২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

যোগ রয়েছে চিনা সংস্থার সঙ্গে, আইপিএলের নতুন স্পনসর নিয়ে আপত্তি বণিক সংগঠনের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: August 20, 2020 2:40 pm|    Updated: September 8, 2020 2:35 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আইপিএলের নতুন স্পনসর নিয়েও আপত্তি। বিসিসিআইকে চিঠি দিল বণিক সংগঠন কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স (CAIT)। তাঁদের সাফ কথা, Dream 11-কে স্পনসর হিসেবে ঘোষণা করে ঘুরপথে আসলে ভারতীয়দের আবেগ নিয়ে খেলা করছে বোর্ড। উল্লেখ্য, এই বণিক সংগঠনটি ভিভোকে স্পনসর হিসেবে রেখে দেওয়ার তীব্র বিরোধিতা করেছিল।

এক সর্বভারতীয় সংবাদমাদ্যমের দাবি অনুযায়ী, ২০১৮ সালে চিনের গেমিং সংস্থা টেনসেন্ট (Tencent) Dream 11-এ ১০ কোটি মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করেছে। তাৎপর্যপূর্ণভাবে সেবছরই ড্রিম ইলেভেনের বার্ষিক আয় একধাক্কায় বেড়ে যায় প্রায় ৩ গুণ। সেবছরই টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি এবং আইসিসির (ICC) সঙ্গে চুক্তি করে সংস্থাটি। বিগ ব্যাশ, প্রো-কাবাডি, এবং আন্তর্জাতিক হকি ফেডারেশনের সঙ্গেও সেবছরই চুক্তি হয়। এবার, ২২২ কোটি টাকার বিনিময়ে এই অনলাইন গেমিং সংস্থাটি আইপিএলের মতো মেগা টুর্নামেন্টের টাইটেল স্পনসর হয়ে গিয়েছে। আর সেখানেই আপত্তি সিএআইটির। তাঁদের দাবি, বিসিসিআই ঘুরপথে সেই চিনা সংস্থাকেই স্পনসরশিপ দিয়ে দিল।

[আরও পড়ুন: স্বপ্ন হল সত্যি, আইপিএলের স্কোরার হয়ে দুবাই পাড়ি দিচ্ছেন হুগলির মুদি দোকানের কর্মচারী]

উল্লেখ্য, গত জুনে লাদাখ সীমান্তে ভারত-চিন সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয় পরিস্থিতি। চিনা সেনার সঙ্গে সংঘর্ষে শহিদ হল ২০ জন ভারতীয় সেনা জওয়ান। তারপর থেকেই দেশজুড়ে চিনা পণ্য বয়কটের হিড়িক পড়েছে। ইতিমধ্যেই একগুচ্ছ চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করার কথা ঘোষণা করেছে কেন্দ্রও। এই পরিস্থিতির মধ্যেও বিসিসিআই প্রথমে জানিয়েছিল, চিনের মোবাইল প্রস্তুতকারী সংস্থা VIVO-কেই টাইটেল স্পনসর হিসেবে রেখে দেওয়া হবে। যা নিয়ে শুরু হয় তীব্র বিতর্ক। পরে পরিস্থিতি প্রতিকূল বুঝে নিজেরাই টুর্নামেন্ট থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয় ভিভো। পরিবর্তে স্পনসর হয় ড্রিম ইলেভেন। অথচ সেই সংস্থারও যোগ রয়েছে চিনের সঙ্গে। কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স এবারেও এর প্রতিবাদ করে বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে একটি চিঠি লেখেন। যে চিঠিতে বলা হয়েছে,” Dream 11-কে আইপিএলের স্পনসর হিসেবে বেছে নেওয়ায় আমরা বেদনাহত। কারণ, চিনের সংস্থা এর বড় অংশীদার। আমাদের স্পষ্ট মতামত, এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার অর্থ ঘুরপথে চিন-বিরোধী ভারতবাসীর আবেগে আঘাত করা।”

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement