তিনি হেঁটে ঢাকা যাবেন। নাটকের এখানেই শেষ নয়। এরপর সোমবার ভোর ছ’টা নাগাদ আবার ফেসবুক লাইভ করেন ওই যুবক। প্রথমে রাতের উত্তেজিত ভিডিওর জন্য ক্ষমা চান। তারপর সরাসরি বলেন, শাকিবকে তিনি একটা সুযোগ দিতে চান। বাংলাদেশ অলরাউন্ডারকে তিনি জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়ার একটা সুযোগ দিচ্ছেন। শাকিবকে গোটা বাংলাদেশের জনতার কাছে কালীপুজো উদ্বোধনের কারণে ক্ষমা চাইতে হবে!

[আরও পড়ুন: ক্লাব লাইসেন্সিংয়ের শর্তপূরণে ব্যর্থ ইস্টবেঙ্গল-সহ আইএসএলের ৫টি দল, কী পদক্ষেপ লাল-হলুদের?]

পুরো ঘটনার পর ভালরকম তোলপাড় শুরু হয় পদ্মাপারে। শাকিবের মতো আন্তর্জাতিক মহাতারকাকে এহেন ধর্মান্ধতার শিকার হতে হবে, অনেকেই ভাবতে পারছেন না। খোঁজ নিয়ে জানা গেল, সিলেট পুলিশ, সিলেট প্রশাসন– দু’তরফকেই যোগাযোগ করা হয়েছে পুরো বিষয়টা জানিয়ে। পুরো ঘটনার নিন্দা করে তারা যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাসও দিয়েছে। জানা গেল, সাইবার ক্রাইম বিভাগে বিষয়টাকে গভীর গুরুত্ব সহকারে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু ব্যাপারটা বাড়াবাড়ি দিকে যাচ্ছে দেখে, শাকিব নিজেই পরিস্থিতি শান্ত করতে ময়দানে নেমে পড়েন এদিন সন্ধেয়। নিজের ইউটিউব চ্যানেলে বার্তা দিয়ে বলে দেন যে, তিনি যদি জনতার ভাবাবেগকে আঘাত দিয়ে থাকেন, তাহলে তার জন্য তিনি দুঃখিত।

“আমি নিজেকে গর্বিত মুসলমান মনে করি। ভুলত্রুটি হবেই। তা নিয়েই চলতে হবে। আমি কোনও ভুল করে থাকলে ক্ষমাপ্রার্থী। আপনাদের মনে কষ্ট দিয়ে থাকলে ক্ষমা চাইছি,” ভিডিও বার্তায় বলে দেন শাকিব। শুধু তাই নয়। বাংলাদেশ অলরাউন্ডার এও বলেন যে, পরেশ পালের কালীপুজোয় তিনি উপস্থিত থাকলেও পুজো উদ্বোধন করেননি।

“এখানকার মিডিয়ায় বলা হয়েছে, আমি নাকি পুজো উদ্বোধন করতে গিয়েছি। কিন্তু সেটা করিনি। তার প্রমাণও আছে। ওখানকার আমন্ত্রণপত্র দেখুন। সব পরিষ্কার হয়ে যাবে। উদ্বোধন হয়েছে আমি যাওয়ার আগে। যেখানে অনুষ্ঠানটা হয়, সেটা অবশ্যই পূজামণ্ডপ ছিল না। পাশে আর একটা স্টেজ করা ছিল। সেখানে ছিলাম আমি। আর সেখানে ধর্ম-বর্ণ নিয়ে কোনও কথা হয়নি। বেরিয়ে যাওয়ার সময় অনেক রাস্তা বন্ধ ছিল। পূজামণ্ডপ পাশেই ছিল একেবারে। খুব স্বাভাবিকভাবে সেই মণ্ডপ টপকে আমাকে যেতে হত। সেটাই করেছি আমি। মণ্ডপের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় পরেশদা (পাল) আমাকে অনুরোধ করেন প্রদীপ প্রজ্জ্বলনের জন্য। আমি তা করি। ওখানে একটা ছবিও তোলা হয়। আমি মাত্র দু’মিনিট পূজামণ্ডপে ছিলাম। সেটা নিয়েই লোকে বলছেন। আবারও বলছি, পুজোর উদ্বোধন আমি কখনওই করিনি। একজন সচেতন মুসলমান হিসেবে আমি সেটা করবও না। তারপরেও হয়তো আমার ওখানে যাওয়াটাই ঠিক হয়নি। আপনাদের সেটা মনে হলে, আমি ক্ষমাপ্রার্থী। ভবিষ্যতে এরকম ঘটনা যাতে আর না ঘটে, সেদিকে খেয়াল রাখব আমি। আশা করি, আপনারা পুরো বিষয়টাকে ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। আমার কোনও অভিপ্রায় ছিল না নিজের ধর্মকে ছোট করে অন্য ধর্মকে বড় করার। আমি সেটা কখনও করবও না।”

[আরও পড়ুন: ‘জন্মদিনে বাজি পুড়িয়ে দিওয়ালিতে জ্ঞান দিচ্ছেন?’ তীব্র বিতর্কে কোহলি, আসরে নামল RCB]

আসলে শুধু ফেসবুক লাইভে হত্যার হুমকি পাওয়া নয়, এদিন সন্ধেয় মীরপুরে শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে প্র্যাকটিস করার সময়ও সমর্থকদের বিদ্রূপের মুখে পড়তে হয় শাকিবকে। সেই কারণেই কি তড়িঘড়ি ক্ষমা চাইলেন বাংলাদেশি অলরাউন্ডার? পরিস্থিতি ক্রমশ হাতের বাইরে যাচ্ছে দেখে? কে জানে!

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement