BREAKING NEWS

২১ আষাঢ়  ১৪২৭  সোমবার ৬ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

বিশ্বকাপ খেলতে নিশ্চিন্তে ভারতে আসতে পারে পাকিস্তান, আত্মবিশ্বাসী প্রাক্তন ক্রিকেটার

Published by: Sulaya Singha |    Posted: June 30, 2020 9:42 pm|    Updated: June 30, 2020 9:42 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আগামী বছর ভারতে বিশ্বকাপ খেলতে এসে কোনও সমস্যায় পড়তে হবে না পাকিস্তান দলকে। তাদের চিন্তার কোনও নেই। এমনটাই মত প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার আকাশ চোপড়ার।

সামনের বছর ভারতের মাটিতে বসছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আসর। ২০২৩-এ আবার ভারতেই ৫০ ওভারের বিশ্বকাপ। আর পাকিস্তান বোর্ড নিরাপত্তা ইস্যু নিয়ে ইতিমধ্যেই দাবি জানাতে শুরু করেছে। ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডকে (BCCI) ‘চাপে’ ফেলার চেষ্টায় পিসিবি। তাদের তরফে আইসিসি’র (ICC) কাছে দাবি জানানো হয়, পাকিস্তান টিমের নিরাপত্তার ব্যাপার নিয়ে বিসিসিআইকে লিখিত আশ্বাস দিতে হবে। পিসিবি সিইও ওয়াসিম খান জানান, “ভারতে দুটো বিশ্বকাপ (২০২১ আর ২০২৩) হওয়ার কথা। আমরা আইসিসিকে জানিয়ে দিয়েছি বিসিসিআইকে লিখিত আশ্বাস দিতে হবে যে, আমরা ওখানে গিয়ে ভিসা-ক্লিয়ারেন্স সংক্রান্ত কোনও সমস্যায় পড়ব না।”

[আরও পড়ুন: সত্যিই কি ‘বিক্রি’ হয়ে গিয়েছিল ২০১১ বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচ? শুরু হল তদন্ত]

আসলে অতীতে পাক অ্যাথলিটদের ভারতের আসার ভিসা পেতে সমস্যায় পড়তে হয়েছিল। তাছাড়া দুই দেশের মধ্যে সম্পর্কের অবনতি আরও ভাবাচ্ছে বোর্ডকে। সেই জন্যই আগেভাগে বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থার কাছে আরজি জানিয়েছে পিসিবি। তবে আকাশ চোপড়া মনে করছেন, আগামী বছর বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হলে পাক দলের অংশ নিতে কোনও অসুবিধা হবে না।

বিশ্বকাপ প্রসঙ্গের পাশাপাশি অনলাইন চ্যাটে আকাশ চোপড়ার গলায় শোনা যায় DRS প্রসঙ্গ। তিনি জানান, মহেন্দ্র সিং ধোনি কোনওদিনই ডিসিশন রিভিউ সিস্টেমের ভক্ত ছিলেন না। আর বিরাট কোহলির অবস্থান এক্ষেত্রে একেবারে উলটো। অথচ মজার বিষয় হল DRS এখন বেশি পরিচিত ‘ধোনি রিভিউ সিস্টেম’ হিসেবেই। চোপড়ার কথায়, ধোনি মনে করতেন প্রযুক্তি একশো শতাংশ ঠিক হয় না। এর দোষত্রুটি থাকে। তাই তিনি নেতৃত্বে থাকলে হয়তো এটা ব্যবহার করতেন না। তবে কোহলি এই পদ্ধতি দারুণ পছন্দ করেন। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, প্রথমে বিসিসিআইও ডিআরএস ব্যবহারের পক্ষে ছিল না। তবে কোহলি অধিনায়ক হওয়ার পরই ছবিটা পালটে গিয়েছিল।

[আরও পড়ুন: সবুজ-মেরুন সমর্থকদের জন্য সুখবর, এবার ঘরে বসেই পেয়ে যান চ্যাম্পিয়নশিপ মার্চেনডাইস]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement