BREAKING NEWS

১২ মাঘ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৬ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‌সৌরভ বা খোয়াজা নন, আইসিসি’র চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হলেন নিউজিল্যান্ডের গ্রেগ বার্কলে

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: November 25, 2020 2:24 pm|    Updated: November 25, 2020 3:07 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ প্রত্যাশামতোই শশাঙ্ক মনোহরের পর পরবর্তী ICC চেয়ারম্যান হতে চলেছেন নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের ডিরেক্টর গ্রেগ বার্কলে (Greg Barclay)। মঙ্গলবার আয়োজিত ভোটে সহজেই সিঙ্গাপুরের (Singapore) ইমরান খোয়াজাকে হারালেন গ্রেগ। তিনি জিতেছেন ১১–৫ ভোটে। ফলে আইসিসির চেয়ারম্যান পদে বসতে তাঁর আর কোনও অসুবিধা রইল না।

যদিও একটা সময় সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের (Sourav Ganguly) আইসিসি চেয়ারম্যান হওয়া নিয়ে বহু জল্পনা ছড়িয়েছিল। সৌরভ চাইলে অনায়াসেই এই পদে বসতে পারতেন। কিন্তু শেষপর্যন্ত তিনি মনোনয়ন তোলেননি। ফলে সহজেই এই পদে বসতে পারবেন বার্কলে।

[আরও পড়ুন:‌ রোহিত–ইশান্তের কোয়ারেন্টাইনের মেয়াদ কমানো হোক, ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াকে আবেদন ভারতীয় বোর্ডের!]

পেশায় উকিল অকল্যান্ডের এই বাসিন্দা ২০১২ সাল থেকে নিউজিল্যান্ড (New Zealand) ক্রিকেট বোর্ডের ডিরেক্টরের পদ সামলাচ্ছিলেন। এছাড়া ২০১৫ সালে নিউজিল্যান্ড–অস্ট্রেলিয়াতে আয়োজিত ক্রিকেট বিশ্বকাপের ডিরেক্টর পদেও ছিলেন বার্কলে। চেয়ারম্যান পদে নিযুক্ত হওয়ার পর প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে বার্কলে বলেন, ‘‌‘‌আইসিসির চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হওয়া খুবই গর্বের বিষয়। আমি বাকি আইসিসি ডিরেক্টরদের এজন্য ধন্যবাদ জানাতে চাই। করোনা আবহে ফের একবার ক্রিকেটের হারানো জনপ্রিয়তা ফিরিয়ে আনতে এবং বর্তমান পরিস্থিতিতে ঘুরে দাঁড়াতে আমাদের একসঙ্গে কাজ করতে হবে।’‌’‌ এর পাশাপাশি পরাজিত ইমরান খোয়াজাকে শুভেচ্ছা এবং ধন্যবাদও জানান বার্কলে।

 

জানা গিয়েছে, ভারত–অস্ট্রেলিয়া–নিউজিল্যান্ড–ইংল্যান্ড–প্রত্যেকটি বোর্ডেরই সমর্থন পেয়েছেন বার্কলে। আসলে দ্বিপাক্ষিক সিরিজের উপর জোর দেওয়ার বিষয়টিই বার্কলকে লড়াইয়ে অনেকটা এগিয়ে দিয়েছিল। কারণ বিসিসিআইও এমনটাই চায়। আইসিসির সদ্যপ্রাক্তন বোর্ডের সঙ্গে ভারতীয় বোর্ডের যাবতীয় সমস্যার কারণই ছিল এই দ্বিপাক্ষিক সিরিজ। শশাঙ্ক মনোহরের আইসিসি প্রায় প্রতিবছর অন্তত একটি করে আইসিসি ইভেন্ট করার পক্ষে ছিল। কিন্তু, ভারতীয় বোর্ডের (BCCI) তাতে তীব্র আপত্তি ছিল। কারণ, সেটা হলে একে তো দ্বিপাক্ষিক সিরিজগুলি গুরুত্ব হারাত, সেই সঙ্গে আইপিএলের মতো টুর্নামেন্টেরও জনপ্রিয়তা কমত, নতুন বোর্ডের কাছে ভারত চাইবে, যাতে দ্বিপাক্ষিক সিরিজে তারা বেশি মনোনিবেশ করে।

[আরও পড়ুন:‌ অস্ট্রেলিয়ায় ফিরবে ১৯৯২ বিশ্বকাপের স্মৃতি, হুবহু একই জার্সি গায়ে নামবেন ধাওয়ানরা]

উল্লেখ্য, একটা সময় সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের (Sourav Ganguly) আইসিসি চেয়ারম্যান হওয়া নিয়ে বহু জল্পনা ছড়িয়েছিল। সৌরভ চাইলে অনায়াসেই এই পদে বসতে পারতেন। কিন্তু শেষপর্যন্ত তিনি মনোনয়ন তোলেননি। আসলে এখনই বিসিসিআইয়ের ক্ষমতা ছাড়তে চাইছেন না কলকাতার ‘মহারাজ’। আর আইসিসির পদে বসতে হলে ভারতীয় বোর্ড থেকে পদত্যাগ করতে হত তাঁকে। সম্ভবত সেকারণেই পিছিয়ে এসেছিলেন সৌরভ।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement