১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

রোহিত-রাহুলের সেঞ্চুরিতে কুপোকাত শ্রীলঙ্কা, একপেশে ম্যাচে জয়ী ভারত

Published by: Sulaya Singha |    Posted: July 6, 2019 10:38 pm|    Updated: July 6, 2019 10:46 pm

An Images

শ্রীলঙ্কা: ২৬৪/৭ (ম্যাথিউজ-১১৩, থিরিমানে-৫৩)
ভারত: ২৬৫/৩ (রোহিত-১০৩, রাহুল-১১১)
৭ উইকেটে জয়ী ভারত

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অতিমানবীয়। অন্য গ্রহের। অতুলনীয়। কোন শব্দে ব্যাখ্যা করা যাবে রোহিত শর্মাকে? বিশ্বকাপে তিনি যে দুর্দান্ত কিছু করবেন, সে আশা ছিলই। কিন্তু ইংল্যান্ডের মাটিতে পারফরম্যান্সের নিরিখে বিরাট কোহলিকেই এগিয়ে রেখেছিল ক্রিকেট মহল। টুর্নামেন্ট শুরুর পর ছবিটা মিলল না। কোহলি ধারাবাহিকভাবে ভাল খেললেন ঠিকই, কিন্তু নিজের ব্যাটিংকে অন্য মাত্রায় পৌঁছে দিলেন ভারতীয় দলের হিটম্যান। স্কিল আর ক্লাসের মিশেলে তাঁর প্রতিটি ইনিংস হয়ে উঠল সুস্বাদু। যার ধারেকাছেও কেউ পৌঁছতে পারলেন না। একগুচ্ছ রেকর্ড ঝুলিতে ভরেই গ্রুপ পর্বে ইতি টানলেন রোহিত। আর ভারতীয় দল? তারা তো যেন জিততেই মাঠে নেমেছিল। একপেশে ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে রীতিমতো পিষে দিয়ে দুটি পয়েন্ট পকেটে পুরল কোহলি অ্যান্ড কোং।

[আরও পড়ুন: কথা রেখেছেন কোহলি, অধিনায়কের দেওয়া টিকিটেই ফের গ্যালারিতে চারুলতা]

রূপকথার রাজপুত্তুরের কাহিনি শুনলে যেমন মন ভরে যায়, ঠিক তেমনই সেই রূপকথার কাহিনি থেকে বেরিয়ে বাস্তবের মাটিতে দাঁড়িয়ে ক্রিকেটপ্রেমীদের মন ভাল করে দিচ্ছেন রাজপুত্তুর রোহিত। কোনও এক বিশ্বকাপে পাঁচটি সেঞ্চুরির একমাত্র মালিক হয়ে গেলেন তিনি। সেই সঙ্গে গ্রুপ পর্বে ছ’শো রানের গণ্ডি পেরিয়ে শচীন তেণ্ডুলকরের রেকর্ডও ভেঙে দিলেন। আর হিটম্যানের সঙ্গে তাল মিলিয়ে ভারতের জয়কে আরও খানিকটা সহজ করে দিলেন লোকেশ রাহুল। তিনিও হাঁকালেন সেঞ্চুরি। বিশ্বকাপে এটাই তাঁর প্রথম শতরান। শনিবার হেডিংলিতে তিন-তিনটে শতরানের সাক্ষী থাকলেন দর্শকরা। যার মধ্যে একটি শ্রীলঙ্কার অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজের। কিন্তু রোহিত মারকাটারি ফর্ম, ব্যাট হাতে তাঁর আত্মবিশ্বাস যেন ম্যাচের বাকি সব ঘটনাকে ম্লান করে দিল।

মাস্টার ব্লাস্টার একবার এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, তাঁর রেকর্ড যদি কেউ ভাঙতে পারেন, তবে তা রোহিত শর্মা। এ বিশ্বকাপ ভারতীয় দলের হিটম্যানকে নিঃসন্দেহে ‘রেকর্ড ব্রেকার’ হিসেবেই মনে রাখবে। এক দল যখন ক্রিকেট শৈলী দিয়ে জয়ের কাহিনি রচনা করে, তখন অন্য দলকে যতখানি হতাশ দেখানো সম্ভব, শ্রীলঙ্কাকে তেমনই লাগল। চলতি বিশ্বকাপ থেকে আগেই ছিটকে গিয়েছে তারা। তাই খেলার মধ্যে সেই জ্বলে ওঠার ছিটেফোঁটা আগ্রহটুকুও ছিল না মালিঙ্গাদের। টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে বুমরাহর (৩) বোলিং ঝড়ে তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে লঙ্কাবাহিনীর টপ-অর্ডার। ম্যাথিউজ ও থিরিমানেই যা একটু সম্মান বাঁচান।

rohit

ব্যাটিংয়ের মতো বোলিংও তথৈবচ। একটা সময় মনে হচ্ছিল হয়তো দশ উইকেটেই জিততে চলেছে টিম ইন্ডিয়া। তবে রোহিত শর্মাকে প্যাভিলিয়নে ফিরিয়ে ১৮৯ রানে ওপেনিং পার্টনারশিপ ভাঙেন রজিথা। গত ম্যাচে ভাল পারফর্ম করলেও এদিন ব্যর্থ ঋষভ পন্থ (৪)। ৩৪ রানে অপরাজিত থেকে ম্যাচ জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন ক্যাপ্টেন কোহলি।

এখনও পর্যন্ত হোম ফেভারিট ইংল্যান্ডের কাছেই হারতে হয়েছে কোহলিদের। সেমিফাইনালের লড়াই ফের তাদের বিরুদ্ধেই কি না, তা পরিষ্কার হবে দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের শেষে। তবে প্রতিপক্ষ যেই হোক, ভারতের কাছে একজন রোহিত শর্মা ও একজন জশপ্রিত বুমরাহ রয়েছেন। যাঁরা অন্য দলের ঘুম উড়িয়ে দেওয়ার জন্য যথেষ্ট।

[আরও পড়ুন: ‘গণহত্যা বন্ধ করে কাশ্মীরকে মুক্ত করো’, বিশ্বকাপের আকাশে ভারত-বিরোধী স্লোগান]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement