BREAKING NEWS

২৪ বৈশাখ  ১৪২৮  শনিবার ৮ মে ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

লক্ষ্য জয়ের ধারা অব্যাহত রাখা, দিল্লির বিরুদ্ধে কেকেআরের চিন্তা টপ অর্ডার

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: April 29, 2021 2:49 pm|    Updated: April 29, 2021 2:49 pm

An Images

স্টাফ রিপোর্টার: টানা চার ম্যাচ হারের পর অবশেষে জয়ের রাস্তায় ফেরা। গত ম্যাচে পাঞ্জাব কিংসকে (Punjab Kings) হারানোর পর বৃহস্পতিবার দিল্লি ক্যাপিটালসের (Delhi Capitals) বিরুদ্ধে নামার আগে একটাই মন্ত্র কেকেআর (KKR) শিবিরে-জয়ের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে হবে।

পাঞ্জাবকে হারানোর পর কেকেআর শিবিরের ছবিটা অনেক বদলেছে। এখন আর সেই দমবন্ধ পরিবেশ নেই। টেনশনের চোরাস্রোত নেই। ইয়ন মর্গ্যান, সুনীল নারিনদের প্র্যাকটিসে বেশ চনমনে দেখিয়েছে বলেই শোনা গেল। তবে টিম কেকেআর খুব ভাল করেই জানে যে, দিল্লি ম্যাচটা কতটা কঠিন হতে চলেছে। গতবার এই দিল্লির কাছে প্রথম সাক্ষাতে হেরেছিলেন মর্গ্যানরা। পরেরবার অবশ্য অনায়াসে জিতে বদলাও নিয়েছিল কেকেআর। বৃহস্পতিবারও জয় ছাড়া অন্য কিছু নিয়ে আর ভাবছে না নাইটরা। কেকেআর খুব ভাল করেই জানে, ম্যাচটা জিততে পারলে আবার প্লে অফের দৌড়ে চলে আসা যাবে। আর হারলে? প্লে-অফ রাস্তা আরও দুর্গম হয়ে উঠবে।

[আরও পড়ুন: দিব্যি চলছে IPL, অথচ মহিলা টি-টোয়েন্টি চ্যালেঞ্জ বাতিলের চিন্তাভাবনা করছে BCCI]

তবে দিল্লি-যুদ্ধের আগে কেকেআরকে সবচেয়ে বেশি চিন্তায় রেখেছে ব্যাটিং। বিশেষ করে টপ অর্ডার। পাঞ্জাব ম্যাচে ১২৪ তাড়া করতে নেমেও ১৭/৩ হয়ে গিয়েছিল। শুভমন গিল ফর্মের ধারেকাছে নেই। ছ’টা ম্যাচে সবমিলিয়ে একশো পেরোননি। নীতিশ রানা বা রাহুল ত্রিপাঠীরাও ধারাবাহিক নন। অধিনায়ক মর্গ্যানও চূড়ান্ত অফ ফর্মে ছিলেন। যদিও শেষ ম্যাচে রানে ফিরেছেন তিনি। যা কেকেআর ম্যানেজমেন্টকে কিছুটা হলেও স্বস্তি দিচ্ছে। ব্যাটিং অর্ডার অদল-বদলের কথা বলা হচ্ছে। সুনীল গাভাসকরের মতো কিংবদন্তি বলছেন, গিলকে একটু পরের দিকে ব্যাট করতে পাঠাতে। গাভাসকর চাইছেন নারিন ওপেনে আসুক। সঙ্গে ত্রিপাঠী। যদিও কেকেআর ব্যাটিং অর্ডারে পরিবর্তন আনবে কি না, সেটা জোর দিয়ে এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না। কেকেআর শিবিরের যা খবর শোনা যাচ্ছে, তাতে তারা হয়তো এখন শুভমনের ব্যাটিং অর্ডার পিছবে না। নারিনকে দিয়ে ওপেন করানোর ভাবনা থাকলেও, সেটা সম্ভবত এই ম্যাচ থেকে নয়। বরং নারিনের বোলিং ফর্ম স্বস্তি দিচ্ছে কেকেআরকে। প্রথম কয়েকটা ম্যাচে তিনি ছিলেন না। ফিরে এসে বেশ ভাল পারফর্ম করছেন। পাঞ্জাবের বিরুদ্ধে শুধু দুটো উইকেট নেওয়া নয়, আঁটোসাঁটো বোলিংও করেছেন। একইসঙ্গে বরুণ চক্রবর্তীও ছন্দে রয়েছেন।

দিল্লিও যে খুব ভাল জায়গায় রয়েছে, সেটা বলা যাবে না। আগের ম্যাচে বিরাট কোহলিদের কাছে হার। তার উপর দলের তারকা অফস্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন টুর্নামেন্ট ছেড়ে চলে গিয়েছেন। পেসার কাগিসো রাবাদা গতবছরের ফর্মে নেই। ক্যাপ্টেন ঋষভ পন্থের সমালোচনা হচ্ছে। এবছরই দিল্লির ক্যাপ্টেন হয়েছেন ঋষভ। বীরেন্দ্র শেহওয়াগের মতো প্রাক্তনরা তাঁর ক্যাপ্টেন্সি দেখে চূড়ান্ত হতাশ। শেহওয়াগ বলেও দিয়েছেন, তিনি ক্যাপ্টেন ঋষভকে দশে পাঁচের বেশি দিতে পারছেন না। তবে দিল্লির শক্তি হল ব্যাটিং। শিখর ধাওয়ান, পৃথ্বী শ’রা খুব ভাল ফর্মে। সিমরন হেটমেয়ার তো গত ম্যাচে যে রকম ব্যাটিং করেছেন, সেটা অবশ্যই চিন্তায় রাখবে কেকেআরকে। দিল্লির ব্যাটিংকে আটকে মর্গ্যানরা জয়ের ধারা বজায় রাখতে পারেন কি না, এখন সেটাই দেখার।

[আরও পড়ুন: ফের কোভিডের ধাক্কা আইপিএলে, এবার নাম প্রত্যাহার ‘দেশের সেরা’ আম্পায়ারের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement