BREAKING NEWS

৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বুধবার ২৫ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

কাটেনি করোনা আতঙ্ক, একবছর পিছিয়ে গেল SAAF চ্যাম্পিয়শিপও

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: June 30, 2020 5:11 pm|    Updated: June 30, 2020 5:12 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা আতঙ্ক এখনও কাটেনি। তাই শেষ মুহূর্তে এসে বাতিল হয়ে গেল আরও একটি আন্তর্জাতিক ফুটবল টুর্নামেন্ট। একবছর পিছিয়ে দেওয়া হল দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে জনপ্রিয় ফুটবল টুর্নামেন্ট সাফ (The South Asian Football Federation) চ্যাম্পিয়শিপ। এবছর সেপ্টেম্বরের পরিবর্তে এই টুর্নামেন্টটি হবে আগামী বছর অর্থাৎ ২০২১ সালে।

India-Sunil

এবছর সাফ চ্যাম্পিয়শিপ শুরু হওয়ার কথা ছিল আগামী ৭ সেপ্টেম্বর। ১২ দিনের টুর্নামেন্ট শেষ হওয়ার কথা ১৯ সেপ্টেম্বর। ঢাকায় টুর্নামেন্ট আয়োজনের যাবতীয় প্রস্তুতিও সেরে ফেলা হয়েছিল। কিন্তু গত কয়েক সপ্তাহে বাংলাদেশে করোনা সংক্রমণ কমার পরিবর্তে লাগাতার বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাই শেষপর্যন্ত বাধ্য হয়ে টুর্নামেন্ট বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সোমবার SAAF-এর সদস্য দেশগুলির সচিব স্তরের ভারচুয়াল বৈঠকে টুর্নামেন্ট বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এ বছরের পরিবর্তে টুর্নামেন্ট আয়োজিত হবে আগামী বছর। একই সঙ্গে অনূর্ধ্ব-১৫, অনূর্ধ্ব-১৫ মহিলা, অনূর্ধ্ব-১৮’র মতো বয়সভিত্তিক টুর্নামেন্টগুলিও পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। উল্লেখ্য, সাফ চ্যাম্পিয়শিপের সবচেয়ে সফল দল ভারত। ২০১৫ সালে শেষবার এই টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয় মেন-ইন-ব্লু। এখনও পর্যন্ত সাতবার দক্ষিণ এশিয়ায় সেরার খেতাব জিতেছে টিম ইন্ডিয়া। সাফ কাপ পিছিয়ে যাওয়ায় স্বভাবতই হতাশ হবেন দেশের ফুটবলপ্রেমীরা।

[আরও পড়ুন: সবুজ-মেরুন সমর্থকদের জন্য সুখবর, এবার ঘরে বসেই পেয়ে যান চ্যাম্পিয়নশিপ মার্চেনডাইস]

উল্লেখ্য, সাফ চ্যাম্পিয়শিপ পিছিয়ে গেলেও সুনীল ছেত্রীরা (Sunil Chhetri) করোনা আতঙ্ক কাটিয়ে মাঠে নামছেন আগামী ৮ অক্টোবর। দীর্ঘ বিরতির পর বিশ্বকাপ এবং এশিয়া কাপের বাছাই পর্বের ম্যাচে এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন কাতারের বিরুদ্ধে খেলতে হবে ভারতকে। আগামী ১২ নভেম্বর ভারত খেলবে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে। মাত্র পাঁচদিনের ব্যবধানে কলকাতা ফিরে যুবভারতীতে আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে নামার কথা ভারতীয় দলের। অর্থাৎ সাফ চ্যাম্পিয়শিপ বাতিল হলেও বিশ্বকাপের বাছাই পর্বের ম্যাচে অক্টোবরেই নামতে হচ্ছে ভারতকে। তবে করোনা পরিস্থিতির অবনতি হলে ফের সূচি পরিবর্তনের রাস্তাও খোলা রাখছে এশিয়ার ফুটবল নিয়ামক সংস্থা।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement