BREAKING NEWS

১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  শুক্রবার ২৭ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ফাইনালে নেমেই ধোনির রেকর্ড ছুঁলেন রোহিত, বিধ্বংসী বোল্টের সামনে টালমাটাল দিল্লি

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: November 10, 2020 9:17 pm|    Updated: November 10, 2020 9:26 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ ‌একদিকে পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন রোহিতের মুম্বই (Mumbai Indians)। অপরদিকে, প্রথমবার ফাইনালে ওঠা দিল্লি (Delhi Capitals)। আইপিএলের ফাইনালে শুরু থেকেই মজুত ছিল লড়াইয়ের যাবতীয় রসদ। আর ম্যাচের প্রথম ইনিংস শেষে বলা যায়ই, অ্যাডভান্টেজ মুম্বই। সৌজন্যে সেই ট্রেন্ট বোল্ট। যদিও শেষপর্যন্ত শ্রেয়স–ঋষভের পালটা লড়াইয়ে কিছুটা সম্মানজনক স্কোরে পৌঁছায় দিল্লির রান। নির্ধারিত ২০ ওভারে সাত উইকেটে ১৫৬ রানই তুলতে সক্ষম হয় দিল্লি ক্যাপিটালস। অন্যদিকে, আবার আইপিএল কেরিয়ারে ২০০ তম ম্যাচে খেলতে নেমে নয়া রেকর্ড গড়লেন রোহিত (Rohit Sharma)।

[আরও পড়ুন: গ্যালারিতে বসেই কোহলিদের টেস্ট দেখবেন দর্শকরা, সুখবর দিল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া]

মঙ্গলবার অবশ্য টস জেতেন দিল্লি অধিনায়ক শ্রেয়স। কিন্তু প্রথমে ব্যাটিংয়ের তাঁর সিদ্ধান্ত ভুল প্রমাণিত হয়। কারণ শুরুতেই বোল্টের দাপটে ফিরে আসে কোয়ালিফায়ার ওয়ানের স্মৃতি। সেদিন শূন্য রানেই তিন উইকেট পড়ে গিয়েছিল দিল্লির। আর এদিন প্রথম বলেই আবার আউট হন গত ম্যাচের নায়ক মার্কাস স্টইনিস। দু’‌ওভার পর ২ রান করে আউট হন আজিঙ্ক রাহানেও। আর দু’‌জনেই আউট করেন বোল্ট। অন্যদিকে, ১৫ রান করে বোল্ড হন ধাওয়ানও। এরপর অবশ্য পালটা লড়াই শুরু করেন শ্রেয়স আয়ার এবং ঋষভ পন্থ। দু’‌জনে মিলে ইনিংসের হাল ধরেন। ঋষভ ৩৮ বলে ৫৬ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলেন। মারেন ৪টি চার ও ২টি ছয়। শ্রেয়স করেন ৫০ বলে অপরাজিত ৬৫ রান। মুম্বইয়ের হয়ে চার ওভারে ৩০ রান দিয়ে তিন উইকেট নেন বোল্ট। তবে বুমরাহ কোনও উইকেট পাননি।

এদিকে, এদিন অনন্য রেকর্ড গড়লেন মুম্বই অধিনায়ক রোহিত শর্মা। মহেন্দ্র সিং ধোনির পর দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে আইপিএলে ২০০ ম্যাচ খেলার রেকর্ড গড়লেন তিনি।

 

[আরও পড়ুন: ‘জিভার জন্মের সময় ধোনি কাছে ছিলেন না’, কোহলির পিতৃকালীন ছুটি নিয়ে নিন্দার ঝড়]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement