BREAKING NEWS

১১ মাঘ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ২৫ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

অস্ট্রেলিয়ান ওপেন খেলা হচ্ছে না জকোভিচের, ফের ভিসা বাতিল করল সরকার

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: January 14, 2022 1:26 pm|    Updated: January 14, 2022 1:49 pm

Australia's government cancelled Novak Djokovic's visa for a second time | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ইঙ্গিত ছিলই। সেটাই এবার কার্যকর করল অস্ট্রেলিয়া সরকার। দ্বিতীয়বার বাতিল করে দেওয়া হল বিশ্বের এক নম্বর টেনিস তারকা নোভাক জকোভিচের ( Novak Djokovic) ভিসা। শুধু তাই নয়, বিশেষ কারণ দেখাতে না পারলে আগামী ৩ বছর অস্ট্রেলিয়ায় ঢুকতে পারবেন না সার্বিয়ার টেনিস তারকা।

Novac-Djokovic_new

করোনার টিকা না নিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় প্রবেশ করায় এর আগেও একবার জকোভিচের ভিসা বাতিল করে অস্টেলিয়া সরকার। অস্ট্রেলিয়ান ওপেন খেলতে গেলে মেলবোর্ন বিমানবন্দরেই আটকে দেওয়া হয় তাঁকে। প্রশাসনের তরফে জানানো হয়, সার্বিয়ার তারকার ভিসার আবেদনপত্রে ভুল থাকায় তাঁকে বিমানবন্দর থেকে বেরনোর অনুমতি দেওয়া হয়নি। কী ভুল? প্রশাসনের দাবি ছিল, টিকা নেওয়া না থাকলেও কীসের ভিত্তিতে তিনি বিশেষ মেডিক্যাল প্যানেলের ছাড়পত্র পেলেন, তার কোনও স্পষ্ট উত্তর নাকি তিনি দিতে পারেননি। অজি সরকারের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সেদেশের ফেডেরাল আদালতে আবেদন করেন সার্বিয়ান তারকা।

[আরও পড়ুন: অবশেষে সাইনার সঙ্গে ‘বদ রসিকতা’ করার জন্য ক্ষমা চাইলেন অভিনেতা সিদ্ধার্থ]

বিশ্ব টেনিসের শীর্ষে থাকা খেলোয়াড়ের আইনজীবী অস্ট্রেলিয়ার আদালতে জানান, নোভাক গত ১৬ ডিসেম্বর করোনায় (Coronavirus) আক্রান্ত হন। তাই কোভিড টিকা নিতে পারেননি। ইতিমধ্যেই সেই ঘটনার ১৪ দিন পেরিয়ে গিয়েছে। কোনও উপসর্গ তাঁর শরীরে নেই। অস্ট্রেলিয়ায় আসার জন্য যাবতীয় শর্ত তিনি পূরণ করেছেন। সেই ‘অজুহাত’ মেনে নিয়ে জকোভিচকে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে খেলার অনুমতি দেয়। কিন্তু অস্ট্রেলিয়া সরকারের সেই সিদ্ধান্ত পছন্দ হয়নি। তখনই ইঙ্গিত ছিল, ফের ভিসা বাতিল হতে পারে বিশ্বের এক নম্বর টেনিস তারকার।

[আরও পড়ুন: করোনা পজিটিভ হয়েও মাস্ক ছাড়া ফটোশুট! বিস্ফোরক স্বীকারোক্তি জকোভিচের, ফের বিতর্ক]

শুক্রবার অস্ট্রেলিয়ার অভিবাসী দপ্তরের মন্ত্রী অ্যালেক্স হক জানিয়ে দিলেন, সংবিধানের ১৩৩ সি(৩) ধারা অনুযায়ী নিজের ব্যক্তিগত ক্ষমতা ব্যবহার করে তিনি জকোভিচের ভিসা বাতিল করছেন। মূলত স্বাস্থ্য এবং শৃঙ্খলার কথা ভেবে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। অস্ট্রেলিয়া সরকার নিজেদের সীমানা রক্ষায় বদ্ধপরিকর। বিশেষ করে করোনার থেকে রক্ষার ক্ষেত্রে কোনও আপস করতে তাঁরা রাজি নন।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে