৪ কার্তিক  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২২ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আইপিএলের গ্রুপ লিগ শেষ হতে আর বাকি ৯ দিন। এই ন’দিনই ভাগ্য নির্ধারণের সময়। নয়েই নিশ্চিত হবে কোন দল প্রথম চারে শেষ করে প্লে-অফে পৌঁছলো আর কে নয়। কিন্তু বর্তমানের লিগ তালিকার দিকে নজর রাখলে মনে হতেই পারে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব, কেকেআর, রাজস্থান রয়্যালস এবং আরসিবির আর এবারের মতো প্লে-অফে পৌঁছনোর সুযোগ নেই। কারণ চেন্নাই, দিল্লি, মুম্বই যেভাবে এগিয়ে চলেছে, তাতে অনেকখানি পিছিয়ে এই দলগুলি। কিন্তু কেকেআর বা আরসিবির সমর্থকরা জেনে রাখুন, প্রিয় দলকে এখনও প্লে-অফে দেখতে পারেন। তাই আশা ছাড়বেন না। বরং দেখে নিন কোন অঙ্কে তালিকার প্রথম চারে থাকতে পারবে তালিকার নিচের দিকে থাকা এই দলগুলি।

চেন্নাই সুপার কিংস:
১২ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার শীর্ষে ধোনির দল। সুতরাং প্লে-অফে পৌঁছে গিয়েছে তারা। বরং এখন ধোনির চেন্নাইয়ের লক্ষ্য থাকবে শীর্ষস্থান ধরে রাখা। কারণ এক নম্বরে থাকলে ফাইনালে পৌঁছনোর দুবার সুযোগ পাওয়া যাবে। পরের ম্যাচে দিল্লি ক্যাপিটালসকে হারানোই তাই পাখির চোখ মাহি অ্যান্ড কোংয়ের।

মুম্বই ইন্ডিয়ান্স:
দ্বিতীয় স্থানে থাকা মুম্বইয়ের ১১ ম্যাচে সংগ্রহ ১৪ পয়েন্ট। চেন্নাইকে হারিয়ে দুর্দান্ত ফর্মে রোহিত শর্মারা। আর তিনটে ম্যাচ পরই জানা যাবে তাঁরা ২ নম্বর জায়গা ধরে রাখতে পারলেন কিনা।

[আরও পড়ুন: প্রথম ভারতীয় হিসাবে এই ক্লাবের হয়ে কাউন্টি ক্রিকেট খেলবেন রাহানে]

দিল্লি ক্যাপিটালস:
বর্তমানে মুম্বই আর দিল্লির পয়েন্ট একই। রানরেটে খানিকটা পিছিয়ে বলে তিন নম্বরে শ্রেয়াসরা। বাকি তিনটি ম্যাচের মধ্যে একটা জিতলেই প্লে-অফের রাস্তা কার্যত নিশ্চিত হয়ে যাবে দিল্লির। তাদের ম্যাচ বাকি আরসিবি, সিএসকে এবং আরআর-এর বিরুদ্ধে।

সানরাইজার্স হায়দরাবাদ:
দশ ম্যাচে দশ পয়েন্ট পেয়ে চার নম্বরে কেন উইলিয়ামসনরা। অর্থাৎ তাদের হাতে এখনও চারটে ম্যাচ। এর মধ্যে দুটো হারলেও প্লে-অফে পৌঁছনো কঠিন নয়। তবে সম্পূর্ণ নিশ্চিত হতে তিনটি ম্যাচ জিততে হবে তাদের। নাহলেই অন্যের মুখাপেক্ষী হয়ে থাকতে হবে। রাজস্থান ও পাঞ্জাবের বিরুদ্ধে জয়কেই পাখির চোখ করছে তারা।

কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব:
১১ ম্যাচের মধ্যে পাঁচটা জয়। ফলে দশ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচ নম্বরে প্রীতি জিন্টার দল। তবে আসল টুইস্ট হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে পাঞ্জাবের লড়াইতে। দুজনই খেলবে প্লে-অফে জায়গা পেতে। পাশাপাশি কেকেআর ও চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে রয়েছে লড়াই। সেখানে কেকেআরকে হারাতেই হবে অশ্বিনদের।

কলকাতা নাইট রাইডার্স:
শুরুটা দুর্দান্ত করেও ১১ ম্যাচে ৮ পয়েন্ট নিয়ে ছয় নম্বরে কেকেআর। টানা ছয় ম্যাচে জয়ের মুখ দেখেননি দীনেশ কার্তিকরা। প্লে-অফে পৌঁছতে হলে বাকি সবকটা ম্যাচে বড় ব্যবধানে জিততে হবে কিং খানের দলকে। তবেই আরও একবার ট্রফি জয়ের দৌড়ে ভেসে থাকতে পারবে দুবারের চ্যাম্পিয়নরা।

[আরও পড়ুন: আরসিবির পোস্টে মেজাজ হারালেন দিন্দা, সোশ্যাল মিডিয়ায় কড়া জবাব পেসারের]

রাজস্থান রয়্যালস:
১১ ম্যাচে এই দলেরও সংগ্রহ আট পয়েন্ট। এমন পরিস্থিতিতে শুধু সবকটা ম্যাচ জিতলেই হবে না, উপরের দিকে থাকা দলগুলি পয়েন্ট নষ্ট করলে তবেই প্লে-অফে খেলার সুযোগ পেতে পারেন স্টিভ স্মিথরা। কারণ রানরেটে অনেকটাই পিছিয়ে তারা। তাছাড়া তালিকার প্রথম দিকে থাকা দলগুলির বিরুদ্ধেই লড়াই বাকি রাজস্থানের।

রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর:
১১ ম্যাচে ৮ পয়েন্টে আরও একবার তালিকার শেষে বিরাট কোহলি। টুর্নামেন্টের শুরুতেই মুখ থুবড়ে পড়েছিল দল। তারপরও জয়ের হ্যাটট্রিক করে ঘুরে দাঁড়ায় দল। এবার দিল্লি, হায়দরাবাদ ও রাজস্থানকে হারিয়ে প্লে-অফে যেতে বদ্ধপরিকর আরসিবি। তারা রানরেটে পিছিয়ে থাকাতেই যত সমস্যা।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং