BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

লকডাউনে বাড়ছে গার্হস্থ্য হিংসা, অত্যাচারের বিরুদ্ধে সরব হওয়ার আহ্বান কোহলি-মাধুরির

Published by: Sulaya Singha |    Posted: April 20, 2020 6:46 pm|    Updated: April 20, 2020 6:46 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা মোকাবিলায় ২৪ মার্চ থেকে দেশজুড়ে লকডাউনের পর থেকে তরতরিয়ে বেড়েছে নারীর প্রতি গার্হস্থ্য হিংসার প্রকোপ। ন্যাশনাল কমিশন ফর উইমেন (National Commission for Women)-এর তথ্যানুযায়ী, লকডাউনের এক সপ্তাহ গড়াতে না গড়াতেই শুধুমাত্র মেল মারফত গার্হস্থ্য হিংসার অভিযোগ আসে ৫৮টি। চিঠি মারফত তারও বেশি। যত দিন যাচ্ছে, ততই বাড়ছে সংখ্যাটা। তবে এখনও সমাজের বিভিন্ন প্রান্তে এমন অনেক মহিলা আছেন, যাঁরা ভবিষ্যতের ভয়ে, সর্বহারা হওয়ার দুশ্চিন্তায় গার্হস্থ্য হিংসার বিরুদ্ধে সরব হতে পারছেন না। এবার তাঁদের সাহস জোগাতে এগিয়ে এলেন রিবাট কোহলি, শচীন তেণ্ডুলকর, ফারহান আখতার, মাধুরি দিক্ষীতদের মতো খেলা ও বিনোদুনিয়ার তারকারা।

করোনা যুদ্ধে জয়ী হতে বিভিন্ন ভূমিকায় অবতীর্ণ হচ্ছেন সেলেবরা। কখনও আর্থিক সাহায্য করে কেন্দ্রের পাশে দাঁড়াচ্ছেন, তো কখনও সোশ্যাল মিডিয়ায় সচেতনতার প্রচার করছেন তাঁরা। এবার অনুষ্কা শর্মা, মিতালি রাজ, রাহুল বোস, বিদ্যা বালানরা সুর চড়িয়েছেন গার্হস্থ্য হিংসার বিরুদ্ধে। নিজেদের সোশ্যাল অ্যাকাউন্টে ভিডিও পোস্ট করেছেন কোহলি-শচীন-মিতালিরা। যেখানে তাঁরা বার্তা দিচ্ছেন সেই সমস্ত মানুষদের, যাঁরা নিশ্চুপ হয়ে লকডাউনের মধ্যে গার্হস্থ্য হিংসার শিকার হচ্ছেন। রোহিত শর্মাদের অনুরোধ, এর বিরুদ্ধে সরব হোন। তাঁদের কথায়, ‘আপনি নিজে এর শিকার হলে অথবা প্রতিবেশীকে এই অবস্থায় দেখলে রিপোর্ট করুন।’ পুলিশকে নিজের সমস্যার কথা জানান। একটা ফোন করলেই সুরাহা হতে পারে। ১০০ ডায়াল করে এই হিংসার বিরুদ্ধে ঘুরে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন তাঁরা। একাধিক ভাষায় শুট করা হয়েছে সেই ভিডিও।

[আরও পড়ুন: আত্মঘাতী গোল! করোনা আবহেই দর্শক-ঠাসা স্টেডিয়ামে ফুটবল মরশুম শুরু তুর্কমেনিস্তানে]

এনসিডব্লিউ-এর তরফে শুক্রবার জানানো হয়, ২৩ মার্চ থেকে ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত ৫৮৭টি অভিযোগ দায়ের হয়েছে। ২৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ২২ মার্চ পর্যন্ত যে সংখ্যাটা ছিল ৩৯৬। স্বাভাবিকভাবেই লকডাউনে বৃদ্ধির হারটা চোখে পড়ার মতো। লকডাউন মানেই যেন অনুমোদিত রূপে নারীর বন্দিদশা। বিশেষত যাঁদের সঙ্গী স্বভাব-চরিত্রে গার্হস্থ্য অত্যাচারী। বাড়িতে বসে থেকে থেকে বিরক্ত স্বামী বা পুরুষ সঙ্গীরা সমস্ত হতাশা গিয়ে ফেলছে স্ত্রী, সঙ্গিনীদের উপর। এই কারণেই সম্প্রতি মহিলাদের সাহায্যার্থে আলাদা হেল্পলাইন নম্বর চালু হয়েছে বলে জানিয়েছিলেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে। ১০০-র পাশাপাশি 1800120820050 এবং 18001024040 নম্বরে ফোন করেও অভিযোগ জানানো যাবে।

[আরও পড়ুন: স্বাস্থ্যকর্মীদের কুর্নিশ জানাতে পেলে ও মারাদোনার সঙ্গে শামিল বাইচুংও, দেখুন ভিডিও]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement