১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

হার মানল অনুষ্টুপদের লড়াই, প্রথম ইনিংসে লিড নিয়ে রনজি জয়ী সৌরাষ্ট্র

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: March 13, 2020 10:58 am|    Updated: March 13, 2020 11:18 am

An Images

সৌরাষ্ট্র: ৪২৫
বাংলা: ৩৮১
সৌরাষ্ট্র ৪৪ রানে এগিয়ে

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যাকে বলে, তীরে এসে তরী ডোবা। যেসময় মনে হচ্ছিল, ৩০ বছর পর স্বপ্নপূরণ হতে চলেছে বাংলার, তখনই আঘাত হানল সৌরাষ্ট্র। জয়দেব উনাদকাটের বল পায়ে লাগতেই লড়াই শেষ হয়ে যায় অনুষ্টুপ মজুমদারের। তারপর তাসের ঘরের মতো পড়ে যায় বাংলার বাকি উইকেট গুলি। সৌরাষ্ট্রের বিজয়গাথার দিনে স্বপ্নভঙ্গ হল বাংলার। ৪৪ রানে এগিয়ে থেকে বাংলাকে হারিয়ে রনজি ট্রফি জিতে নিল উনাদকাট-পূজারার সৌরাষ্ট্র।

প্রতিকূল পরিস্থিতি, জঘন্য পিচ, তার উপরে সৌরাষ্ট্রের রানের পাহাড়। কিন্তু, এতকিছুর পরেও হার মানেনি বাংলা। চতুর্থ দিনের শেষে ক্রিজ কামড়ে লড়ে যাচ্ছিলেন অনুষ্টুম-অর্ণব নন্দী। হার মানতে নারাজ ছিলেন তাঁরা। কিন্তু পঞ্চম দিনের শুরুতে উনাদকাটের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে অনুষ্টুপ মজুমদার (৬৩) প্যাভিলিয়নে ফিরতেই সেলিব্রেশন শুরু হয়ে যায় সৌরাষ্ট্র শিবিরে। জয়ের গন্ধ তখনই পেয়ে গিয়েছিলেন উনাদকাটরা। ৩০ বছর পর রঞ্জি জয়ের জন্য বাংলার প্রয়োজন ছিল ৭২ রান। কিন্তু লোয়ার অর্ডারের ব্যর্থতার জেরে তীরে এসে তরী ডোবে বাংলার।

[আরও পড়ুন: মাটি কামড়ে লড়ছেন অনুষ্টুপ-অর্ণব, রনজি ফাইনালে ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন বাংলার]

বাংলার শেষ উইকেট পড়ে ঈশাণ পোড়েলের। এখানেও ঘাতক সেই উনাদকাট। তাঁর বলে লেগ বিফোর উইকেট হতেই উচ্ছ্বাসে ভাসে সৌরাষ্ট্রের ক্রিকেটাররা। পোড়েল রিভিউ নিয়েও নিজের উইকেট বাঁচাতে পারেননি। রনজির এক মরশুমে ৬৭টি উইকেট নিয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি হয়ে গেলেন উনাদকাট। আর অধিনায়ক হিসাবেও রনজি ট্রফি জিতে ইতিহাসে চলে গেলেন বাঁ হাতি ফাস্ট বোলার। অন্যদিকে, বাংলার জন্য পড়ে রইল শুধু হতাশা ও স্বপ্নভঙ্গের বেদনা।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement