১৬ চৈত্র  ১৪২৬  সোমবার ৩০ মার্চ ২০২০ 

Advertisement

লাগাতার ব্যর্থতার জের! দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়কত্ব ছাড়লেন ডু প্লেসি

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: February 17, 2020 3:05 pm|    Updated: February 17, 2020 3:05 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সময়টা একেবারেই ভাল যাচ্ছিল না ডু প্লেসির (Faf du Plessis)। অধিনায়ক হিসেবে তো বটেই, ব্যাট হাতেও লাগাতার ব্যর্থ হচ্ছিলেন তিনি। শেষমেষ চাপের মুখে পড়ে দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়কত্ব ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিলেন ফ্যাফ। তিন ফরম্যাটেই দলের নেতৃত্ব থেকে অব্যাহতি চেয়েছেন তিনি। তবে, অধিনায়কত্ব ছাড়লেও ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলা চালিয়ে যাবেন প্রোটিয়া তারকা।

বিশ্বকাপে দলের জঘন্য পারফরম্যান্সের পর থেকেই চাপ বাড়ছিল ডু প্লেসির উপরে। ভারতের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে জঘন্য হার। তারপর আবার ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে বিশ্রীভাবে সিরিজ হার। লাগাতার খারাপ পারফরম্যান্স ফ্যাফের উপর পাহাড়-প্রমাণ চাপ তৈরি করছিল। তাছাড়া ব্যাট হাতেও চেনা ছন্দ খুঁজে পাচ্ছিলেন না তিনি। নিজের শেষ ১৪টি টেস্ট ইনিংসে তাঁর গড় কুড়ির আশেপাশে। জঘন্য পারফরম্যান্সের জেরে টেস্ট দলে তাঁর পারফরম্যান্স নিয়েও প্রশ্ন উঠছিল। এদিকে, দল অধিনায়ক হিসেবে তাঁর পরিবর্তের খোঁজ শুরু করে দিয়েছে। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সীমিত ওভারের সিরিজে তাঁকে বিশ্রামও দেওয়া হয়েছিল। তাঁর পরিবর্তে অধিনায়কত্ব করেন কুইন্টক ডি’কক (Quinton de Kock)। এই উইকেটরক্ষকের নেতৃত্বে দল বেশ ভালও খেলে। কোচ মার্ক বাউচারও ডি’ককের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেন। সম্ভবত তিনিই নতুন অধিনায়ক হবেন প্রোটিয়াদের।

 

[আরও পড়ুন: ‘এবার অস্ট্রেলিয়াতেও দিন-রাতের টেস্ট খেলবেন কোহলিরা’, জানালেন সৌরভ]

এই পরিস্থিতিতে আজ নয় কাল, অধিনায়কত্ব ছাড়তেই হতো ডু প্লেসিকে। সোমবারই তিনি নিজের সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিলেন। দক্ষিণ আফ্রিকার বিদায়ী অধিনায়ক বলছেন, “দল যেহেতু নতুন দিশায় এগোচ্ছে, নতুন ক্রিকেটার, নতুন নেতা উঠে আসছে। আমার মনে হয়েছে, এটাই সেরা সময় সব ফরম্যাট থেকে অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেওয়ার।” ডু’প্লেসি জানিয়েছেন, “২০১৯ বিশ্বকাপের পর আমি অধিনায়কত্ব ছাড়িনি। কারণ দল সেসময় পরিবর্তনের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছিল। সেসময় নতুন ক্রিকেটারদের সাহায্য করার জন্য আমার নেতা হিসেবে থাকাটা জরুরি ছিল।” একই সঙ্গে আক্ষেপের সুরে তিনি বলেন, “সব ঠিক থাকলে, আমার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ এবং টেস্ট ক্রিকেটে দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার ইচ্ছে ছিল। কিন্তু, কখনও কখনও একজন নেতার কাজই হয় আত্মত্যাগ।’ তবে, অধিনায়কত্ব ছাড়লেও খেলা ছাড়ছেন না প্রোটিয়া তারকা।তিনি জানিয়ে দিয়েছেন, তিনি দলের নতুন অধিনায়ককে সবরকম সাহায্য করবেন। এবং তিন ফরম্যাটেই খেলা চালিয়ে যেতে ছান। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement