BREAKING NEWS

১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  শনিবার ২৮ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘বাংলাদেশই একমাত্র জায়গা, যেখানে কখনও কোনও সমর্থন পাইনি’, বিস্ফোরক রোহিত শর্মা!

Published by: Sulaya Singha |    Posted: May 16, 2020 10:31 pm|    Updated: May 16, 2020 10:31 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে টিম ইন্ডিয়ার ফ্যান। ইংল্যান্ড হোক বা দক্ষিণ আফ্রিকা- ভারত যে বাইশ গজেই নামে, গ্যালারিতে সমর্থক জুটেই যায়। কিন্তু বাংলাদেশই একমাত্র জায়গা যেখানকার পরিবেশটা একেবারে আলাদা। সেখানে কেউ ভারতীয় দলের জন্য গলা ফাটায় না। বক্তা রোহিত শর্মা

করোনা মোকাবিলায় গৃহবন্দি হয়েই ঐক্যবদ্ধভাবে লড়ছে ভারত। লকডাউনের জেরে বন্ধ সমস্ত স্পোর্টস ইভেন্ট। কবে মাঠে বল গড়াবে, তা এখনও অনিশ্চিত। শনিবার থেকে বুন্দেশলিগা শুরু হলেও এ দেশের পরিস্থিতি এখনও একইরকম। পছন্দের তারকাদের হাঁড়ির খবর জানার তাই একমাত্র স্থান সোশ্যাল মিডিয়া। ভক্তদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে, করোনা আবহে মাঠ ও মাঠের বাইরের বিভিন্ন আলোচনায় নেটদুনিয়াকেই হাতিয়ার করেছেন খেলার দুনিয়ার তারকারা। তেমনই এক লাইভ চ্যাটে এমন কিছু বললেন রোহিত, যা আগে সেভাবে কানে আসেনি। জানালেন, বাংলাদেশ থেকে কখনও কোনও সমর্থন পাননি তিনি বা ভারতীয় দল।

[আরও পড়ুন: ‘তোমার জন্য গর্বিত’, প্রযোজক অনুষ্কার ‘পাতাল লোক’ দেখে উচ্ছ্বসিত কোহলি]

বাংলাদেশি অধিনায়ক তামিম ইকবালের সঙ্গে ফেসবুক লাইভে কথোপকথনের সময়ই এ কথা বলেন ভারতীয় দলের হিটম্যান। তাঁর কথায়, “ভারত সমর্থন পায় না, এমন কোনও মাঠই নেই। কিন্তু বাংলাদেশ গেলে বিষয়টা অন্যরকম হয়ে যায়।” কিন্তু হঠাৎ এমন কথা কেন বললেন রোহিত? সে ব্যাখ্যাও দিয়েছেন। ভারতীয় ওপেনার বলেন, “ভারত আর বাংলাদেশ- দুই দেশের ক্রিকেটপ্রেমীদেরই এই খেলার প্রতি দারুণ প্যাশন, ভালবাসা। কোনও ভুল করলেই তাই সমালোচনার মুখে পড়তে হয় আমাদের। শুধু সংবাদমাধ্যমই নয়, দর্শকদের কটাক্ষও শুনতে হয়। আমি নিশ্চিত, বাংলাদেশের ছবিটাও একইরকম। কারণ আমি অনেকবার সেখানে গিয়েছি। মানুষের উৎসাহ অনুভব করেছি। বিশেষ করে আমরা যখন মাঠে নামি, পরিবেশটা অবিশ্বাস্য হয়ে যায়। যেখানেই যাই, সমর্থক পাই। কিন্তু বাংলাদেশই একমাত্র জায়গা যেখানে আমরা সমর্থন পাই না।”

খানিকটা অতীতে ফিরলেই বোঝা যায়, রোহিতের মন্তব্য নেহাত অমূলক নয়। ২০০৭ বিশ্বকাপে ভারতের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স অবাক করেছিল ক্রিকেট মহলকে। তারপর ২০১৫ বিশ্বকাপ, ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, ২০১৭ এশিয়া কাপেও হাইভোল্ডেজ ম্যাচ হয়েছিল দুই দলের মধ্যে। গত বিশ্বকাপে (২০১৯) ভারতের কাছে ২৮ রানে পরাস্ত হয় বাংলাদেশ।

[আরও পড়ুন: ‘আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করেছে আফ্রিদি’, এবার সরাসরি তোপ কানেরিয়ার]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement