১১ আষাঢ়  ১৪২৬  বুধবার ২৬ জুন ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

১১ আষাঢ়  ১৪২৬  বুধবার ২৬ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

গৌতম ভট্টাচার্য, লন্ডন: মহেন্দ্র সিং ধোনির ‘বলিদান ব্যাজ’ চিহ্ন যুক্ত গ্লাভস কি খুলে ফেলা উচিত? চলতি বিশ্বকাপে সমস্ত আলোচনাকে ছাপিয়ে এখন এটাই চর্চার মূল বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রাক্তনীদের বেশিরভাগই এব্যাপারে ধোনির সমর্থনে সুর চড়িয়েছেন। এবার গ্লাভস বিতর্কে প্রাক্তন অধিনায়কের পাশে দাঁড়ালেন কিংবদন্তি প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার ফারুখ ইঞ্জিনিয়ারও।

বিশ্বকাপে টিম ইন্ডিয়ার প্রথম ম্যাচেই ধোনির গ্লাভস নিয়ে শুরু হয় বিতর্ক। সাউদাম্পটনের রোস বোলে দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচের সময় ধোনির গ্লাভসে জ্বলজ্বল করছিল বলিদান চিহ্ন অর্থাৎ Regimental Insignia। সেই ছবি মুহূর্তে ভাইরাল হয়ে যায় নেটদুনিয়ায়। প্রাক্তন ক্রিকেটার থেকে শুরু করে অনেকেই ধোনির সেনাকে সম্মান জানানোর এই মাধ্যমকে কুর্নিশ জানান। শহিদ জওয়ানদের শ্রদ্ধা জানাতেই এই চিহ্নটি নিজের গ্লাভসে এঁকেছিলেন মাহি। আর তাতেই আইসিসি-র রোষের মুখে পড়েন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক। আইসিসি-র তরফে বিসিসিআইকে জানানোও হয় যে, মাহি যেন এই গ্লাভস না পরেন। কারণ বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থার নিয়ম অনুযায়ী ক্রিকেটারদের পোশাক এবং কিট, অবশ্যই অনুমোদিত হতে হবে। এবং প্রত্যেককে সরকারিভাবে অনুমোদিত পোশাকই পরতে হবে। আইসিসির দাবি, গ্লাভসে এই চিহ্নটি আঁকা মানে রাজনৈতিক বিষয়কে খেলার মধ্যে ঢুকিয়ে দেওয়া। আইসিসি কোনওরকম রাজনীতিকে প্রশ্রয় দেয় না।

[আরও পড়ুন: বাংলাদেশকে হারিয়ে জয়ে ফিরল ইংল্যান্ড, ভাইরাল রয়ের সেলিব্রেশনের মুহূর্ত]

যদিও আইসিসির আপত্তিকে পাত্তা দেয়নি ভারত। পালটা বিসিসিআইয়ের তরফে কড়া প্রতিক্রিয়া জানানো হয়। বোর্ডের তরফে বলা হয়, ধোনির ওই ব্যাজ কোনওরকম রাজনৈতিক, ধর্মীয় বা বর্ণবিদ্বেষমূলক বার্তার প্রচার করে না। তাছাড়া ধোনির ওই ব্যাজ সেনার লোগো নয়। সুতরাং, আইসিসির এতে আপত্তি থাকার কথা নয়। তা সত্ত্বেও নিজেদের অবস্থানেই অনড় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট নিয়ামক সংস্থা। ভারত-অস্ট্রেলিয়া মহারণ শুরুর আগেও সে বিতর্কের অবসান ঘটেনি। কেনিংটন ওভালে পৌঁছনো ফারুক ইঞ্জিনিয়ার এপ্রসঙ্গে মুখ খুললেন।

এদিন সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল-কে দেওয়া এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকারে ফারুখ বলেন, “গোটা বিষয়টি অত্যন্ত বোকা বোকা। এই নিষেধাজ্ঞার কোনও মানেই হয় না। আমি ধোনির পাশে আছি। আর আমি ধোনির জায়গায় থাকলে এই গ্লাভস পরেই খেলতে নামতাম।” কিন্তু আইসিসি-র নির্দেশ না মানলে যদি শাস্তির মুখে পড়তে হয় মাহিকে? এবারও স্ট্রেট ব্যাটেই খেললেন কিংবদন্তি। এক মুহূর্তও না ভেবে জবাব দিলেন, “তাহলে আইসিসি-কে বলব, উইকেটের পিছনে এসে দাঁড়াও।” এর পাশাপাশি এবারের বিশ্বকাপে চার সেমিফাইনালিস্টকেও বেছে নিলেন ফারুখ। তাঁর মতে, এবার ভারত, ইংল্যান্ড অস্ট্রেলিয়া এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ অথবা নিউজিল্যান্ড টুর্নামেন্টের শেষচারে পৌঁছবে।

[আরও পড়ুন: মাঠ নয়, মাঠের বাইরে এই অপরাধের জন্য ৫০০ টাকা জরিমানা কোহলির]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং