৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘মিয়াঁদাদের মাথা খারাপ হয়েছে’, ইমরানের পাশে দাঁড়িয়ে প্রাক্তন পাক ক্রিকেটারকে তুলোধোনা মদনলালের

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: August 14, 2020 11:01 pm|    Updated: August 14, 2020 11:01 pm

An Images

‌সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটার জাভেদ মিয়াঁদাদের (Javed Miandad) মাথা খারাপ হয়েছে। আর তাই তো তিনি আলটপকা মন্তব্য করছেন। পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের উদ্দেশে করা মিয়াঁদাদের বক্তব্য শোনার পর এমনটাই মন্তব্য প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার মদনলালের (Madan Lal )। এর আগে এক সাক্ষাৎকারে মিয়াঁদাদ নিজের প্রাক্তন সতীর্থের উদ্দেশে বলেছিলেন, ইমরান খান স্বজনপোষণ করছেন। পাকিস্তান (Pakistan) ক্রিকেটের গুরুত্বপূর্ণ পদে বসানো হচ্ছে বিদেশিদের। আজ পাকিস্তান ক্রিকেটের দুর্দশার জন্য ইমরানই দায়ী।

[আরও পড়ুন:১০ সেকেন্ডের বিজ্ঞাপনের জন্য ১০ লক্ষ টাকা! মহামারীতেও IPL সম্প্রচারে মোটা টাকা হাঁকবে স্টার]

এই বিষয়েই একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে মদনলালকে প্রশ্ন করা হয়েছিল। জবাবে প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার বলেন, ‘‌‘‌মিয়াঁদাদ যা বলছে, আমার কাছে সেই কথার কোনও মানেই দাঁড়াচ্ছে না। এর থেকেই প্রমাণিত হয় ও কতটা শিক্ষিত। এর আগে কাশ্মীর ইস্যুতে আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কেও মন্তব্য করেছিল মিয়াদাঁদ। আমার মনে হয় ওর মস্তিষ্কবিকৃতি ঘটেছে।’‌’‌

সম্প্রতি নিজের ইউটিউব চ্যানেলের একটি ভিডিওতে মিয়াঁদাদ বলেন, “পিসিবির কোনও আধিকারিক ক্রিকেটের ABC পর্যন্ত জানে না। আমি ইমরানের সঙ্গে নিজে কথা বলব। এই দেশের জন্য ভাল নয়, এমন কাউকে আমি ছাড়ব না।” ইমরানের (Imran Khan) উদ্দেশ্যে তাঁর হুঁশিয়ারি,”তুমি একজন বিদেশিকে পিসিবির (PCB) গুরুত্বপূর্ণ পদে বসিয়েছ। ও যদি দুর্নীতি করে পালিয়ে যায়, তাহলে কী হবে? তোমার নিজের দেশে কি যোগ্য লোকের অভাব আছে?”

[আরও পড়ুন: আরও কিছুদিন বিসিসিআইয়ের সভাপতি পদে সৌরভ? সোমবার সুপ্রিম কোর্টে শুনানির সম্ভাবনা কম]

এর পাশাপাশি তিনি রাজনীতিতে নেমে ইমরানকে সরাসরি চ্যালেঞ্জ জানানোর হুঁশিয়ারিও দেন। বলেন,”ভুলে যেও না, আমি তোমার ক্যাপ্টেন। তুমি কখনও আমার ক্যাপ্টেন ছিলে না। আমি রাজনীতিতে নেমে তোমার সঙ্গে সামনা-সামনি কথা বলব। এখন তুমি এমন আচরণ করছ, যেন তুমিই ঈশ্বর। যেন এই দেশে তুমিই একমাত্র বুদ্ধিমান। আর যেন কেউ কখনও অক্সফোর্ড বা কেমব্রিজ যায়নি। আসলে তুমি এই দেশের ব্যাপারে ভাবোই না। তোমার উচিত এখন নিজেদের লোককে সাহায্য করা। পাকিস্তানের কথা ভাবা।”‌

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement