BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বিরাট কোহলিকে গ্রেপ্তারের দাবি তুলে মামলা দায়ের মাদ্রাজ হাই কোর্টে

Published by: Sulaya Singha |    Posted: July 31, 2020 3:58 pm|    Updated: July 31, 2020 3:58 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার (Coronavirus) জেরে দীর্ঘদিন মাঠের বাইরে বিরাট কোহলি। বাড়িতেই শরীরচর্চা করে ফিট থাকছেন। দলের সঙ্গে কবে অনুশীলনে নামতে পারবেন, এখনও ঠিক নেই। প্রায় পাঁচ মাস বাইশ গজে ব্যাট হাতে খেলতে পারার চাপা হতাশাও রয়েছে। আর তারই মধ্যে ভারত অধিনায়কের বিরুদ্ধে সোজা আদালতের দ্বারস্থ হলেন এক আইনজীবী। কোহলির বিরুদ্ধে মামলা করা হল মাদ্রাজ হাই কোর্টে। এমনকী উঠল গ্রেপ্তারের দাবিও। 

[আরও পড়ুন: দুর্নীতি কাণ্ডে জর্জরিত FIFA, প্রেসিডেন্ট ইনফান্তিনোর বিরুদ্ধে এবার ফৌজদারি মামলা]

কিন্তু কেন? লকডাউনের মধ্যেই কী এমন ‘অপরাধ’ করে বসলেন কোহলি (Virat Kohli)? আসলে গ্যাম্বলিং অর্থাৎ জুয়ার বিজ্ঞাপনে দেখা গিয়েছে টিম ইন্ডিয়ার ক্যাপ্টেনকে। আর ঠিক এখানেই আপত্তি তুলেছেন চেন্নাইয়ের এক আইনজীবী। তাঁর দাবি, এই সমস্ত বিজ্ঞাপন দেখে জুয়ার প্রতি আসক্ত হয়ে পড়ছে যুবপ্রজন্ম। তার উপর এই ধরনের বিজ্ঞাপনে বিরাটের মতো ক্রিকেটার কিংবা তামান্নার (Tamanna) মতো অভিনেত্রীকে দেখা যাচ্ছে। ফলে জুয়ার প্রতি আকর্ষণ দ্বিগুণ হচ্ছে তরুণ-তরুণীদের। অনেকেরই মনে হচ্ছে প্রিয় তারকারা এর প্রচার করছেন মানে, বিষয়টি খারাপ হতেই পারে না। তাছাড়া এসব গেমের জন্য বাড়ির বাইরেও বেরনোর প্রয়োজন হচ্ছে না। পুরোটাই অনলাইনে। তাই আইনজীবীর আবেদন, যত দ্রুত সম্ভব জুয়ার সমস্ত অ্যাপ যেন নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়।

এখানেই থামেননি তিনি। একই সঙ্গে আদালতকে অনুরোধ জানিয়েছেন, জুয়া খেলার প্রচার করার অভিযোগে কোহলি ও তামান্নাকে গ্রেপ্তার করা উচিত। বিষয়টি যে কতখানি ক্ষতিকর, তার উদাহরণও তুলে ধরেন আইনজীবী। জানান, এই অনলাইন জুয়া খেলার জন্য এক তরুণ প্রচুর টাকা ধার নিয়েছিল। কিন্তু শেষমেশ তা শোধ করতে না পারায় আত্মঘাতী হয়। তাই তিনি চান, আদালত এর উপর নিষেধাজ্ঞা জারির সিদ্ধান্তই নিক। মামলার শুনানি আগামী মঙ্গলবার।

[আরও পড়ুন: করোনা পরিস্থিতিতে ঝুঁকি নিতে চায় না বোর্ড, বাতিল হতে পারে কোহলিদের প্রস্তুতি শিবির!]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement