৫ আশ্বিন  ১৪২৬  সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যুবভারতীতে আজ এল ক্লাসিকোর ছোঁয়া। মরশুমের প্রথম ডার্বিতে আজ তিকিতাকার অপেক্ষায় বাংলার দর্শকরা। সুপার সানডেতে ৬০ হাজারের যুবভারতী কানায় কানায় পূর্ণ থাকবে। কিন্তু মাঠে বল গড়ানোর আগেই ক্ষুব্ধ অনেক সমর্থক।

[আরও পড়ুন: জানলা খুলেই তিন যুবতীর সঙ্গে উদ্দাম যৌনতা ওয়ার্নের, ঘুম উড়ল প্রতিবেশীদের]

কারণটা টিকিট। আইএফএ-র তরফে আগেই বলা হয়েছিল ঘরোয়া লিগের ডার্বির সব টিকিট শেষ। ফলে অন্যান্যবারের মতো এবারও টিকিটের হাহাকার ময়দানজুড়ে। ফলে দুই স্প্যানিশ কোচের লড়াই দেখার সুযোগ হাতছাড়া হচ্ছে অনেকেরই। আর এমন পরিস্থিতিতে উঠল টিকিটের কালোবাজারির অভিযোগ। সল্টলেক স্টেডিয়ামের বাইরে এবং ময়দানে অনেকেই অতিরিক্ত দামে টিকিট বিক্রি করছে বলে অভিযোগ। আর খেলা দেখার অদম্য ইচ্ছায় বেশি দাম দিয়েই টিকিট কিনে ফেলছেন সমর্থকরা। কিন্তু ডার্বি ঘিরে এমন কালোবাজারি মেনে নিতে পারছেন না কেউই। যদিও বিষয়টি নিয়ে এখনও কোনও লিখিত অভিযোগ দায়ের হওয়ার খবর মেলেনি। তবে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন, যেখানে ডার্বি ঘিরে এমন আঁটসাট নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে, সেখানে কীভাবে স্টেডিয়ামের বাইরে এমন কালোবাজারির ঘটনা ঘটে?

[আরও পড়ুন: বুমরাহর হ্যাট্রিক-বিহারীর সেঞ্চুরি, দ্বিতীয় টেস্টেও চালকের আসনে ভারত]

প্রথমবার মোহনবাগান-ইস্টবেঙ্গল বড় ম্যাচকে ‘ক্লাসিক ডার্বি‘র তকমা দিয়েছে ফিফা। যে ম্যাচে নানা চমকের অপেক্ষায় রয়েছেন দর্শকরা। মাঠে উপস্থিত প্রত্যেক সমর্থকের জন্য এবার বিমার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সঙ্গে সোনার কয়েন দিয়ে টসেরও সাক্ষী থাকবেন দর্শকরা। বিধাননগর ডিসি হেড কোয়ার্টারের তরফে জানানো হয়েছে, ফোন এবং ওয়ালেট নিয়ে স্টেডিয়ামে প্রবেশ করা যাবে। পতাকা নিয়েও ঢোকা যাবে, শুধু তাতে কোনও লাঠি থাকলে চলবে না। ডার্বির জন্য দু’হাজার অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। সিসিটিভি ক্যামেরাতেও চলবে নজরদারি। এছাড়া সমর্থকরা যাতে সুষ্ঠভাবে বাড়ি ফিরতে পারেন, তার জন্য অতিরিক্ত বাস পরিষেবাও দেওয়া হবে। সবমিলিয়ে ডার্বির জন্য প্রস্তুত তিলোত্তমা। এবার শুধু রেফারির বাঁশি বাজার অপেক্ষা।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং