BREAKING NEWS

২০ শ্রাবণ  ১৪২৭  বুধবার ৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

আজ কল্যাণীতে রিয়াল কাশ্মীরের বিরুদ্ধে আই লিগ অভিযান শুরু ইস্টবেঙ্গলের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: December 4, 2019 10:49 am|    Updated: December 4, 2019 10:49 am

An Images

স্টাফ রিপোর্টার: প্রস্তুতি শেষ। বুধবার আই লিগ অভিযান শুরু করছে ইস্টবেঙ্গল। প্রতিপক্ষ রিয়াল কাশ্মীর। রিয়ালের বিরুদ্ধে খেলতে নামার আগে ইস্টবেঙ্গল কোচ আলেজান্দ্রোর সমস্যা, বোরহা এবং ডিকার মতো ফুটবলারকে চোটের জন্য পাওয়া যাচ্ছে না। দু’জনেই রিহ্যাবে আছেন। ডার্বির আগে ওঁদের সম্ভবত পাওয়া যাবে না।

প্রথম ম্যাচ। তার উপর প্রতিপক্ষ রিয়াল কাশ্মীর। আলেজান্দ্রো মনে করছেন, এই মরশুমেও চ্যাম্পিয়নশিপে থাকার যোগ্য দাবিদার রিয়াল। তাদের বিরুদ্ধে ম্যাচটা জিতে আই লিগ শুরু করতে চাইছেন তিনি। মঙ্গলবার সকালে প্র‌্যাকটিসে তাই ফরোয়ার্ড লাইনকে আলাদা করে সময় দিলেন। মাঠকে ছোট করে প্রতিপক্ষর ডিফেন্স লাইন ভাঙতে ফরোয়ার্ডদের নানা টিপস দিলেন। তবে দলে তেমন চমক নেই। প্রস্তুতি ম্যাচে জামশেদপুর এফসির বিরুদ্ধে যাঁরা খেলেছিলেন, তাঁরাই সম্ভবত খেলা শুরু করবেন।

[আরও পড়ুন: প্রকাশিত ইউরো কাপের সূচি, নজর কাড়বে গ্রুপ অফ ডেথের লড়াই]

এসব প্রস্তুতির মাঝেও চিন্তা স্ট্রাইকার মার্কোসকে নিয়ে। কলকাতা লিগ থেকে তাঁর গোল নেই। যদিও আলেজান্দ্রো মনে করছেন, এই জায়গা থেকে মার্কোস ঠিক বেরিয়ে আসবে। গোলও পাবেন। আই লিগ অভিযানের প্রথম ম্যাচ বলে লাল-হলুদ সমর্থকদের উত্তেজনা তুঙ্গে। তাদের কথা ভেবে ক্লাব কর্তারা ব্যাগ, জলের বোতল, হেলমেট রাখার জন্য অস্থায়ী কাউন্টারের ব্যবস্থা করেছেন। তার জন্য টাকা-পয়সা দিতে হবে না।

[আরও পড়ুন: ভরা যুবভারতীতে রুদ্ধশ্বাস লড়াই, শেষ মুহূর্তের গোলে হার বাঁচাল এটিকে]

যুবভারতীতে ম্যাচ চলাকালীন লাল-হলুদ গ্যালারির ছবি অন্যরকম করতে সমর্থকরা মাঠে ড্রাম নিয়ে প্রবেশ করতে চাইলেও সম্ভব ছিল না। সমর্থকরা আবেদন করলেও সমস্যার সমাধান হয়নি। তাদের ইচ্ছার কথা ভেবে কল্যাণী স্টেডিয়ামে যাতে ড্রাম নিয়ে প্রবেশ করা যায়, তার ব্যবস্থা করেছে ইস্টবেঙ্গল। ড্রাম নিয়ে গ্যালারিতে প্রবেশ করার আগে সংগঠরকদের থেকে নির্দ্দিষ্ট কার্ড নিতে হবে। সমর্থকদের উৎসাহ দেখে ইস্টবেঙ্গল কোচ আলেজান্দ্রো বারবার সমর্থকদের কথা বলছেন। তিনি চান, প্রথম ম্যাচ থেকেই যেন মাঠের বাইরে সমর্থকদের বিপুল সমর্থন পাওয়া যায়। তবে ক্লাব সদস্যরা অন্য কারণে সমস্যায়। ক্লাবের সদস্য কার্ড রিনিউ করা সমর্থকের সংখ্যা প্রায় ৮ হাজার। অথচ বিনিয়োগকারী কোয়েসের তরফ থেকে ক্লাবে টিকিট পাঠানো হয়েছে দেড় হাজার। বাকি সাড়ে ছ’হাজার সমর্থক কোথায় যাবেন? ক্লাব থেকে এ নিয়ে প্রতিবাদ করে চিঠি পাঠানো হয়েছিল বিনিয়োগকারী সংস্থার কাছে। চিঠির উত্তরে তারা জানান, কল্যাণী স্টেডিয়ামে সমর্থকদের আসন সংখ্যা কম। তাই সবাইকে টিকিট দেওয়া যাচ্ছে না। ডার্বিতে তাদের কথা ভাবা হবে। কোয়েসের সিদ্ধান্তে খুশি হতে পারছেন না লাল-হলুদ সদস্যরা। কিন্তু এখন কিছু করার নেই। এটাই মেনে নিতে হচ্ছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement