৩১ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৬  শনিবার ১৫ জুন ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

৩১ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৬  শনিবার ১৫ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাস্তায় ট্রাফিক জ্যামের জন্য গন্তব্যে পৌঁছাতে দেরি হয়ে যাওয়া নতুন নয়৷ কিন্তু তাই বলে পাহাড়ের চূড়ায়ও ট্রাফিক জ্যাম! তাও কীভাবে সম্ভব? অবাক লাগলেও এটাই সত্যি৷ এভারেস্টের চূড়াতেও কয়েকশো পর্বতারোহীর ভিড়৷ তাই বাধ্য হয়ে বরফে ঢাকা দুর্গম শৃঙ্গের ব্যালকনি থেকেই ফিরতে হল বাংলার মেয়ে পিয়ালি বসাককে৷ বুধবার রাতে দ্বিতীয়বার চেষ্টা করবেন তিনি৷ সঙ্গী পাসাং শেরপা৷

[ আরও পড়ুন: যোগী রাজ্যে ‘নির্যাতিত’, মোদি জিতলে গ্রাম ছাড়ার সিদ্ধান্ত সংখ্যালঘুদের]

চলতি বছরে আরোহণের মরশুমে আবহাওয়া মোটের উপর ভালই৷ তাই বহু সংখ্যক পর্বতারোহী এভারেস্ট অভিযান করছেন৷ ২০ মে সোমবার চলতি মরশুমে প্রথমবার বিশ্বের সর্বোচ্চ শৃঙ্গের চূড়ায় পা রাখে একদল অভিযাত্রী। ওই দিনই তাঁদের পিছু পিছু ক্যাম্প থ্রি-তে পৌঁছে যায় দ্বিতীয় অভিযাত্রী দলটিও। সেই দলেই ছিলেন বাংলার পিয়ালি বসাকও। সব ঠিক থাকলে বুধবার ভোরেই এভারেস্টের চূড়ায় পা রাখার কথা ছিল তাঁর। সবকিছু ঠিকঠাকই চলছিল। আবহাওয়াও ভালই ছিল। জানা গিয়েছে, বেলা বারোটা নাগাদ শৃঙ্গের খুব কাছেই ব্যালকনিতে পৌঁছে যান পিয়ালি৷ কিন্তু ততক্ষণে ক্যাম্প ফোরের কাছে অন্তত আড়াইশোজন পর্বতারোহীর ভিড় জমে গিয়েছে। বেশ কিছুক্ষণ অপেক্ষা করে শেষপর্যন্ত ফিরে আসার সিদ্ধান্ত নেন পিয়ালি ও তাঁর শেরপা পাসাং শেরপা৷

বাংলার মেয়ে আদৌও এভারেস্ট জয় করে সকলের মুখ উজ্জ্বল করতে পারবেন কি না, তা নিয়ে আশঙ্কা ছিলই৷ বুধবার সকালে ট্রাফিক জ্যামের জন্য সেই আশঙ্কাই সত্যি হল৷ ব্যর্থ হল এভারেস্ট চূড়ায় পা রাখার পরিকল্পনা৷ তবে হেরে যাওয়ার পাত্রী নন পিয়ালি৷ কারণ, পাহাড়ের হাতছানিকে এড়ানোর যে সাধ্য নেই তাঁর৷ তাই তো মন শক্ত করে বুধবার রাতে এভারেস্ট শৃঙ্গ জয়ের দ্বিতীয়বার চেষ্টা করবেন তিনি৷ সঙ্গে থাকবেন পাসাং শেরপা৷ সবকিছু ঠিক থাকলে হয় তো বৃহস্পতিবারই মিলতে পারে সুখবর৷ ওইদিনই এভারেস্টের শৃঙ্গে পা রাখতে পারেন বাংলার সাহসিনী৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং