৭ শ্রাবণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সালটা ২০০৮। অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে বিরাট কোহলির ভারত। প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড। সেই দলের অধিনায়ক আবার কেন উইলিয়ামসন। সে ম্যাচে কিউয়িদের হারিয়ে ফাইনালে পৌঁছে গিয়েছিলেন কোহলিরা। মাঝখানে প্রায় এগারোটা বছর কেটে গিয়েছে। মঙ্গলবার ম্যাঞ্চেস্টারে যেন সেই স্মৃতিই ফের ভেসে উঠবে। এবার সিনিয়র দলের নেতা কোহলি ও উইলিয়ামসন। এবার কে বাজিমাত করবে?

বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডের পরিসংখ্যান বিশেষ সুখকর নয়। ছ’বার টুর্নামেন্টের শেষ চারে পৌঁছেও জিততে পারেনি তারা। এবারও ভারতের বিরুদ্ধে তাদেরই আন্ডারডগ হিসেবে ধরনে ক্রিকেট মহল। কিন্তু ক্রিকেটে কখন কী হয়, শেষ মুহূর্তে কীভাবে খেলা ঘুরে যায়, বলা কঠিন। তবে লড়াই হলে তো হাত-জিতের কথা আসবে। বৃষ্টির কারণে যদি ম্যাচই ভেস্তে যায়, তাহলে?

[আরও পড়ুন: ইতিহাসে অ্যালভেস, এক যুগ পর লাতিন আমেরিকার সেরা ব্রাজিল]

গ্রুপ পর্বেও বৃষ্টির কারণে বল গড়ানোর আগেই বাতিল হয়ে গিয়েছিল ভারত-নিউজিল্যান্ড ম্যাচ। দুই দল এক এক করে পয়েন্ট ভাগ করে নিয়েছিল। তাই চলতি টুর্নামেন্টে এখনও একে অপরের শক্তি পরীক্ষার সুযোগ পায়নি দুই দল। এবার কি পাবে? ব্রিটিশ আবহাওয়া দপ্তর কিন্তু খুব একটা ভাল খবর দিচ্ছে না। তাদের তরফে বলা হয়েছে, মঙ্গলবার ম্যাঞ্চেস্টার আকাশ মেঘলাই থাকবে। মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনাও রয়েছে। স্থানীয় সময় সকাল ১০টা নাগাদ, অর্থাৎ ম্যাচ শুরুর ঠিক আধ ঘণ্টা আগে বৃষ্টি হওয়ার ৫০ শতাংশ সম্ভাবনা রয়েছে। সেক্ষেত্রে দেরি করে শুরু হতে পারে খেলা। বেলা একটার পর আকাশ পরিষ্কার হতে পারে। তাহলে পুরো ম্যাচ হওয়ার সম্ভাবনা থাকছে। তবে একটা বিষয় ভাল যে সেমিফাইনাল ও ফাইনালের জন্য একটি করে রিজার্ভ দিন রয়েছে। অর্থাৎ মঙ্গলবার ম্যাচ বাতিল হলে বুধবার ফের খেলা হবে। আবার ১১ জুলাই দ্বিতীয় সেমিফাইনাল বাতিল হলে হবে ১২ তারিখ। ফাইনালের রিজার্ভ ডে ১৫ জুলাই। এবার প্রশ্ন হল, ৯ ও ১০ জুলাই সেমিফাইনালের দুদিনই যদি বৃষ্টি হয়, সেক্ষেত্রে কী হবে? এমন পরিস্থিতিতে কিন্তু বিনাযুদ্ধে ফাইনালে পৌঁছে যাবে টিম ইন্ডিয়াই। কারণ গ্রুপ পর্বে তালিকায় নিউজিল্যান্ডের উপরে শেষ করেছে ভারত। সেই সুবাদেই ফাইনালে যাওয়ার টিকিট পাবেন বিরাট কোহলিরা।

তবে মঙ্গলবার খেলা যদি শুরু হয়, তাহলে নিঃসন্দেহে ক্রিকেটপ্রেমীদের নজর থাকবে রোহিত শর্মার দিকে। টুর্নামেন্টে ইতিমধ্যেই একগুচ্ছ রেকর্ড গড়েছেন তিনি। আরও কিছু রেকর্ডের হাতছানি তাঁর সামনে। আট ইনিংসে তাঁর সংগ্রহ ৬৪৭ রান। আর ২৭ রান করলেই শচীন তেণ্ডুলকরকে পিছনে ফেলে এক বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ রানের মালিক হয়ে যাবেন হিটম্যান। ২০০৩ বিশ্বকাপে মাস্টার ব্লাস্টার করেছিলেন মোট ৬৭৩ রান। শুধু তাই নয়, বিশ্বকাপে আর একটা সেঞ্চুরি হাঁকালেই ওয়ানডে-তে পরপর ৪ ইনিংসে চারটি শতরানের রেকর্ডও গড়ে ফেলবেন রোহিত। বর্তমানে যার একমাত্র মালিক কুমার সঙ্গকারা। এছাড়া আর ২৩ রান করলেই বিশ্বকাপে এক হাজার রান পকেটে পুরবেন ভারতীয় ওপেনার। সবমিলিয়ে রোহিতের আরও একটা দুর্দান্ত ইনিংসের অপেক্ষায় ভারতীয় সমর্থকরা। তবে বরুণদেবের চোখ রাঙানিই চিন্তায় রাখছে কোহলিদের।

[আরও পড়ুন: বিশ্বকাপের গ্যালারিতেই নতুন প্রেমিকা পেয়ে গেলেন শশী থারুর! জানেন কে?]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং