BREAKING NEWS

০৮ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বিশ্বকাপের আগে মহাবিতর্কে সালাহ, কী করলেন ‘মিশরীয় মেসি’?

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 13, 2018 10:46 am|    Updated: August 21, 2018 7:56 pm

Mohamed Salah meets notorious Chechen leader, sparks row

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জার্মানির ইকের গুন্দোগান খবরটা পেয়েছেন কি না, জানা নেই। কিন্তু পেলে নির্ঘাত আধুনিক ফুটবলের ‘ফারাও’কে একটা টেক্সট করতেন! মো, শেষে তুমিও!

মাস খানেক আগে দুই জার্মান ফুটবলার গুন্দোগান এবং মেসুট ওজিল তুরস্কের প্রেসিডেন্টকে ‘আমার প্রেসিডেন্ট’ লেখা জার্সি উপহার দেওয়া নিয়ে জার্মানি এখন জ্বলছে। এই তো, দিন কয়েক আগেই সৌদি আরবের বিরুদ্ধে জার্মানির শেষ বিশ্বকাপ প্রস্তুতি ম্যাচে গুন্দোগান-ওজিলকে দেখামাত্র ব্যঙ্গ-বিদ্রূপে ভরিয়ে দিয়েছিল জার্মান জনতা! ব্যাপারটা এতটাই বেগতিক যায় যে, শেষ পর্যন্ত বিশ্বজয়ী টিমের কোচ জোয়াকিম লোকে মাঠে নামতে হয়। জার্মান সমর্থকদের কড়া পালটা দিতে হয়। চেচেন মেতা রমজান কাদিরভের সঙ্গে ছবি তোলার জন্য মহম্মদ সালাহকে মিশর জনতার ক্ষোভের মুখে পড়তে হয়নি ঠিকই। কিন্তু ফুটবলের ‘ফারাও’-এর পিছনে তো মানবাধিকার কমিশনের লোকজন লেগে গেলেন!

[প্রথম অনুশীলনেই গ্যালারি মাতালেন ব্রাজিলের জেসুস-কুটিনহোরা]

ঠিক কী ঘটেছে?

রাশিয়া বিশ্বকাপে মিশর যেখানে নিজেদের বেসক্যাম্পের ডেরাডান্ডা ফেলেছে, সেই চেচেনের রাজধানী গ্রজনিতে ঘটনাটা ঘটে। মানুষের জন্মগত অধিকার অন্যায়ভাবে খর্ব করা নিয়ে চেচনিয়া বহু দিন ধরেই শিরোনামে। শুধু তাই নয়, চেচনিয়াকে কেন ওয়ার্ল্ড কাপ বেস হিসেবে ভাবা হয়েছে তা নিয়েও তুলকালাম চলছে। হিউম্যান রাইটস ওয়াচের পক্ষ থেকে ফিফার কাছে আবেদন করা হয়েছিল যে, চেচনিয়া থেকে বিশ্বকাপের বেস ক্যাম্প সরাতে। কিন্তু ফিফা তাতে কর্ণপাত করেনি এবং যার ফলে অসন্তোষের স্ফুলিঙ্গও তীব্রভাবে ছড়িয়েছে। যার পরিণতি গত সোমবার হিউম্যান রাইটস ওয়াচের ইউরোপিয়ান মিডিয়া ডিরেক্টর অ্যান্ড্রু স্ট্রোহলেনের
টুইট। যেখানে তিনি শ্লেষাত্মকভাবে লিখে দেন, “যা ভেবেছিলাম তাই হল। কিছু অত্যাচারী আর খুনিকে বিশ্বমঞ্চে প্রোমোট করা হচ্ছে। এ হেন প্রেক্ষাপটে চেচেন লিডারের কাদিরভের সঙ্গে সালাহর ছবি!”

কাদিরভ আদতে আরব দেশে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনেরই দূত, এরকম একটা জল্পনা শোনা যায়। সাধারণ মানুষের উপর অত্যাচার চালানোর অভিযোগে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কাদিরভকে ব্ল্যাকলিস্ট করার পর ফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রামেও তাঁর অ্যাকাউন্ট ব্লক করে দেওয়া হয়। এমনকী চেচেনের কারাগারে তাঁর বিরুদ্ধে সমকামীদের উপর অত্যাচার করার অভিযোগও আছে। ঘটনা হল, এরকম বিতর্কিত চরিত্রের সঙ্গে সালাহ ছবি তুলতে তা নিয়ে তীব্র শোরগোল পড়ে গিয়েছে। বলাবলি চলছে, সালাহ কাদিরভের ইতিহাস জানেন না?

[বিশ্বকাপে প্রথম ম্যাচে অনিশ্চিত সালাহ! চিন্তায় সমর্থকরা]

মিশরের রাজপুত্র নিজে এ সব বিভ্রান্তিকর ব্যাপারস্যাপারে ঢুকতে চাইছেন না। তিনি বলে দিচ্ছেন, রাশিয়ায় একটা জিনিস করতেই এসেছেন। বিশ্বকাপ খেলতে। “এটা আমার কাছে স্বপ্নের মতো। ১৯৯০ সালের পর আবার বিশ্বকাপ খেলব আমরা। এর চেয়ে ভাল আর কী হতে পারে?” বলে দিয়েছেন সালাহ। ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো, লিওনেল মেসিদের সঙ্গে রাশিয়ায় সম্ভাব্য মহাতারকা হিসেবে তাঁকেও ভাবা হচ্ছে শোনার পর বলে দিয়েছেন, “যাদের কথা বলা হচ্ছে তারা প্রত্যেকে কিংবদন্তি। মেসি, নেইমার, রোনাল্ডো সবাই বিশ্বকাপ জেতার জন্য ঝাঁপাবে। আর আমি সবে নিজের প্রথম বিশ্বকাপ খেলতে নামব। ওদের সঙ্গে একই ব্র্যাকেটে আমাকে ফেলা যায় নাকি?” মন্তব্য হিসেবে যথেষ্ট বিনয় মিশ্রিত। বিতর্কহীন। কিন্তু চেচেন নেতার সঙ্গে ছবির পর সে সব আর কে শুনছে?

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে