১২ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ২৬ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

পাহাড়ে মোহনবাগানের সামনে ‘দুর্বল’ ট্রাউ, প্রতিপক্ষকে সমীহ করছেন ভিকুনা

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: March 1, 2020 2:00 pm|    Updated: March 1, 2020 2:00 pm

I league 2019-20: Mohun Bagan to face Trau FC today

স্টাফ রিপোর্টার: আসল কথাটা বোধহয় বলে ফেলেছেন প্রিন্সওয়েল এমেকা। কি বলেছেন? “এবারের আই লিগে মোহনবাগান (Mohun Bagan) নিঃসন্দেহে সেরা দল। তাদের হারানো খুবই কঠিন। রবিবার আমাদের কাছে এই ম্যাচটা সত্যি চ্যালেঞ্জের। ডিসেম্বরে মোহনবাগানের কাছে আমরা চার গোলে হেরেছিলাম। তখনকার তুলনায় এখন আমরা ভাল খেলছি। পুরো দল হিসাবে খেলছে ট্রাউ।” শনিবার সাংবাদিক সম্মেলনে একথা জানিয়ে দিয়েছেন ট্রাউ দলের অধিনায়ক প্রিন্সওয়েল।

Mohun-Bagan

[আরও পড়ুন: ‘আইএসএলে মোহনবাগানের যোগদান ভারতীয় ফুটবলকে সমৃদ্ধ করবে’, বলছেন নীতা আম্বানি]

কথাগুলো ঠিকই বলেছেন তিনি। সত্যিই অপ্রতিরোধ্য মোহনবাগানকে হারানো বেশ কঠিন কাজ ট্রাউয়ের কাছে। যারা গত পাঁচটা ম্যাচে জিততে পারেনি। শুধু তাই নয়, তিনটে ম্যাচে তারা হেরেছে। সেই দলের পক্ষে সম্ভাব্য আই লিগ চ্যাম্পিয়ন মোহনবাগানকে হারানো? শুধু কঠিন নয়, অনেকটা অবাস্তব। তবে এও ঠিক, ট্রাউ এখন নিজেদের জাত চেনাতে মরিয়া। আসলে দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গিয়েছে। অবনমনের হাতছানি সামনে। তাই বেপরোয়া মনোভাব নিয়ে ঝাঁপালে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

[আরও পড়ুন: ‘ত্রাতা’ সেই টুটু বোস! ফুটবলারদের যাবতীয় বকেয়া মিটিয়ে দিল মোহনবাগান]

mohun-bagan

মোহনবাগান অবশ্য আপন গতিতে এগোচ্ছে। ড্যানিয়েল ছাড়া প্রত্যেকেই ফিট। শুধু যা আশুতোষ মেহতা কার্ড সমস্যার দরুন খেলতে পারবেন না। তবু ট্রাউকে (TRAU F.C) সমীহ করতে ছাড়ছেন না কিবু ভিকুনা(Kibu Vicuña)। স্প্যানিশ কোচের স্পষ্ট বক্তব্য, “বেশ কয়েকজন ভাল ফুটবলার আছে ট্রাউ দলে। যারা সহজে ছেড়ে দিতে জানে না। তাই আমাদের সতর্ক হয়ে এগোতে হবে। নাহলে বিপদে পড়ে যাব।” আসলে ভিকুনা বুঝে গিয়েছেন, যতই আই লিগ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার তালিকায় পুরোপুরি মোহনবাগানকে ফেলে দেওয়া হোক না কেন, ঠোঁট আর পেয়ালার মধ্যে কোনও ফারাক দেখতে তিনি নারাজ। তাই শেষ হাসি হাসবেন সেইদিন যেদিন বাকি সাতটা ম্যাচের মধ্যে কম করে চারটেতে জিততে পারবেন। কিন্তু স্প্যানিশ কোচ তাও মানতে নারাজ। ট্রাউ ম্যাচের পর মোহনবাগান টানা কয়েকটা ম্যাচ খেলবে ঘরের মাঠে। সুতরাং পাহাড় জয় করে ফিরতে পারলে বাকি কাজটা অনেক সহজ হতে বাধ্য। ততদিনে ড্যানিয়েলও চোট সারিয়ে নিতে পারবেন। মাঝমাঠে বেইতিয়া, ফরোয়ার্ডে বাবাদের সংস্পর্শে মোহনবাগানের তরী এখন তরতরিয়ে এগিয়ে চলেছে। মনে হয়না পাহাড়ের ধাক্কায় বেসামাল হয়ে যাবে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে