৭ শ্রাবণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
  • সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আশঙ্কা ছিলই। সেই আশঙ্কাকে সত্যি করে বরুণদেবের রোষে পড়ল ম্যাঞ্চেস্টার। দফায় দফায় বৃষ্টির জেরে স্থগিত হয়ে গেল প্রথম সেমিফাইনাল। এবার খেলা হবে রিজার্ভ ডে অর্থাৎ বুধবার। যে পরিস্থিতিতে খেলা শেষ হয়েছিল সেখান থেকেই বুধবার শুরু হবে খেলা। অর্থাৎ, ৪৬.১ ওভারে ৫ উইকেটে ২১১ রানের পর থেকে খেলা শুরু করবে নিউজিল্যান্ড।

[আরও পড়ুন: বৃষ্টির জেরে অথৈ জলে সেমিফাইনাল, কী হতে পারে ম্যাচের ভবিষ্যৎ?]

আবহাওয়ার কথা মাথায় রেখে বিশ্বকাপে সেমিফাইনাল ম্যাচের জন্য রিজার্ভ ডে রেখেছিল আইসিসি। তাই মঙ্গলবার ম্যাচ সম্পূর্ণ না হলেও বুধবার খেলার আয়োজন করা হবে। আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী ম্যাচ রেফারি বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে নির্ধারিত সময়ের পরও দু’ঘণ্টা খেলা চালিয়ে যেতে পারেন। সেই সময়েও যদি খেলা শেষ করা সম্ভব না হয়, সেক্ষেত্রে কমানো হতে পারে ওভার।আর, রেফারি যদি মনে করেন ওভার কমিয়েও খেলা শেষ করা যাবে না অতিরিক্ত ২ ঘণ্টা সময়ের মধ্যে, তাহলে ম্যাচ স্থগিত করে রিজার্ভ ডে’তে আবার আয়োজন করা যায়।

 
এদিন ম্যাঞ্চেস্টারে প্রথমে বৃষ্টি শুরু হয় হালকাভাবেই। কিন্তু কিছুক্ষণ পরে বাড়ে বৃষ্টির তীব্রতা। কার্যত মুষলধারে বর্ষণ হয় বেশ কিছুক্ষণ। মাঝে একবার আকাশ পুরোপুরি পরিষ্কার হয়েছিল। সূর্যদেবেরও দেখা মিলেছিল। কিন্তু তাতেও কোনও লাভ হয়নি। কয়েক মিনিটের মধ্যেই ফের শুরু হয় বর্ষণ। তাই, আর কোনও উপায় না পেয়ে, শেষপর্যন্ত ম্যাচ স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নেন আয়োজকরা। বুধবার অবশিষ্ট ম্যাচ খেলা হবে। তবে, বুধবারও যদি ম্যাচ সম্পূর্ণ করা সম্ভব না হয়, সেক্ষেত্রে ভারতই চলে যাবে ফাইনালে।

[আরও পড়ুন: কোচিংয়ে সাফল্যের পুরস্কার, জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমির সর্বেসর্বা হলেন রাহুল দ্রাবিড়]

ম্যাচে বৃষ্টির ভ্রুকুটির আশঙ্কা থেকেই হোক, কিংবা বড় ম্যাচের চাপের কথা মাথায় রেখেই হোক, পিচে বোলাররা অতিরিক্ত সুবিধা পাবেন জেনেও এদিন প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেয় নিউজিল্যান্ড। কিন্তু, কিউয়ি অধিনায়কের সেই সিদ্ধান্ত ভুল বলে প্রমাণিত হয়। প্রথম পাঁচ ওভারে মাত্র ৭ রান দেন ভারতীয় পেসাররা। ১ রানেই প্রথম উইকেট খোয়াতে হয় নিউজিল্যান্ডকে। দ্বিতীয় উইকেট পড়ে ৬৯ রানে। তবে, অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন এদিনও ধীরস্থির মাথায় ভারতীয় বোলাদের অনবদ্য বোলিংয়ের মোকাবিলা করতে থাকেন। ৯৫বলে ৬৭ রানের ধৈর্য্যশীল ইনিংস খেলেন তিনি। একই রকমভাবে দায়িত্বশীল ইনিংস খেলেন রজ টেলরও। দুই অভিজ্ঞ ক্রিকেটারের ইনিংসে ভর করেই ৪৬ ওভার ১ বলে ৫ উইকেটে ২১১ রানে পৌঁছে যায় নিউজিল্যান্ড। তার পরই, শুরু হয় রাক্ষুসে বৃষ্টি।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং