৭ শ্রাবণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

দেবাশিস সেন,ম্যাঞ্চেস্টার: আশঙ্কা ছিলই। সেই আশঙ্কাকে সত্যি করে বরুণদেবের রোষে পড়েছে ম্যাঞ্চেস্টার। গোটা বিশ্বের হাজার হাজার ক্রিকেট সমর্থকদের হতাশ করে মুষলধারে বৃষ্টি ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে। প্রথমে হালকা বৃষ্টি শুরু হলেও পরে বেশ জোরাল ভাবেই শুরু হয় বর্ষণ। যদিও, শেষপর্যন্ত(এই প্রতিবেদন লেখার সময়) ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে সূর্যদেবের মুখ দেখা গিয়েছে বলেই খবর। যাই হোক, এই পরিস্থিতিতে যদি বৃষ্টি থামে, বা না থামে, তাহলে ম্যাচের ভবিষ্যত কী হবে তা নিয়ে হাজারো প্রশ্ন সমর্থকদের মধ্যে।

[আরও পড়ুন: বিশ্বকাপের মঞ্চে ফের বিচ্ছিন্নতাবাদী প্রচার, সেমিফাইনালে দেখা গেল খলিস্তানপন্থী ব্যানার]

প্রথমেই জানিয়ে রাখা যাক, সেমিফাইনাল ম্যাচের জন্য রিজার্ভ ডে রেখেছে আইসিসি। তাই আজ খেলা সম্পূর্ণ না হলেও আগামিকাল খেলার আয়োজন করা যেতেই পারে। কিন্তু সেক্ষেত্রেও রয়েছে বেশ কিছু নিয়ম। আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী ম্যাচ রেফারি বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে নির্ধারিত সময়ের পরও দু’ঘণ্টা খেলা চালিয়ে যেতে পারেন। সেই সময়েও যদি খেলা শেষ করা সম্ভব না হয়, সেক্ষেত্রে কমানো হতে পারে ওভার। আর আজ যদি আর খেলা না সম্ভব হয় সেক্ষেত্রে ম্যাচ যেখানে শেষ হয়েছে, সেখান থেকেই শুরু হবে আগামিকাল। অর্থাৎ, ৪৬.১ ওভারে ৫ উইকেটে ২১১ রানের পর থেকে খেলা শুরু করবে নিউজিল্যান্ড।

[আরও পড়ুন: ম্যাঞ্চেস্টারে বৃষ্টিতে ভারত-নিউজিল্যান্ড ম্যাচ ভেস্তে গেলে কে যাবে ফাইনালে?]

তবে, এখনও আজই ওভার কমিয়ে ম্যাচ আয়োজনের সুযোগ রয়েছে। এখনই যদি খেলা শুরু করা যায়, তাহলে ভারতকে ৪৬ ওভার খেলার সুযোগ দেওয়া হতে পারে। সেক্ষেত্রে ডাকওয়ার্থ লুইস নিয়ম অনুসারে ভারতের নতুন টার্গেট হতে পারে ২৩৭ রান। যা মোটেই সুখকর নয় টিম ইন্ডিয়ার জন্য। যা পরিস্থিতি তাতে, সর্বোচ্চ ৪৬ ওভারেই খেলা হতে পারে। আর সর্বনিম্ন খেলা হতে পারে ২০ ওভারে। ২০ ওভারে খেলা হলে ভারতকে করতে হবে ১৪৮ রান। অর্থাৎ, দুটি ক্ষেত্রেই অনেক নিউজিল্যান্ডের থেকে অনেক বেশি রান করতে হচ্ছে ভারতকেই। তাই ভারতীয় সমর্থকরা চাইবেন, খেলা আগামিকালই হোক। সেক্ষেত্রে অন্তত বেশি রান করতে হবে না ভারতকে। আর যদি কালও খেলা না হয়, তাহলে ভারতই চলে যাবে ফাইনালে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং