BREAKING NEWS

০৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ২৫ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘ডাবর’-এর বিজ্ঞাপনে বাঙালিকে অপমান! জোর বিতর্ক নেটদুনিয়ায়

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: July 3, 2019 9:37 am|    Updated: July 3, 2019 9:40 am

Dabur red withdraws insulting add after massive uproar

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারত-বাংলাদেশ ক্রিকেট ম্যাচ এখন মহারণে পরিণত হয়েছে। গত কয়েকবছরে ক্রিকেট বিশ্বে বাংলাদেশের শক্তিবৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে দুই দেশের সমর্থকদের মধ্যে তিক্ততাও বেড়েছে। কিন্তু, তাহলে কী হবে, ওপার বাংলার জন্য এপার বাংলা তথা ভারতীয়দের মধ্যে একটা আবেগের জায়গা রয়েছে সেকথা আলাদা করে বলে দেওয়ার প্রয়োজন পড়ে না। স্বাভাবিকভাবেই ডাবরের বিজ্ঞাপনে যখন ওপার বাংলার বাঙালিদের অপমান করা হল, তখন আঘাত পেয়েছে এপার বাংলাও। প্রতিবাদে গর্জে উঠেছে আপামর বাঙালি, উঠেছে ডাবরকে বয়কটের ডাক। ফলে বাধ্য হয়েই বিতর্কিত সেই বিজ্ঞাপন প্রত্যাহার করতে বাধ্য হল ডাবর। তাদের সমস্ত সোশ্যাল মিডিয়া সাইট থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে বিজ্ঞাপনটিতে।

[আরও পড়ুন: ব্যাটে-বলে দুর্দান্ত টিম ইন্ডিয়া, বাংলার বাঘ বধ করে বিশ্বকাপের শেষ চারে কোহলিরা]

ভারত-বাংলাদেশ ম্যাচের ঠিক আগের দিনেই বিতর্কিত বিজ্ঞাপন বানিয়ে শিরোনামে জনপ্রিয় আয়ুর্বেদিক কোম্পানি ‘ডাবর’। বাংলাদেশকে নিশানা বানাতে গিয়ে পরোক্ষে সমগ্র বাঙালিদেরই অপমান করা হয়েছে, এমনটাই মনে করছে কয়েকটি বাঙালি জাতীয়তাবাদী সংগঠন। কিন্তু কী আছে বিজ্ঞাপনটিতে? ২৬ সেকেন্ডের ভিডিওতে দেখা যায়, ভারতের জার্সি গায়ে এক ব্যক্তি বসে আছেন সোফায়। তাঁর সামনে রাখা একটি বাটিতে বেশ কিছু তিলের নাড়ু। ওই বাটি থেকে নাড়ু খাচ্ছিলেন ওই ব্যক্তি। এ সময় অন্য প্রান্ত থেকে কেউ একজন জানতে চান, তিনি কী খাচ্ছেন? জবাবে ওই ব্যক্তি বলেন, তিনি বাংলাদেশ থেকে আনানো তিলের নাড়ু খাচ্ছেন। তিনি যেভাবে নাড়ুগুলিকে চিবিয়ে খাচ্ছেন, সেভাবেই ভারতীয় দল বাংলাদেশকে শেষ করে দেবে। এরপরই বিকৃতি করে রবীন্দ্রনাথের ছড়া বৃষ্টি পড়ে টাপুর-টুপুর গানের মতো করে গাইতে থাকেন ওই ব্যক্তি।

[আরও পড়ুন: ‘শামি মুসলিম, তাই ভাল খেলেছে’, প্রশংসা করতে গিয়েও ধর্ম টানলেন পাক তারকা]

বাঙালি সংগঠনগুলির অভিযোগ, রবীন্দ্রনাথের গান বিকৃত করে এবং তিলের নাড়ুর প্রসঙ্গ টেনে এনে আসলে সমগ্র বাঙালি জাতিকেই অপমান করা হয়েছে ওই বিজ্ঞাপনে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই বিজ্ঞাপনটির বিরুদ্ধে ব্যাপক ক্ষোভপ্রকাশ করেন নেটিজেনরা। বিজ্ঞাপনটি প্রত্যাহার না করা হলে আন্দোলনে নামার হুঁশিয়ারি দেয় একটি বাংলা জাতীয়তাবাদী সংগঠন। এরপরই প্রত্যাহার করা হয় বিজ্ঞাপনটি।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে