৪ ফাল্গুন  ১৪২৬  সোমবার ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo দিল্লি ২০২০ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

স্টাফ রিপোর্টার: ইস্টবেঙ্গল জার্সি গায়ে চাপানো প্রায় নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু রবিবার নাটকীয় ছন্দপতন। ইস্টবেঙ্গল নয়। মালয়েশিয়া লিগে খেলতে চললেন সোনি নর্ডি। ভারতীয় সময় রবিবার ভোররাতে শেষবারের মতো ইস্টবেঙ্গলের সঙ্গে কথা বলার পর মালয়েশিয়াতে খেলার সিদ্ধান্ত নিলেন সোনি।

সোনি ইস্টবেঙ্গলে যাচ্ছেন, শনিবার মাঝরাতেই ছড়িয়ে পড়ে খবরটা। মোহনবাগান সমর্থকদের একের পর এক মেসেজ যেতে থাকে সোনির কাছে। বোঝানো শুরু হয়, পৃথিবীর যেখানে খুশি খেলুন। কিন্তু কোনওভাবেই ইস্টবেঙ্গলে নয়। এরপরেই আসরে নামেন দুবাইতে থাকা সোনির এক শুভানুধ্যায়ী। মিয়ামির সঙ্গে সময় পার্থক্যে ভারতে তখন রবিবার ভোররাত। সোনি জানান, ইস্টবেঙ্গল কর্তারা ডার্বির আগেই কলকাতায় চলে যেতে বলছেন। মাসিক ১৮ হাজার ডলার ছাড়াও ইনসেনটিভ। দুবাইয়ে থাকা সোনির শুভানুধ্যায়ী বোঝান, মোহনবাগান সমর্থকদের কাছে সোনির যে জায়গা রয়েছে, ইস্টবেঙ্গলে গেলে সেই জায়গা নষ্ট হয়ে যাবে। তাই একটা মরশুমের জন্য ইস্টবেঙ্গলে যাওয়া ঠিক হবে না। তার উপর প্রথম ম্যাচটাই যখন মোহনবাগানের বিরুদ্ধে।

[আরও পড়ুন: ফিরলেন রোহিত, নিউজিল্যান্ডে টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য দল ঘোষণা বিসিসিআইয়ের]

হাইতি স্ট্রাইকারটি জানান, ভারতের তিনটি ক্লাব ছাড়াও মালেয়িশয়ার ক্লাব তাঁকে নিতে চাইছে। এরপরেই মালয়েশিয়ার ক্লাবটির সঙ্গে যোগাযোগ করেন সোনি। সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য ইস্টবেঙ্গল কর্তাদের কাছে কিছুক্ষণ সময় চেয়ে নেন। রবিবার সকালে ইস্টবেঙ্গল কর্তাদের জানিয়ে দেন, তাঁর পক্ষে ইস্টবেঙ্গলে সই করা সম্ভব হচ্ছে না। মালেয়েশিয়া লিগে খেলতে যাচ্ছেন তিনি। সোনির থেকে সম্মতি না পেয়েই কোয়েস কর্তারা প্রেস রিলিজ দিয়ে জানিয়ে দেন, সোনির সঙ্গে কোনওরকম যোগাযোগ করা হয়নি। কোচ আলেজান্দ্রোর নিজের ফুটবলারদের উপর পূর্ণ ভরসা রয়েছে। সেই প্রেস রিলিজ দেখে সোনি নিজেও হেসে ফেলেন। বলেন, “আমার কাছে ইস্টবেঙ্গল কর্তাদের করা হোয়াটসঅ্যাপের পুরো বক্তব্য রয়েছে।”

এদিকে, বুধবার ঘরের মাঠে গোকুলাম ম্যাচ নিয়ে এখন মারাত্মক সিরিয়াস ইস্টবেঙ্গল। এমনিতে লিগ টেবিলে কিছুটা পিছিয়ে পড়তে হয়েছে, তার উপর বুধবার গোকুলামকে হারাতে না পারলে, লিগ চ্যাম্পিয়নশিপের দৌড়ে আরও ব্যাকফুটে চলে যাবে। ফলে গোকুলামকে হারিয়ে ফের ঘুরে দাঁড়াতে চাইছে ইস্টবেঙ্গল শিবির।

[আরও পড়ুন: বিসিসিআইয়ের বর্ষসেরার মঞ্চে জোড়া পুরস্কার বুমরাহর, সম্মানিত শ্রীকান্ত-অঞ্জুম চোপড়া]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং