BREAKING NEWS

৭ শ্রাবণ  ১৪২৮  শনিবার ২৪ জুলাই ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

অন্তর্কলহে জর্জরিত ভারতীয় ক্রিকেট! টিম ম্যানেজমেন্টকে নিয়ম মানার নিদান BCCI কর্তার

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: July 9, 2021 6:21 pm|    Updated: July 9, 2021 7:04 pm

Team management must follow the process, BCCI official angry over replacement controversy | Sangbad Pratidin

ফাইল ছবি

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শুভমন গিলের চোট বিতর্কে ভারতীয় ক্রিকেটের অন্তর্কলহ ক্রমশ বাড়ছে। এবার টিম ম্যানেজমেন্টকে নিয়ম মেনে চলার পরামর্শ দিলেন বিসিসিআইয়ের (BCCI) এক শীর্ষকর্তা। সেই সঙ্গে বোর্ডের ওই কর্তার নির্দেশ, এবার সবকিছু ভুলে ইংল্যান্ড সিরিজে মনোনিবেশ করা উচিত কোহলিদের (Virat Kohli) টিম ম্যানেজারের।

আসলে চোটের কারণে ৮ সপ্তাহের জন্য মাঠের বাইরে ছিটকে গিয়েছেন ভারতীয় টেস্ট দলের (Team India) নিয়মিত ওপেনার শুভমন গিল। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৫ ম্যাচের সিরিজের প্রথম তিন ম্যাচে তিনি খেলতে পারবেন না। মেডিক্যাল টিম এ খবর জানাতেই গিলের পরিবর্ত হিসেবে অন্তত একজন ওপেনারকে ইংল্যান্ডে (England) উড়িয়ে নিয়ে যাওয়ার দাবি জানায় টিম ম্যানেজমেন্ট। তাঁদের দাবি ছিল, পৃথ্বী শ’বা দেবদত্ত পাড়িক্কলের মধ্যে কাউকে ইংল্যান্ডে পাঠানো হোক। তাতেই প্রবল আপত্তি বিসিসিআইয়ের (BCCI)। নির্বাচকদের দাবি, গিল, রোহিত (Rohit Sharma) ছাড়াও ওপেনার হিসেবে ইংল্যান্ডে পাঠানো হয়েছে মায়াঙ্ক আগরওয়াল এবং লোকেশ রাহুলকে। প্রয়োজনে হনুমা বিহারীকেও ব্যবহার করা যেতে পারে ওপেনার হিসেবে। তাছাড়া রিজার্ভ ওপেনার হিসেবে সেই ঘরের মাঠে ইংল্যান্ড সিরিজ থেকেই দলের সঙ্গে আছেন অভিমন্যু ঈশ্বরণ। তাহলে অতিরিক্ত ক্রিকেটার কেন চাওয়া হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: ধোনির ৭ নম্বর জার্সি যেন আর কাউকে দেওয়া না হয়, BCCI-এর কাছে আরজি প্রাক্তন ক্রিকেটারের]

বোর্ডের প্রশ্ন, এই চোট আঘাতের ভয়েই তো ভারত ২৪ সদস্যের দল পাঠিয়েছে ইংল্যান্ডে। তাঁদের সঙ্গে কয়েকজন রিজার্ভ ক্রিকেটারকেও পাঠানো হয়েছে। তাহলে এখন নতুন করে ক্রিকেটার পাঠানোর প্রশ্ন উঠছে কেন? বিসিসিআইয়ের এক কর্তা সরাসরি টিমের ম্যানেজারের উদ্দেশে প্রশ্ন তুলে বলেছেন, টিমের ম্যানেজার যদি ক্রিকেটার চেয়ে বোর্ডের সচিব জয় শাহ (Jay Shah) বা বোর্ডের কার্যকারী CEO হেমাঙ্গ আমিনকে চিঠি লিখতেন, তাহলে এত জলঘোলা হত না। সেসব না করে সরাসরি নির্বাচক কমিটির চেয়ারম্যানকে ইমেল করেই গন্ডগোল পাকিয়েছেন তিনি। টিম ম্যানেজারের উচিত নিয়ম মেনে চলা। বিদেশ সফরে যখনই কোনও সমস্যা হয়, ম্যানেজারের উচিত সচিব বা CEO-কে জানানো। তবে, এখন টিম ম্যানেজমেন্টের উচিত বিরতির পর সিরিজে মনোনিবেশ করা। সার্বিকভাবে আপাতত বিষয়টি ইংল্যান্ড সিরিজের আগে ধামাচাপা পড়ে গেলেও, সিরিজ শেষে এ নিয়ে বোর্ডের অন্দরে যে উত্তাল পরিস্থিতি হবে, সেটা বলাই বাহুল্য।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement