BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

অতিরিক্ত সময়ের গোলে শেষ আটে পর্তুগাল

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 26, 2016 9:46 am|    Updated: June 26, 2016 9:46 am

An Images

পর্তুগাল – ১ (কারেসমা)    ক্রোয়েশিয়া – ০ 

মনোরঞ্জন ভট্টাচার্য: এই ক’দিনে যেখানেই গিয়েছি, একটা প্রশ্ন বারবার শুনতে হয়েছে৷ কেন ইউরোতে কোপার মতো গোল হচ্ছে না৷ লক্ষ করলে দেখা যাবে ইউরোপের বিভিন্ন লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা মুলার, মানজুকিচরা গোলের খাতাই খুলতে পারেনি৷ ইউরোপের কোচরা কতটা সেফ ফুটবল খেলছেন, তা বোঝা যায় ছোট্ট একটি তথ্যে৷ এবারের ইউরো-তে কোনও দেশ তিন গোল করেছে মাত্র চারটি ম্যাচে৷ যার মধ্যে হাঙ্গেরি-পর্তুগাল ম্যাচ ৩-৩৷ কোনও ম্যাচেই চার গোল হয়নি৷ সেখানে কোপায় সাত গোলও হয়েছে৷ আসলে দু’টো মহাদেশে খেলা হয় একেবারে অন্য ঘরানায়৷ ইউরোপের কোচেরা ডিফেন্স বুনোট করে আক্রমণে যাওয়ায় বিশ্বাসী৷ সঙ্গে অবশ্যই কড়া নজরে থাকে প্রতিপক্ষের সেরা গেমমেকার, গোলগেটাররা৷

একদম এটাই হল শনিবারের ম্যাচে৷ দুই দল এতটাই রক্ষণাত্মক থাকল যে, গোটা ম্যাচে খোলস ছেড়েই বার হল না৷ নির্ধারিত সময়ে ক্রোয়েশিয়া বা পর্তুগাল কেউই গোল লক্ষ্য করে কোনও শট নেওয়ার তাগিদটাই দেখাল না৷ এই ধরনের ম্যাচ উতরে দিতে প্রয়োজন হয় ব্যক্তিগত নৈপুণ্য৷ সেটাও করতে পারলেন না রোনাল্ডো, নানি, মানজুকিচ, পেরিসিচরা৷

goal_web

গোটা দুনিয়ার কোটি কোটি ফুটবলপ্রেমী টিভির সামনে বসে ছিলেন রোনাল্ডো ম্যাজিক দেখার জন্য৷ কিন্তু সেই আশা পূরণ করতে ব্যর্থ হলেন পর্তুগালের অধিনায়ক৷ আসলে সিআর সেভেনকে সবসময় কড়া নজরে রেখেছিলেন বিপক্ষের ডিফেন্ডাররা৷ নিজে বা দল গোল না পেলে রোনাল্ডো পাগলের মতো ছটফট করেন৷ তবে এদিন কিছুই হল না৷ রোনাল্ডো, নানির মতো এত অভিজ্ঞ ফুটবলার থাকা সত্ত্বেও কেন তুলনামূলকভাবে বেশি আক্রমণে আসতে দেখা গেল ক্রোয়েশিয়াকে? দ্বিতীয়ার্ধে স্যানচেজ আসার পর তাও মাঝমাঠ কিছুটা ধরতে পারল পতুর্গাল৷ গোলটা হওয়ার পিছনে ওঁর অবদানই সবথেকে বেশি৷ ক্রোয়েশিয়ার আক্রমণ থেকে কাউন্টারে যাওয়ার পথে অনেকটা দৌড়লেন৷ বলটা রাখলেন দারুণ জায়গায়৷ গোটা ম্যাচে একবারই চেনা ছন্দে পাওয়া গেল রোনাল্ডোকে৷ ঠিক সময়ে ঠিক জায়গায় পৌঁছে গিয়ে গোলটা বকলমে করল রিয়াল স্ট্রাইকারই৷

দুই কোচের কেউ নিজেদের অ্যাটাকিং থার্ডে লোক বাড়াল না৷ উল্টে বেশিরভাগ সময়ই ডিফেন্স করে গেল৷ গোটা ম্যাচে একটাও ভাল অফ দ্য বল মুভ করল না কোনও দল৷ আর তাই সবথেকে আরামে দিনটা কাটালেন দুই দলের গোলরক্ষক৷ ইন্টারনেটে দেখলাম মারাদোনাও নাকি বলেছে অতিরিক্ত রোনাল্ডো-নির্ভর হওয়াই কাল ডেকে আনছে পর্তুগালের৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement