BREAKING NEWS

২৩ শ্রাবণ  ১৪২৭  রবিবার ৯ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

শেষ মুহূর্তের গোলে জয়, ডার্বির আগে অক্সিজেন পেল ইস্টবেঙ্গল

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: December 14, 2019 6:59 pm|    Updated: December 14, 2019 6:59 pm

An Images

ইস্টবেঙ্গল: ২ (মার্কোস, ক্রেসপি)
ট্রাউ এফসি: ১ (দীপক)

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আই লিগের প্রথম ডার্বির আগে অক্সিজেন পেয়ে গেল ইস্টবেঙ্গল। ঘরের মাঠে ট্রাউ এফসির বিরুদ্ধে শেষ মুহূর্তে জয় ছিনিয়ে নিল লাল-হলুদ বাহিনী। প্রথমার্ধের শুরুর দিকে এগিয়ে গিয়েও, একসময় জয় নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছিল ইস্টবেঙ্গলের। কিন্তু, শেষ মুহূর্তে গোল করে যাবতীয় সংশয় দূর করেন ক্রেসপি।

দিনকয়েক আগেই ট্রাউ এফসিকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে মোহনবাগান। এই দলটি খাতায় কলমে এই মরশুমে আই লিগের সবচেয়ে দুর্বল দল। কোনওক্রমে দল গড়েছেন কর্তারা। তার উপর আবার এদিন ছিলেন না কোচ। এফসির যে লাইসেন্স থাকলে আই লিগে কোচিং করানো যায়, তা নাকি ট্রাউ এফসির কোচ ডগলাসের নেই। আপাতত, ট্রাউয়ের তরফে ফেডারেশনের কাছে আবেদন নিবেদন চলছে। এত প্রতিকূলতার মধ্যেও দুর্দান্ত লড়াই দিয়েছে আই লিগের নবীনতম দল। যার ফলে সহজ ম্যাচটি জিততেও বেশ বেগ পেতে হল আলেজান্দ্র বাহিনীকে। কোলাডোর অভাব হাড়েহাড়ে টের পেলেন কোচ।

[আরও পড়ুন: আজ ট্রাউয়ের কোচের আসনে নেই ডগলাস, কোলাডোকে ছাড়াই জিততে প্রস্তুত ইস্টবেঙ্গল]

এদিন ম্যাচের শুরুটা ভালই করে লাল-হলুদ শিবির। দলের প্রধান অস্ত্র কোলাডো না থাকায় গঞ্জালেজ, মার্কোস, ক্রেসপিদের উপর ভরসা রাখেন কোচ আলেজান্দ্রো। ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলে ইস্টবেঙ্গল। মাত্র ১৭ মিনিটেই ম্যাচের প্রথম গোলটি তুলে নেয় লাল-হলুদ শিবির। গোলটি করেন মার্কোস। কিন্তু, প্রথমার্থের খেলা শেষ হওয়ার ঠিক আগে গোল শোধ করে সমতা ফেরান ট্রাউ এফসির দীপক দেবরানি। দ্বিতীয়ার্ধের খেলা হয় সমানে-সমানে। ইস্টবেঙ্গলকে এক ইঞ্চিও জমি ছাড়েনি ট্রাউ। একের পর আক্রমণ প্রতিহত করেছে তাঁরা। যদিও, সেই প্রতিরোধ শেষ পর্যন্ত থাকেনি। শেষ মুহূর্তে গোল করে ইস্টবেঙ্গলের জয় নিশ্চিত করে ক্রেসপি।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement