০৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ২৫ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘দাদাই জয়ের অভ্যেসটা তৈরি করে দিয়েছে’, পিংক টেস্ট জিতে সৌরভের প্রশংসায় কোহলি

Published by: Sulaya Singha |    Posted: November 24, 2019 8:47 pm|    Updated: November 24, 2019 9:17 pm

Virat Kohli credits Sourav Ganguly for winning habit

ফাইল ছবি

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তাঁর হাত ধরেই বিদেশের মাটিতে টেস্টে দুর্দান্ত সাফল্য পেয়েছিল ভারত। তাঁর নেতৃত্বেই ২০০৩ বিশ্বকাপ ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে জোর লড়াই দিয়েছিল দল। হোঁচট খেয়েও সোজা হয়ে দাঁড়াতে শিখিয়েছিলেন তিনি। সেই সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ই তাই আজ আগামীর অনুপ্রেরণা হয়ে উঠতে পেরেছেন। ব্যাটসম্যান এবং অধিনায়ক হিসেবে দলকে নানা সাফল্য এনে দিয়েছেন। এবার বিসিসিআইয়ের সর্বোচ্চ মসনদে বসেও ইতিহাস রচনা করলেন। গোলাপি বলে দিন-রাতের টেস্ট করার সাহস দেখালেন তিনি। তাই বাংলাদেশকে হারিয়ে নজির গড়ার পর সৌরভের ভূয়সী প্রশংসা করলেন বিরাট কোহলি।

এদিন ম্যাচের শেষে অকপটে বলে দিলেন, “দাদার দলই জয়ের অভ্যেসটা তৈরি করে দিয়েছে। আমরা সেই ধারাটা এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি মাত্র। সোজা হয়ে দাঁড়িয়ে পালটা দিতে শিখেছি। গত তিন-চার বছরের কঠিন পরিশ্রমের পুরস্কার পাচ্ছি।” ক্যাপ্টেন কোহলি এও জানান, তিনি মনে মনে চেয়েছিলেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার উঠুক কোনও বোলারের হাতেই। বলেন, “আমি ভেবেছিলাম ম্যান অফ দ্য ম্যাচ হিসেবে আমার নাম ঘোষণা করা হলে আমি পুরস্কারটা কোনও বোলারের হাতে তুলে দেব।” শেষমেশ ইশান্ত শর্মাকে প্রথম পিংক টেস্টের সেরা ঘোষণা করা হয়। সিরিজ সেরাও হন তিনিই।

[আরও পড়ুন: ইডেনে স্মরণীয় হয়ে রইল প্রথম পিংক বল টেস্ট, তৈরি হল একডজন রেকর্ড]

তবে কোহলির মুখে সৌরভের প্রশংসা শুনে অধিনায়ককে খোঁচা দিতে ছাড়লেন না সুনীল গাভাসকর। বেশ কটাক্ষের সুরেই কিংবদন্তি ভারতীয় ব্যাটসম্যান বলেন, “আমি জানি, দাদা এখন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট। তাই ওঁর নামে ভাল ভাল কথা বলতেই হবে। আজ একজনের মনে হচ্ছে ১৯৯৪-৯৫ বা ২০০০ সালে ভারতের ক্রিকেট রাজ শুরু হয়েছে। কিন্তু বিরাট ১৯৮৮ সালে জন্মেছে। ও হয়তো জানে না ৭০ ও ৮০-র দশকেও ভারত জিতেছে কিংবা ড্র করেছে।” যদিও এ নিয়ে কোহলির কোনও প্রতিক্রিয়া এখনও পাওয়া যায়নি।

এদিকে সুষ্ঠভাবে প্রথম পিংক টেস্ট ম্যাচ আয়োজন করতে পেরে খুশি সৌরভও। বলছিলেন, “অত্যন্ত সন্তুষ্ট ও খুশি। টেস্ট ক্রিকেটের স্বার্থেই এটা করতে চেয়েছিলাম। দর্শকরা টেস্ট দেখতে মাঠে আসছিলেন না। ম্যাচের আগে নানাভাবে প্রচার করেছিলাম আমরা। চারদিনের টিকিট বিক্রি হয়ে গিয়েছিল। আমার মনে হয়, শুধু ইডেন নয়, ভারতের যে প্রান্তেই টেস্ট হবে, এবার এভাবেই গ্যালারি ভরাবেন সমর্থকরা।” এই ম্যাচ খেলতে রাজি হওয়ার জন্য বাংলাদেশকেও ধন্যবাদ জানান দাদা। সেই সঙ্গে আগামী বছর মার্চে বাংলাদেশের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন বলেও জানান তিনি। ঢাকায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড আয়োজিত বিশ্ব ও এশিয়া একাদশের মধ্যে টি-টোয়েন্টি ম্যাচে উপস্থিত থাকবেন সৌরভ। পিংক টেস্টের হাত ধরে দুই প্রতিবেশী দেশের সম্পর্ক যে আরও মজবুত হল, তা বলাই বাহুল্য।

[আরও পড়ুন: গোলাপি টেস্টে ইতিহাস ভারতের, বিরাটদের সামনে অসহায় আত্মসমর্পণ বাংলাদেশের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে