১৬ চৈত্র  ১৪২৬  সোমবার ৩০ মার্চ ২০২০ 

Advertisement

ভারতীয় ফুটবলে ইতিহাস, ইউরোপের প্রথম ডিভিশনের ক্লাবে সই মহিলা দলের অধিনায়কের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: January 30, 2020 12:29 pm|    Updated: January 30, 2020 1:25 pm

An Images

স্টাফ রিপোর্টার: ভারতীয় ফুটবলে ইতিহাস তৈরি করলেন জাতীয় মহিলা দলের অধিনায়ক বালা দেবী (Bala Devi)। প্রথম মহিলা পেশাদার ফুটবলার হিসাবে স্কটিশ ক্লাব ‘রেঞ্জার্সে’ সই করলেন এই মণিপুরি ফুটবলার।

Bala

২০১০ থেকে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে এখনও পর্যন্ত ৫৮ ম্যাচ খেলে ৫২টি গোল করেছেন ভারতীয় দলের এই স্ট্রাইকার। শুধু ভারতীয় দলের সর্বোচ্চ গোলদাতাই নন, দক্ষিণ এশিয়ারও সর্বোচ্চ গোলদাতাও তিনি। শেষ দু’মরশুমে ভারতের জাতীয় মহিলা লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতাও ছিলেন বালা দেবী। দু’বার হয়েছেন ফেডারেশনের বর্ষসেরা ভারতীয় ফুটবলার। এবার চললেন সর্বোচ্চ পর্যায়ের ফুটবলে নিজের যোগ্যতা প্রমাণ করতে। নভেম্বরে রেঞ্জার্সে এক সপ্তাহ ট্রায়াল দিয়েই ফিরে এসেছিলেন তিনি। যার মধ্যে একটি প্র‌্যাকটিস ম্যাচও খেলেছিলেন ভারতীয় মহিলা দলের এই স্ট্রাইকার। এদিন রেঞ্জার্সের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ১৮ মাসের জন্য ভারতীয় এই স্ট্রাইকারকে চুক্তি করাচ্ছেন তারা।

[আরও পড়ুন: শেষ মুহূর্তে বলবন্তের দুর্দান্ত গোল, নর্থ-ইস্টকে হারিয়ে লিগ শীর্ষে এটিকে]

বালা দেবীর সঙ্গে চুক্তি নিয়ে রেঞ্জার্স (Rangers W.F.C.) কর্তৃপক্ষ যতটা সহজে জানাচ্ছেন, ব্যাপারটা ততটা সহজ ছিল না। ভারতীয় দলের ফিফা র‌্যাঙ্কিং যেহেতু অনেক কম, তাই স্কটিশ মহিলা লিগে ওয়ার্ক পারমিট পাওয়া খুব একটা সহজ ছিল না ভারতীয় দলের স্ট্রাইকারের। রেঞ্জার্সের হয়ে খেলার জন্য ওয়ার্ক পারমিট চেয়ে বিশেষ অনুমতি চান তিনি। ওয়ার্ক পারমিট পাওয়ার পরেই চুক্তির কথা ঘোষণা করে রেঞ্জার্স কর্তৃপক্ষ। এদিন চুক্তির পর বালা দেবী বলেন, “সত্যি বলতে কি, ইউরোপের অন্যতম সেরা ক্লাবে খেলার সুযোগ পাব, কোনওদিন ভাবতেও পারিনি। আমার এই সুযোগের পর আশা করব, অনেক মহিলাই ফুটবল খেলার জন্য আগ্রহ দেখাবে। অপেক্ষায় রয়েছি, উন্নতমানের পরিকাঠামো এবং কোচিং স্টাফের কাছে প্র‌্যাকটিসের সুযোগের জন্য।” রেঞ্জার্সে খেলার জন্য সোমবারই স্কটল্যান্ড উড়ে যাচ্ছেন বালা দেবী। ভারতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক সুনীল ছেত্রী বালা দেবীর সাফল্য সম্পর্কে বলেন, “তুমি যেখানে যাচ্ছ, সেখানে এর আগে আর কোনও মহিলা ফুটবলার যেতে পারেনি। আমাদের সকলের স্বপ্ন তুমি নিয়ে যাচ্ছ। তোমাকে নিয়ে আমাদের গর্বিত হওয়ার সুযোগ দাও বালা।”

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement