২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৬ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

কল্যাণীর মাঠই টনিকের কাজ করেছে, লিগ জয়ের উচ্ছ্বাসে ভেসে জানালেন বাগান কর্তারা

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: March 10, 2020 8:33 pm|    Updated: March 10, 2020 9:00 pm

An Images

ফাইল ছবি

সুলয়া সিংহ ও শুভজিৎ মণ্ডল: হোলির দিনই আই লিগের রং সবুজ-মেরুন। ফের ভারতসেরা গঙ্গাপাড়ের ক্লাব। তাই সেলিব্রেশন তো মাস্ট! কিন্তু মঙ্গলবার কল্যাণীতে আইজলকে হারানোর পর মাঠের মধ্যে উচ্ছ্বাস দেখালেও, তা নাকি ট্রেলার। এমনটাই বলছেন বাগান কর্তারা। ভালয় ভালয় লিগের বাকি ম্যাচগুলি শেষ হোক। আসল সেলিব্রেশন হবে ৪ এপ্রিল। সেইসঙ্গে দ্বিতীয়বার আই লিগ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্য ফুটবলারদের মোটা ইনসেনটিভও ঘোষণা করেছেন কর্তারা। কিন্তু সবকিছু ছাপিয়ে কল্যাণীর মাঠই এদিন টনিকের কাজ করেছে মানছেন সৃঞ্জয়-দেবাশিসরা।

এদিন ম্যাচ শেষ হতেই উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়ে কল্যাণী স্টেডিয়াম। ছোট গ্যালারি হলেও এদিন বাগানকে চ্যাম্পিয়ন হতে দেখতে হাজার হাজার সমর্থক হাজির হয়েছিলেন কল্যাণীতে। সারাক্ষণ চেঁচিয়ে-চেঁচিয়ে দলকে উৎসাহ জুগিয়েছেন মেরিনার্সরা। ফুটবলাররাও হতাশ করেননি সমর্থকদের। সেটাই এদিন সাংবাদিক বৈঠকে উল্লেখ করেছেন বাগান সচিব সৃঞ্জয় বোস ও অর্থ সচিব দেবাশিস দত্ত। দেবাশিসবাবু বলেছেন, ‘কল্যাণীর ছোট মাঠে ম্যাচ করার জন্য আমাদের সিদ্ধান্ত সঠিকই ছিল। ছোট মাঠে প্রচুর সমর্থক হবে। সেটাই টনিকের কাজ করেছে দলের জন্য।’

[আরও পড়ুন: আই লিগের রং সবুজ-মেরুন, আইজলকে হারিয়ে ফের ভারতসেরা মোহনবাগান]

এটিকের সঙ্গে সংযুক্তিকরণ যে খেলায় কোনও প্রভাব ফেলবে না সেকথা ডার্বির আগে থেকে বলে আসছেন কর্তারা। এদিনও লিগ জয়ের সেলিব্রেশনের সময় সেকথাই উল্লেখ করলেন কর্তারা। সৃঞ্জয়-দেবাশিসরা বলেন, ‘এটিকের সঙ্গে সংযুক্তিকরণ দলের খেলায় কোনও প্রভাব ফেলেনি, ফেলবেও না। কারা পরের মরশুমে দলে থাকবেন বা থাকবেন না, সেটা পরে আলোচনা হবে। পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে পরেরবার দল ঠিক হবে।’ একইসঙ্গে বাগান সচিব সৃঞ্জয় বোস জানিয়েছেন, ৪ এপ্রিল গ্র্যান্ড সেলিব্রেশন হবে। আগে ডার্বি আর বাকি ম্যাচগুলি ভালয় ভালয় শেষ হোক। বাকিটা সাসপেন্সে রেখে এদিন সাংবাদিক বৈঠক শেষ করেন তাঁরা।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement