১২ আষাঢ়  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২৭ জুন ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আগ্রহ দেখিয়েছিলেন স্বেন গোরান এরিকসন। অর্থাৎ, ডেভিড বেকহ্যামদের কোচ। কিন্তু, শেষ পর্যন্ত আবেদন করেননি। আর এবার ভারতীয় ফুটবল দলের কোচের পদে সরাসরি আবেদনই করে বসলেন ফ্রান্সের ডাকসাইটে কোচ রেমন্ড দমেনেখ। ২০০৬ বিশ্বকাপে রানার্স ফরাসি দলের কোচ। যে বিশ্বকাপ ফাইনালে জিদানের সেই ঢুঁসোর জেরে ফ্রান্স বিশ্বকাপ ট্রফিটা পুরো মাঠেই ফেলে এসেছিল।
জিদানদের কোচ দমেনেখ পরের বিশ্বকাপেও (২০১০) ফ্রান্সের দায়িত্বে ছিলেন। কিন্তু, সেবার সাফল্যের চেয়ে ফরাসি দলে গন্ডগোলের খবরই গোটা দুনিয়ায় বেশি ছড়িয়েছিল। অর্থাৎ দু’টো বিশ্বকাপে ফরাসি দলকে মূলপর্বে খেলালেও (তার মধ্যে একটা ফাইনাল) দু’টোতেই প্রবল বিতর্ক জড়িয়ে ছিল ফরাসি দলে।

ইউরোপের অন্যতম সেরা কোচের ব্যাজ দমেনেখের পোশাকে থাকলেও, বিতর্কও তাঁর বরাবরের সঙ্গী। ভুল কথা ভুল জায়গায় বলার বদভ্যাস তাঁর আছে। যার জেরেই ওই ২০১০-এর বিশ্বকাপে ফরাসি দলে গন্ডগোল। নিকোলাস আনেলকাকে দল থেকে বের করে দেওয়ার জেরে ফরাসি ফুটবলাররা তাঁর বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করে বসেন। যার জেরে বিশ্বকাপের পরই চাকরি যায় দমেনেখের। তারপর দীর্ঘদিন কোচিংয়ের সঙ্গে যোগাযোগ রাখেননি। ২০১৬ থেকে ফ্রান্সেরই ব্রিটানি ফুটবল ক্লাবের সঙ্গে যুক্ত। ভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের তরফে স্বীকার করা হয়েছে, দমেনেখের আবেদনের কথা। এটা পরিষ্কার নয়, তিনি কোনও এজেন্ট মারফত আবেদন করেছেন নাকি সরাসরি। তবে এখনই এই নিয়ে হইচই করতে চায় না ফেডারেশন। কারণ, ডমেনেখ গত বছর ক্যামেরুনের জাতীয় দলের কোচের জন্য আবেদন করেছিলেন। কিন্তু, তাঁকে টপকে নেদারল্যান্ডসের ক্লারেন্স সিডর্ফ কোচ হন। অর্থাৎ, যতই নামী কোচ হন, দমেনেখকে কোচ করে আনার ব্যাপারে সব দলই সাবধানে চলার পথে হাঁটছে এখন।

[আরও পড়ুন: আর্সেনালের ওজিলের সঙ্গে কী করছেন শাহরুখ? কৌতূহলী নেটদুনিয়া]

ফেডারেশন সূত্রের খবর, আবেদনকারী কোচেদের মধ্যে থেকে প্রাথমিক একটা সম্ভাব্য তালিকা তৈরি করা হবে এ মাসের শেষে। তাতে উয়েফা লাইসেন্স, প্রাক্তন অভিজ্ঞতা ইত্যাদি সব খতিয়ে দেখা হবে। তাতে দমেনেখ এগিয়ে এমনটা এক কথায় বলা যায় না। ভারতে কোচিং করার অভিজ্ঞতা আছে এমন বেশ ক’জন আছেন আবেদনকারীদের তালিকায়। যেমন আন্তনিও হাবাস (প্রাক্তন এটিকে কোচ) বা সিজার ফারিয়া (প্রাক্তন ভেনেজুয়েলা জাতীয় দল এবং নর্থইস্ট ইউনাইটেডের কোচ)। এছাড়াও বেঙ্গালুরু এফসির কোচ অ্যালবার্ট রোকাও নাকি জাতীয় দলের জন্য আবেদন করেছেন। তবে শেষ পর্যন্ত ফেডারেশন যাঁর ব্যাপারেই সিদ্ধান্ত নিক, ভারতের জাতীয় দলের জন্য দমেনেখের মতো ইউরোপ সেরা কোচের আগ্রহী হওয়া অবশ্যই নজর কাড়ার মতো বিষয়।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং