১১ ফাল্গুন  ১৪২৬  সোমবার ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

স্টাফ রিপোর্টার: চলতি আই লিগে এই প্রথম কোচ আলেজান্দ্রোকে ছাড়া খেলতে নামছে ইস্টবেঙ্গল। প্রতিপক্ষ চেন্নাই সিটি এফসি। যারা হোম ম্যাচ খেলছে কোয়েম্বাটোরে।

এমনিতে আই লিগের লড়াইয়ে চেন্নাই আর ইস্টবেঙ্গল এবার হাত ধরাধরি করে চলছে। উভয়েরই পয়েন্ট ৮। তবে চেন্নাইয়ের থেকে একটি বেশি ম্যাচ খেলেছে ইস্টবেঙ্গল। ফলে শনিবার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে খেলতে নামছেন মার্কোসরা। আলেজান্দ্রো না থাকলেও তাঁর দেখানো পথেই ম্যাচের আগেরদিন চেন্নাই ম্যাচ খেলতে গেল ইস্টবেঙ্গল। কলকাতা-হায়দরাবাদ হয়ে কোয়েম্বাটোরে গিয়েছেন লাল-হলুদ ফুটবলাররা। পৌঁছতে পৌঁছতে বিকেল সাড়ে তিনটে। ফলে শুক্রবার আর প্র‌্যাকটিসের সুযোগ হয়নি ফুটবলারদের। এদিন সরাসরি ম্যাচে খেলতে নামবেন ফুটবলাররা।

[আরও পড়ুন: বিসিসিআইয়ের পরবর্তী জাতীয় নির্বাচক হওয়ার দৌড়ে এই প্রাক্তন ভারতীয় তারকা]

চেন্নাই ম্যাচ নিয়ে ইস্টবেঙ্গল টিম ম্যানেজমেন্টের সবচেয়ে বড় সমস্যা স্টপারে মার্টিকে না পাওয়া। বাস্তব আর মার্সেলো ট্রুলস মিলে সেই জায়গায় নতুন রিক্রুট মনতোষ চাকলাদারকে খেলানোর কথা ভাবছেন। যদিও শুক্রবার রাত পর্যন্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। ঠিক হয়েছে, ম্যাচের দিন চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। কোয়েম্বাটোর থেকে বাস্তব বলেন, “চেন্নাই ম্যাচটা আমাদের জন্য ভীষণই গুরুত্বপূর্ণ। পুরো পয়েন্ট নিতে হবে।”
ইস্টবেঙ্গলে যেরকম মার্টি নেই। উলটোদিকে চেন্নাই দলে আবার রয়েছেন কাটসুমির মতো ফুটবলার। ফলে ম্যাচটা সহজ হবে না লাল-হলুদের জন্য। ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে খেলতে নামার আগে কাটসুমি বলেন, “ইস্টবেঙ্গলের সঙ্গে ম্যাচ খেলব, ভাবতেই ভাল লাগছে। ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের বিরুদ্ধে খেলতে সব সময়েই ভাল লাগে।” চিফ কোচ আলেজান্দ্রোর না থাকাটা চেন্নাইয়ের জন্য সুবিধা হবে কি না জিজ্ঞাসা করা হলে কাটসুমি বলেন, “ক্রোমা-সহ বেশ কিছু ফুটবলার দলে যোগ দেওয়ায় ওদের এখন নতুন দল। ফলে নিজেদের প্রমাণ করার জন্য ওরা ঝাঁপিয়ে পড়বে।”

ক্রোমার দিকে তাকিয়ে শুধু চেন্নাই নয়, তাকিয়ে ইস্টবেঙ্গলও। মার্কোস দলে থাকলেও এদিন চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে ম্যাচটা জেতার জন্য ইস্টবেঙ্গলের মূল ভরসা কিন্তু ক্রোমা। বল ধরে খেলার পাশাপাশি যিনি গোলটাও করতে পারেন। আর ইস্টবেঙ্গলে গোল করার লোকের সবচেয়ে বড় অভাব। তবে কোলাডো, ক্রোমা এবং জুয়ান মোরার মতো তিনজন বল প্লেয়ার থাকার জন্য চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে ম্যাচটা জেতার জন্য আশাবাদী ইস্টবেঙ্গল। তবে এখনও পর্যন্ত পকেটে মাত্র ৮ পয়েন্ট থাকাটাই ভাবাচ্ছে লাল-হলুদ শিবিরকে। যদিও দলের অন্যতম সেরা অস্ত্র জুয়ান মোরা মানতে চাইছেন না, দল যেভাবে খেলেছে, তাতে ৮ পয়েন্ট পাওয়াটা ঠিকভাবে পারফরম্যান্সকে প্রতিফলিত করছে। বলেন, “আমাদের দল বেশ কিছু ভাল ম্যাচ খেলেছে বলে মনে করি। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই কপাল আমাদের সঙ্গে ছিল না। শনিবার চেন্নাইকে হারাতে পারলেই লিগে ফের ভাল জায়গায় চলে আসব। আমাদের উপর এমনিতে কোনও চাপ নেই। তবে দিনের পর দিন নিজেদের উন্নতি করার জন্য চেষ্টা চালাব।”

[আরও পড়ুন: OMG! হার্দিক পাণ্ডিয়ার হাত ঘড়ি আর জুতোর দাম শুনলে চোখ কপালে উঠবে!]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং