২১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  রবিবার ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

স্টাফ রিপোর্টার: সমস্যার পর সমস্যা। চোটের জন্য বাইরে দলের এক নম্বর ডিফেন্ডার সন্দেশ জিঙ্ঘান। এবার সমস্যা বাড়ল দুবাই থেকে আনাসের ফিরে আসায়। দুবাইয়ে একদিন ট্রেনিংয়ের পর আফগানিস্তান ম্যাচ খেলতে দুশানবে যাওয়ার পথে ভারতীয় শিবিরে খবর আসে আনাসের মা মারা গিয়েছে। খবর পেয়ে তাঁকে দেশে ফেরত পাঠায় টিম ম্যানেজমেন্ট। সন্দেশের পর আনাস না থাকায় আফগানিস্তান ম্যাচের আগে চিন্তার ভাঁজ স্টিমাচের কপালে। দুশানবে পৌঁছে কোচ বলেন, ‘আনাসকে মিস করব। ওর জন্য সব কিছু কঠিন হয়ে গেল। আমরা আনাস এবং তাঁর পরিবারের পাশে।’

[আরও পড়ুন: মেসির হ্যাটট্রিকের সঙ্গে জুড়ে গেল বিগ বি’র ছবির সংলাপ, অভিনব পোস্ট লা লিগার]

ভারতীয় দল যেমন ভেবেছিল, দুশানবে পৌঁছে দেখা গেল পরিস্থিতি তেমনই। ৬ ডিগ্রি তাপমাত্রায় কাঁপছেন ফুটবলাররা। ঠান্ডা ও কৃত্রিম ঘাসের মাঠ, সঙ্গে আনাসের মতো ডিফেন্ডারের অনুপস্থিতি। সব মিলিয়ে আফগানিস্তান ম্যাচের আগে সমস্যায় ভারতীয় শিবির। স্টিমাচ বলেন, ‘বুঝতে পারছি, ম্যাচটা আমাদের জন্য কতটা কঠিন। আমরা কাতার ও বাংলাদেশের বিরুদ্ধে খেলেছি। আফগানিস্তানকে দেখে বুঝেছি, অনেক ফুটবলার ইউরোপে খেলার জন্য অভিজ্ঞ ও শারীরিকভাবে শক্তিশালী। হয়তো ইউরোপের বড় ডিভিশনে খেলে না। কিন্তু, ইউরোপ খেলার অভিজ্ঞতাটা কাজে লাগাবে।’

যুদ্ধবিধস্ত পরিস্থিতির জন্য ম্যাচটা নিজেদের দেশে না খেলে তাজিকিস্তানে খেলছেন আফগানরা। এই ম্যাচকে আফগানিস্তানের হোম ম্যাচ বলা যাবে না। ভারতীয় দলের বিরুদ্ধে খেলার আগে আফগানিস্তান কোচ আনাউস দাস্তাগিভ বলছিলেন, ‘ভৌগলিক দিক থেকে দেশের থেকে অনেক দূরে খেলছি আমরা। কিন্তু. এখানে খেলে সব সময় আত্মবিশ্বাস বাড়িয়েছি। এখানেই হারিয়েছি, কম্বোডিয়া ও বাংলাদেশকে। ড্র করেছি তাজিকিস্তান, জর্ডনের সঙ্গে। তাজাকিস্তানের মাটিতে এই ফলগুলো সব সময় আমাদের উদ্বুদ্ধ করেছে।’

[আরও পড়ুন: বুলবুলের চোখ রাঙানির মধ্যেই জমজমাট এটিকে শো, কৃষ্ণার গোলে এল সহজ জয়]

ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে ভারতের র‌্যাঙ্কিং ১০৬। আফগানিস্তান ১৪৯। তবুও তাদের হালকা করে দেখার জায়গায় নেই ভারত। কাতারের কাছে ৬ গোল খেলেও বাংলাদেশকে হারিয়েছে আফগানিস্তান। এই কারণে লিগ টেবিলে ভারতের উপরে তাঁরা। বৃহস্পতিবার ম্যাচের আগে ভারতীয় দলের জন্য ভাল খবর, ইতিহাস সুনীল ছেত্রীদের সঙ্গে রয়েছে। এখনও পর্যন্ত ভারত ও আফগানিস্তান লড়াই করেছে ৮ বার। ৬ বার জিতেছে ভারত। একটি ড্র আর অন্যটিতে হার। ২০১৩ সালে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালে ভারতকে ২-০ গোলে হারিয়েছিল আফগানিস্তান।

পরের রাউন্ডে যেতে গেলে আফগানিস্তানকে হারাতেই হবে। এমন অবস্থায় দুশানবে পৌঁছে ভারতীয় দলের অধিনায়ক সুনীল ছেত্রী বলেন, ‘ভাল খেলে সুযোগ তৈরি করলে হবে না। সুযোগগুলো কাজে লাগাতে হবে। একই সঙ্গে ডিফেন্স করার সময় সে কাজটাও নিখুঁত করতে হবে।’ স্টিমাচ বলেন, ‘আমাদের সামনে এখন জয় ছাড়া অন্য রাস্তা খোলা নেই। যে কোনও মূল্যে ম্যাচটা জিততে হবে।’

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং