BREAKING NEWS

৩১ আশ্বিন  ১৪২৮  সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

পাওনা মেটায়নি সংস্থা, বকেয়া ৩৫ কোটি টাকার দাবিতে আদালতে সৌরভ

Published by: Krishanu Mazumder |    Posted: July 12, 2021 10:15 pm|    Updated: July 13, 2021 12:41 am

BCCI president Sourav Ganguly moves Bombay High Court for enforcing arbitral award of over Rs 35 crores | Sangbad Pratidin

ফাইল ছবি

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বকেয়া টাকা আদায়ের জন্য আইনি পথে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় (Sourav Ganguly)। দুই ম্যানেজমেন্ট সংস্থা–পার্সেপ্ট ট্যালেন্ট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড (Percept Talent Management Ltd.) এবং পার্সেপ্ট ডি মার্কের (Percept D Mark) কাছ থেকে ৩৫ কোটি টাকা আদায়ের জন্য বম্বে হাই কোর্টের (Bombay High Court) দ্বারস্থ ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক।

আদালাতের কাছে সৌরভের আইনজীবী জানিয়েছেন, এই দুই ম্যানেজমেন্ট সংস্থা তাদের সম্পত্তির পরিমাণ দ্রুত প্রকাশ করুক। সেই সঙ্গেই যে কোনও ধরনের লেনদেন করা থেকে তাদের বিরত রাখা হোক। দেশের প্রাক্তন অধিনায়কের আইনজীবী আশঙ্কা প্রকাশ করে আদালতকে জানিয়েছেন যে এই দুটি কোম্পানির ডিরেক্টররা নিজেদের কোম্পানির অ্যাকাউন্ট থেকে সম্পত্তি অন্যত্র সরিয়ে দিতে পারে। বিষয়টিকে অত্যন্ত জরুরি হিসেবে দেখানো হয়েছে এবং অবিলম্বে বম্বে হাই কোর্টে বিষয়টির শুনানির জন্যও আবেদন করা হয়েছে। 

[আরও পড়ুন: Euro 2020: প্রি-কোয়ার্টার থেকে বিদায় নিলেও শেষপর্যন্ত সোনার বুটের মালিক রোনাল্ডোই]

সোমবার বিচারপতি একে মেননের সামনে শুনানি চলাকালীন কোম্পানির তরফের অ্যাডভোকেট শার্দুল সিং জানান, ২০ জুলাইয়ের মধ্যে তাদের সম্পত্তির পরিমাণ আদালতের সামনে পেশ করা হবে। প্লেয়ার্স রিপ্রেসেন্টেশন নিয়ে সৌরভ এবং সংস্থাগুলির মধ্যে চুক্তি হয়েছিল আগে। পরে  সৌরভ এবং দুই সংস্থার মধ্যে সমস্যা তৈরি হওয়ার ফলে বাতিল হয়ে যায় চুক্তিটি। সৌরভ তাঁর ন্যায্য পাওনা চান। কিন্তু সেই অর্থ না পাওয়ায় আদালতে যান বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট। 

২০১৮ সালে তিন সদস্যের একটি প্যানেল ওই দুই সংস্থাকে নির্দেশ দিয়েছিল যে  সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে ১৪ কোটি ৪৯ লক্ষ ৯১ হাজার টাকা দিতে হবে। এই অর্থ না দিলে ২০০৭ সালের ২১ নভেম্বর থেকে প্রাপ্য টাকার উপরে ১২ শতাংশ হারে সুদ দিয়ে যে বিপুল অর্থ হবে, তা দিতে হবে সৌরভকে। অর্থ আদায়ের জন্য কলকাতা হাই কোর্টে আবেদন করেছিলেন সৌরভ। কিন্তু সেই সময়ে কোম্পানিগুলির প্রকাশিত সম্পত্তি কলকাতা হাই কোর্টের আওতায় ছিল না। ফলে সেই সময়ে আবেদন প্রত্যাহার করা হয়েছিল। দুই সংস্থার কাছে বকেয়া ৩৫ কোটি টাকা। যার দাবিতেই বম্বে হাইকোর্টে সৌরভ। মামলার পরবর্তী শুনানি ২৬ জুলাই। 

[আরও পড়ুন: Euro 2020: ম্যানচিনির হাত ধরে ইটালির নবজাগরণ, হৃদয় ভাঙল ইংল্যান্ডের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement