BREAKING NEWS

১৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  সোমবার ৫ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

আরও কিছুদিন বিসিসিআইয়ের সভাপতি পদে সৌরভ? সোমবার সুপ্রিম কোর্টে শুনানির সম্ভাবনা কম

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: August 14, 2020 3:39 pm|    Updated: August 14, 2020 3:39 pm

SC won't hear Sourav Ganguly, Jay Shah's cooling-off period waiver petition on August 17,says Report

ফাইল ছবি

‌সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ আরও কয়েকটা দিনের জন্য হয়তো স্বস্তি পেতে চলেছেন BCCI সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় (Sourav Ganguly) এবং সচিব জয় শাহ। কারণ দুই শীর্ষকর্তার ‘কুলিং অফ’ আটকাতে সুপ্রিম কোর্টে দায়ের করা বোর্ডের আবেদনের শুনানি আগামী ১৭ আগস্ট নাও হতে পারে। সূত্রের খবর, আগামী সোমবার মামলাটির শুনানি হওয়ার কথা থাকলেও চলতি সপ্তাহের বৃহস্পতিবার পর্যন্ত তা শুনানির জন্য তালিকাভুক্তও করা হয়নি। নির্ধারিত দিনে শুনানির সম্ভাবনা কম। আর যতদিন না শুনানি হচ্ছে ততদিন পর্যন্ত বাড়বেই সৌরভ–জয় শাহ, দু’‌জনেরই মেয়াদ।

[আরও পড়ুন: অবিকল যেন ধোনি! ৭ বছরের বাচ্চা মেয়ের ‘হেলিকপ্টার শট’ দেখে অবাক নেটিজেনরা]

লোধা কমিশনের নিয়ম অনুযায়ী, রাজ্য সংস্থা বা বিসিসিআইয়ে টানা ছ’বছর কোনও পদে থাকলে তাঁকে ৩ বছরের জন্য বাধ্যতামূলক ‘কুলিং অফ’ (Cooling-off) পিরিয়ডে যেতে হয়। সেই নিয়ম অনুযায়ী জুনে শেষ হয় বোর্ড সচিব জয় শাহর (Jay Shah) মেয়াদ। জুলাইয়ের শেষ সপ্তাহে বোর্ড সুপ্রিমো সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়েরও কার্যকাল শেষ হয়। গুজরাট ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের যুগ্ম সচিব পদে জয় শাহ (Jay Shah) আসেন ২০১৩ সালে। বিসিসিআইয়ে আসার আগে পর্যন্ত তিনি সেই অ্যাসোসিয়েশনেই ছিলেন। সৌরভও সিএবিতে প্রথমে সচিব, পরে প্রেসিডেন্টের চেয়ারে প্রায় ৫ বছর কাটিয়েছেন। গত বছর বোর্ড নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচিত হন তিনি। ফলে সৌরভ বা শাহরা জানতেন, লোধা কমিশনের আইন মানতে হলে বেশিদিন চেয়ারে থাকা যাবে না।

[আরও পড়ুন: IPL শুরুর আগে কোভিড টেস্ট করালেন ধোনি, কী এল রিপোর্টে?]

এরপরই ডিসেম্বরে বোর্ডের এজিএমে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, যেভাবেই হোক আগামী বছর ছয়েক এই কমিটিকেই দায়িত্বে রাখতে হবে। কারণ, এত কম সময়ে ভারতীয় ক্রিকেটে কোনও বৈপ্লবিক পরিবর্তন সম্ভব নয়। তাছাড়া তাঁদের কার্যকালের বেশিরভাগ সময়টা করোনা মহামারীর আবহেই কেটে গেল। এই পরিস্থিতিতে যদি তাঁরা দায়িত্ব ছেড়েও দেন তাতেও বোর্ড অথৈ জলে পড়বে। তাই সব দিক ভেবেচিন্তে গত ২১ এপ্রিল শীর্ষ আদালতে ‘কুলিং অফ’ তোলার আবেদন জানানো হয়। বলা হয়, সৌরভের মতো যোগ্য ব্যক্তির হাতে বিসিসিআইয়ের দায়িত্ব থাকলে ভারতীয় ক্রিকেটের পক্ষে সেটা ভালই হবে। তাই সৌরভের টিমের মেয়াদ বাড়িয়ে ২০২৫ পর্যন্ত করে দেওয়া হোক।

বহুদিনের অপেক্ষার পর গত ২২ জুলাই মামলাটি ওঠে সুপ্রিম কোর্টের (Supreme Court) প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে। আদালত সৌরভদের আবেদন গ্রহণ করলেও দু’সপ্তাহ পর অর্থাৎ ১৭ আগস্ট মামলাটির শুনানির দিন ধার্য করে। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে আগামী সোমবারও শুনানি হওয়ার সম্ভাবনা অনেক কম। ফলে আরও কিছুটা সময় পেতে পারেন সৌরভরা।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে