BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

কোয়েসের সঙ্গে বিবাদে ইতি! অবশেষে ফুটবলারদের চুক্তিপত্র পাঠাচ্ছে ইস্টবেঙ্গল

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: June 11, 2020 5:05 pm|    Updated: June 11, 2020 5:05 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অবশেষে কোয়েসের সঙ্গে সব বিবাদ মিটিয়ে ফেলল ইস্টবেঙ্গল (East Bengal)! ‘স্পোর্টিং রাইটস’ হাতে আসতেই ফুটবলারদের চুক্তিপত্র পাঠানো শুরু করে দিল লাল-হলুদ শিবির। ক্লাব সূত্রের খবর, বুধবার থেকেই এ বছর নতুন সই করা ২০ জন ফুটবলারের কাছে চুক্তিপত্র পাঠানোর কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। অনেকেই নতুন চুক্তির কপি হাতে পেয়ে গিয়েছেন। লকডাউন হওয়ায় ইমেলের মাধ্যমে চুক্তিপত্র পাঠানো হচ্ছে। 

Quess-East-Bengal_new
কোয়েসের সঙ্গে সম্পর্ক ছেদ ইস্টবেঙ্গলের

ক্লাবে স্পনসর নেই। নতুন মরশুমে ইস্টবেঙ্গল কোন লিগে খেলবে তাও ঠিক হয়নি এখনও। তবু নতুন মরশুমের আগে দলবদলের বাজারে সম্ভবত সবথেকে বেশি সক্রিয় ছিল লাল-হলুদ শিবির। নয় নয় করে আগামী মরশুমের জন্য ২০ জন ফুটবলারকে সই করিয়েছে ইস্টবেঙ্গল। যা লাল-হলুদ সমর্থকদের মুখে হাসি ফুটিয়েছিল। কিন্তু সমস্যা ছিল অন্য জায়গায়, ফুটবলার সই করালেও এতদিন তাঁদের সরকারি চুক্তিপত্র দিতে পারেনি লাল-হলুদ শিবির। কারণ, ১ জুন পর্যন্ত ক্লাবের ‘স্পোর্টিং রাইটস’ ছিল স্পনসর কোয়েস কর্পের দখলে। ফলে চাইলেও ইস্টবেঙ্গল কর্তারা ফুটবলারদের সঙ্গে সরকারি চুক্তি করতে পারছিলেন না। সূত্রের খবর, বলবন্ত, রিনো অ্যান্টো (Rino Anto), শেহনাজ সিং থেকে শুরু করে বিকাশ জাইরু, চুলোভা প্রত্যেক ফুটবলারের সঙ্গে ইস্টবেঙ্গলের প্রাথমিক চুক্তি হয় ক্লাবের ‘লেটারহেডে’। সেখানে ফুটবলারদের সই থাকলেও, ক্লাবের তরফে কোনও প্রতিনিধির সই ছিল না। চুক্তির সময় ফুটবলারদের জানানো হয়েছিল, ১ জুন কোয়েসের (Quess Corp) থেকে ‘স্পোর্টিং রাইটস’ চলে আসবে ক্লাবের কাছে। তাই ১ জুনের পর ফের নতুন ভাবে চুক্তিপত্র তৈরি করে ফুটবলারদের কাছে তাঁদের কপি পাঠিয়ে দেওয়া হবে। কিন্তু কোনও এক অজ্ঞাত কারণে জুন মাসের প্রথম সপ্তাহে সেটাও করতে পারেনি ইস্টবেঙ্গল কর্তারা। যা ফুটবলারদের মধ্যে উদ্বেগের সৃষ্টি করছিল। ক্লাবের ভবিষ্যৎ নিয়েও নানারকম জল্পনা-কল্পনাও ছড়াচ্ছিল সমর্থকদের মধ্যে।

East-Bengal-Win

[আরও পড়ুন: কবে শুরু হচ্ছে ভারতীয় ফুটবলের নতুন মরশুম? জানিয়ে দিল ফেডারেশন]

অবশেষে সেই যাবতীয় জল্পনা-কল্পনা এবং বিবাদের অবসান ঘটিয়ে ফুটবলারদের সরকারি চুক্তিপত্র দেওয়া শুরু করল লাল-হলুদ শিবির। ক্লাব সূত্রের দাবি, কোনওরকম বিবাদের জন্য নয়, লকডাউনের জন্যই ফুটবলারদের চুক্তিপত্র দিতে দেরি হয়েছে। চুক্তি সমস্যা মেটার পর এবার লাল-হলুদ শিবিরের লক্ষ্য, নতুন স্পনসর জোগাড় করে আগামী মরশুমে আইএসএলে খেলা। এ নিয়ে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে ইস্টবেঙ্গলের এক কর্তা বলছেন,”সংবাদমাধ্যমের একটা অংশ অসৎ উদ্দেশ্যে ক্লাব সম্পর্কে ভুল তথ্য ছড়াচ্ছে। এরা ভারতীয় ফুটবলটাকে শেষ করে দিতে চায়। আমাদের বিশ্বজুড়ে চার কোটি সমর্থক। সব সমস্যা মিটে যাবে।”

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement