২৬  শ্রাবণ  ১৪২৯  শনিবার ১৩ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

আই লিগের রং সবুজ-মেরুন, আইজলকে হারিয়ে ফের ভারতসেরা মোহনবাগান

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: March 10, 2020 7:03 pm|    Updated: March 10, 2020 7:43 pm

Mohun Bagan defeats Aizawl FC, becomes second time I League Champion

মোহনবাগান: ১ (পাপা বাবাকার দিওয়ারা)
আইজল এফসি: ০

সুলয়া সিংহ ও শুভজিৎ মণ্ডল: একটা সময় মনে হচ্ছিল, আজও মনে হয় হল না। চ্যাম্পিয়নশিপের জন্য হয়তো রবিবার ফিরতি ডার্বির জন্য অপেক্ষা করতে হবে। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধের ৮০ মিনিটের মাথায় এল সেই মুহূর্ত। বেইতিয়ার ডিফেন্স চেরা পাস থেকে পাপার শট আইজলের গোলে ঢুকতেই বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়ল কল্যাণী স্টেডিয়াম। পাঁচ বছর পর ফের আই লিগে চ্যাম্পিয়ন হল মোহনবাগান। আইজল এফসিকে ১-০ গোলে হারিয়ে গোষ্ঠ পাল সরণিতে ফের ঢুকল ট্রফি। আই লিগের রং ফের হল সবুজ-মেরুন। ২০০৯-১০ মরশুমে ঠিক এইভাবেই চার ম্যাচ বাকি থাকতে আই লিগ চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ডেম্পো। মঙ্গলবার সেই ডেম্পোকে ছুঁয়ে ফেলল মোহনবাগান।

সেলিব্রেশনের মুডে টিম মোহনবাগান

এবার নিয়ে দ্বিতীয়বার আই লিগ ঘরে তুলল মোহনবাগান। এর আগে তিনবার জাতীয় লিগ জিতেছে সবুজ-মেরুন শিবির। সবমিলিয়ে পঞ্চমবার ভারতসেরা হল তারা। এদিন খেলা শেষের বাজি বাজতেই উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়েন মোহনবাগান ফুটবলাররা। মাঠে ঢুকে উচ্ছ্বাস দেখাতে শুরু করেন সবুজ-মেরুন শিবিরের কর্তারাও। রিয়াল কাশ্মীরকে ১-০ গোলে ইস্টবেঙ্গল হারিয়ে দেওয়ায় লিগের ছবিটা স্পষ্ট হয়ে যায়। হিসেব মতো, আজ যদি মোহনবাগান (Mohun Bagan) আইজল এফসিকে হারাতে পারে তাহলে এবারের আই লিগ তুলে নেবে। তাই এদিন কল্যাণীতে সবুজ-মেরুন সমর্থকদের ঢেউ আছড়ে পড়েছিল। সেই সঙ্গে সমর্থকদের মুখে হাসি ফুটিয়ে আই লিগ চ্যাম্পিয়ন হল মোহনবাগান। চার ম্যাচ বাকি থাকতেই ফের ভারতসেরা শতাব্দী প্রাচীন ক্লাব।

উচ্ছ্বসিত কোচ কিবু ভিকুনা ও টিম

[আরও পড়ুন: জিতলেই লিগের রং সবুজ-মেরুন, বেইতিয়াদের বরণ করতে সেজে উঠেছে কল্যাণী]

টানা ১৩ ম্যাচে অপরাজিত থেকে মঙ্গলবার কল্যাণীতে আইজল এফসির বিরুদ্ধে মাঠে নেমেছিল কিবু ভিকুনার মোহনবাগান। পাপা-তুরসনভ, ফ্রান, বেইতিয়াদের বিরুদ্ধে রক্ষণ সামলে পালটা আক্রমণের পথেই পা বাড়ায় পাহাড়ের দলটি। কিন্তু শেষ হাসি হাসে মোহনবাগানই। হোলির দিনেই আই লিগের রং হল সবুজ-মেরুন। এই চ্যাম্পিয়নশিপের কৃতিত্ব গোটা দলকেই দিচ্ছেন সৃঞ্জয়-দেবাশিসরা। বাগান কর্তা দেবাশিস দত্ত তো জয়ের পর বলেই দিলেন, ‘গোটা মরশুমে মোহনবাগান যে ফুটবল খেলেছে, তা অতীতে কোনও দল খেলেছে কি না মনে পড়ছে না। এই জয় গোটা দলের জয়।’ মোহনবাগানের কোচ হিসাবে প্রথমবার আই লিগ জয়ে উচ্ছ্বসিত কিবু ভিকুনাও। এক দশক আগে চার ম্যাচ বাকি থাকতে লিগ চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল গোয়ার ক্লাব ডেম্পো। এদিন সেই রেকর্ড ছুঁল মোহনবাগান। বাংলা তথা ভারতীয় ফুটবলকে ফের একবার উজ্জীবিত করল বাগানের লিগ জয়, তা বলাই বাহুল্য।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে